ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

ব্যাট হাতে ভারতীয় বোলারদের দূর্দান্ত লড়াই

নিউজ ডেস্ক

১৭ জানুয়ারী ২০২১, সকাল ৮:১৮ সময়

[ ap21017213311140_1200x768 ]
ছবিঃ এপি ফটো
বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফির সিরিজ নির্ধারণী চতুর্থ এবং শেষ টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে ভারতের চেয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ৫৪ রানের লিড নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। কোন উইকেট না হারিয়ে দিন শেষে তাদের সংগ্রহ ২১ রান। ডেভিড ওয়ার্নার ২০* এবং মার্কাস হ্যারিস ১* রানে চতুর্থ দিন শুরু করবেন। ব্রিসবেনে শুভমান গিল বাদে ভারতের টপঅর্ডার এবং মিডলঅর্ডারের সবাই ভালো শুরু করেছিলেন। কিন্তু কোনো ব্যাটসম্যানই ইনিংসই বড় করতে পারেননি। যার ফলস্বরূপ ১৮৬ রানেই স্বীকৃত ৬ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে খাদের কিনারায় পড়ে যায় সফরকারীরা। সেখানে থেকেই সপ্তম উইকেটে শার্দুল ঠাকুর এবং ওয়াশিংটন সুন্দরের দুর্দান্ত এক পার্টনারশিপে খেলায় ফিরে ভারত। ভারতের হয়ে অভিষিক্ত ওয়াশিংটন সুন্দর আর ১ ম্যাচ খেলা শার্দুল ঠাকুর বল হাতে ৩ উইকেট করে শিকারের পর, ব্যাট হাতেও ত্রাণ কর্তা হিসেবে অবতীর্ণ হয়েছেন ব্রিসবেনে। সপ্তম উইকেটে এই মাঠে সফরকারীদের হয়ে রেকর্ড পার্টনারশিপ গড়েন এই দুই ভারতীয়। এই দুজনের জুটি থেকে আসে মহামূল্যবান ১২৩ রান। নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ইনিংসেই ফিফটি তুলে নেন শার্দুল ঠাকুর। শেষ পর্যন্ত ১১৫ বলে ৬৭ রান করে প্যাট কামিন্সের বলে বোল্ড হন তিনি। ৯ চার আর ২ ছয় আসে তার ব্যাট থেকে। আর টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম ইনিংসে ফিফটি তুলে নিয়েছেন ওয়াশিংটন সুন্দর। বাহারি সব শটে দারুণ ব্যাটিং করেছেন তরুণ এই ক্রিকেটার। নাথান লায়নের বলে "নো লুক" শটে লং অনে তার ছক্কাটা পুরো ইনিংস জুড়ে তার আত্মবিশ্বাসেরই প্রতীক। ১৪৪ বলে ৭ চার আর ১ ছয়ে ৬২ রান করে স্টার্কের শিকার হয়ে ফিরেন তিনি। এরপর সিরাজ আরও ১৩ রান যোগ করলে শেষ পর্যন্ত ৩৩৪ রানে থামে ভারতের প্রথম ইনিংস। ফলে প্রথম ইনিংসে ৩৪ রানের লিড পায় স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। অ্যাডিলেডের পর ব্রিসবেনেও ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করেছেন অজি পেসার জশ হ্যাজেলউড। ভারতীয় মিডঅর্ডার আজ একাই গুড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। ২৪.৪ ওভারে ৬ মেইডেন সহ ৫৪ রানে ৫ উইকেট শিকার করেন ডানহাতি পেসার। এছাড়া মিচেল স্টার্ক এবং কামিন্স ২টি করে উইকেট নেন। বাকি উইকেটটি নিয়েছেন শততম টেস্ট খেলা স্পিনার লায়ন। দ্বিতীয় দিনে বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হয়ে গেছিলো বেশ খানিকটা আগে। আজ তাই ৩০ মিনিট আগে মাঠে গড়ায় খেলা। তৃতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নেমে দেখে শুনেই শুরু করেছিলেন ভারতের দুই সিনিয়র ক্রিকেটার চেতেশ্বর পূজারা এবং অজিঙ্কা রাহানে। কিন্তু ৩৯ ওভারে ঘটে ছন্দপতন। দলীয় ১০৬ রানে জশ হ্যাজেলউডের বলে ২৫ রানে উইকেটকিপার টিম পেইনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন চেতেশ্বর পূজারা। [caption id="attachment_1276" align="alignnone" width="680"] দলের সাথে উৎযাপনে হ্যাজেলউড (ছবিঃ আইসিসি)[/caption] দলীয় ১৪৪ রানে ফিরে যান অধিনায়ক অজিঙ্কা রাহানেও। ৩৭ রানের মাথায় মিচেল স্টার্কের বলে তৃতীয় স্লিপে ম্যাথু ওয়েডের হাতে ধরা পড়েন তিনি। এরপর ৩৮ রান করা মায়াঙ্ক আগারওয়াল হ্যাজেলউডের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফিরলে ১৬১ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে বসে ভারত৷ এরপর আবারও আঘাত হানেন জশ হ্যাজেলউড। দলীয় ১৮৬ রানে আউট হন রিশাভ পান্তও। পুরো সিরিজে দারুণ ফিল্ডিংয়ে নজর কাড়া ক্যামেরুন গ্রিন, গালিতে দারুণ এক ক্যাচে ফেরান ভারতীয় উইকেটকিপারকে। সেই ভগ্নদশা থেকেই দলকে টেনে তোলেন শার্দুল ঠাকুর - ওয়াশিংটন সুন্দর জুটি। চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ১ - ১ এ সমতায় আছে দুই দল। অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্টে ভারতকে ৮ উইকেটে হারিয়েছিল স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় টেস্টে মেলবোর্নে স্বাগতিকদের ৮ উইকেটে হারিয়েই সমতায় ফিরেছিল সফরকারী ভারত৷ আর সিডনিতে রোমাঞ্চ ছড়ানো তৃতীয় টেস্ট হয় ড্র। সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ ২য় ইনিংস- অস্ট্রেলিয়াঃ ২১/০ (৬ ওভার) ওয়ার্নার ২০*, হ্যারিস ১* এবং ১ম ইনিংস- অস্ট্রেলিয়াঃ ৩৬৯/১০ (১১৫.২ ওভার) লাবুসেন ১০৮, পেইন ৫০, ওয়েড ৪৮, গ্রিন ৪৭, স্মিথ ৩৬, লায়ন ২২ ; নটরাজন ৩/৭৮, সুন্দর ৩/৮৯, শার্দুল ৩/৯৪। ১ম ইনিংস- ভারতঃ ৩৩৪/১০ (১১১.৪ ওভার) শার্দুল ৬৭, সুন্দর ৬২, রোহিত ৪৪, ; হ্যাজেলউড ৫/৫৪, স্টার্ক ২/৮৮।