ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

কষ্টার্জিত জয়ে শীর্ষে ফিরলো পিএসজি

নিউজ ডেস্ক

১৭ জানুয়ারী ২০২১, রাত ৩:৫১ সময়

[ received_427204561662080 ]
গোলের পর উদযাপনের মুহূর্ত। ছবিঃ ইন্টারনেট
করোনার থাবায় বিপর্যস্ত ফরাসি চ্যাম্পিয়ন পিএসজি। দলের গুরুত্বপূর্ণ তিনজন খেলোয়াড় ছাড়াও করোনায় দলের বাহিরে কোচ মৌরিসিও পচিত্তিনো। মনোযোগটা ওই দিকে ছিল বলেই রাতে অ্যাঞ্জার্সের মাঠে অচেনা এক পিএসজির দেখা মিলল। পচিত্তিনোর শিষ্যরা ১-০ গোলে জিতেছে বটে, কিন্তু সেটাকে কষ্টার্জিত জয় বললেও ভুল হবে। গেল বছর অক্টোবরে নেইমারের জোড়া গোলে এই অ্যাঞ্জার্সের সঙ্গে ছেলেখেলা করেছিল টুখেলের শিষ্যরা। নিজেদের ঘরের মাঠে ৬-১ গোলে জয়ী পিএসজিকে প্রতিপক্ষের মাঠে জিততে এবার ঘাম ঝরাতে হল। যদিও আশার কথা, এই জয়ে ফরাসি লীগে শীর্ষে ফিরল নেইমার- এম্বাপ্পেরা। পুরো ম্যাচেই সমানতালে লড়েছে অ্যাঞ্জার্স। পিএসজির ১১ শটের বিপরীতে ঘরের মাঠে নিজেরাও নিয়েছে সমান ১১টি শট। ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই গোলও পেতে পারত অ্যাঞ্জার্স। কিন্তু, গোলকিপার কেইলর নাভাসের দক্ষতায় সেবার বেচে যায় পিএসজি। প্রথমার্ধে গোল করার ভালো সুযোগ একবারই পায় সর্বশেষ ৮ বছরে ৭ বারের লীগ চ্যাম্পিয়নরা। ম্যাচের ২৭ মিনিটে ডি মারিয়ার পাস ডি-বক্সে খুঁজে পায় নেইমারকে। কিন্তু ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের শট প্রতিপক্ষের একজনের পায়ে লেগে পাশের জাল কাঁপায়। গোলশূন্য ড্র নিয়েই বিরতিতে যায় দুদল। বিরতি থেকে এসেও গোলের দেখা পাচ্ছিল না পিএসজি। নেইমার- এম্বাপ্পে- কেনদের একের পর এক আক্রমণ ঠেকিয়ে দেয় অ্যাঞ্জার্সের ডিফেন্স। পিএসজির আক্রমণভাগ ঠেকিয়ে রাখতে পারলে অ্যাঞ্জার্স আর পারেনি কুরজাওয়াকে ঠেকাতে। ম্যাচের ৭০তম মিনিটে ফরাসি ডিফেন্ডারের গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি। ডান দিক থেকে আলেস্সান্দ্রো ফ্লোরেন্সির ক্রস ডি-বক্সে ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে পারেনি স্বাগতিকরা। প্রথম স্পর্শে বাঁ পায়ের জোরালো ভলিতে ঠিকানা খুঁজে নেন লেইভিন কুরজাওয়া। পরবর্তীতে আর কোন গোল না হলে তার একমাত্র গোলেই অ্যাঞ্জার্সের মাঠ থেকে ১-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে পিএসজি। [caption id="attachment_1207" align="alignnone" width="945"] গোলের পর উদযাপনের মুহূর্ত। ছবিঃ ইন্টারনেট[/caption] তবে স্কোরটা ঠিক ম্যাচের গল্প বোঝাতে পারছে না। শুধু গোলটাই পাওয়া হয়নি, এ ছাড়া বাকি সবকিছুই করেছে অ্যাঞ্জার্স। কখনও স্ট্রাইকারদের ব্যর্থতায়, কখনও শেষ পাসটা ঠিকঠাক না হওয়ার মাশুলই দিতে হয়েছে ম্যাচ হেরে। এই নিয়ে ফরাসি লীগে পিএসজির বিপক্ষে সর্বশেষ ১১ ম্যাচের ১০ ম্যাচই হারের মুখ দেখে ক্লাবটি। ১৯৭৫ সালে ঘরের মাঠে ৩-১ গোলের জয়ের পর ফরাসি লীগে পিএসজির বিপক্ষে সর্বশেষ ২১ ম্যাচই জয়হীন অ্যাঞ্জার্স। এই জয়ে ২০ ম্যাচে ১৩ জয় ও তিন ড্রয়ে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে তিন মাস পর শীর্ষে ফিরল পিএসজি। এক ম্যাচ কম খেলে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে লিওঁ দুইয়ে, ১ পয়েন্ট কম নিয়ে লিল তিন নম্বরে আছে। আর ২০ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে লীগে অ্যাঞ্জার্সের অবস্থান সপ্তম।