ফুটবল > আন্তর্জাতিক ফুটবল

লাতিন আমেরিকার দশক সেরা একাদশে ব্রাজিলিয়ানদের জয়জয়কার

নিউজ ডেস্ক

২৯ জানুয়ারী ২০২১, সকাল ৬:১১ সময়

[ images-2021-01-29t120654-146 ]
ফুটবলের দেশ ব্রাজিল, বলা হয়ে থাকে বিশ্বফুটবলে সবচেয়ে বেশি খেলোয়াড় রপ্তানি করে থাকে লাতিন আমেরিকার দেশটি। গত বছর এক গবেষণা প্রতিষ্ঠানের জরিপে দেখা গেছে, বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বিভিন্ন লীগে সর্বাধিক তেরশোর বেশি ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার খেলছে। গেল দশকে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ব্রাজিল আহামরি বেশি সুবিধা করতে না পারলেও ব্রাজিলিয়ান খেলোয়াড়রা নিজেদের ক্লাবের হয়ে ছিলেন দারুণ ছন্দে। বিশ্বের বড় বড় লীগে বড় সব ক্লাবগুলোয় ছিল ব্রাজিলিয়ান ফুটবলারদের আধিপত্য। ফলে গেল দশকে লাতিন আমেরিকার সেরা একাদশেও পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের ছড়াছড়ি। ফুটবল ও ফুটবলারদের নিয়ে গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইএফএফএইচের বানানো গেল দশকের সেরা একাদশেও দেখা গেল ব্রাজিলিয়ান ফুটবলারদের আধিপত্য। প্রতিষ্ঠানটির ২০১১ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ আমেরিকার সেরা একাদশে সর্বাধিক ৬ জন ব্রাজিলিয়ান ফুটবলারের জায়গা হয়েছে। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনা থেকে রয়েছে ৪ জন। ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা ব্যতীত একাদশে জায়গা পাওয়া একমাত্র ফুটবলার পেরুর পাওলো গুয়েইরো। আইএফএফএইচের মতে, গেল দশকে লাতিন আমেরিকার সেরা গোলরক্ষক ছিলেন ব্রাজিলিয়ান জুলিও সিজার। রক্ষণভাগে সেরা ছিলেন ব্রাজিলের তিন ফুটবলার দানি আলভেজ, থিয়াগো সিলভা, মার্সেলো এবং আর্জেন্টাইন হ্যাভিয়ের ম্যাশ্চেরানো। ২০১১ থেকে ২০২০ সাল এই সময়ে গোলরক্ষক ও রক্ষণভাগে ব্রাজিলের একচ্ছত্র আধিপত্য থাকলেও মধ্যমাঠে সেরা ছিল দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। এই পজিশনে আর্জেন্টিনার হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছে দুজন ফুটবলার লিওনেল মেসি ও আনহেল ডি মারিয়া। আর একাদশে ব্রাজিলের একমাত্র প্রতিনিধি ক্যাসিমেরো। আক্রমণভাগে রয়েছে তিন দেশের তিনজন ফুটবলার। এই পজিশনে ব্রাজিলের নেইমার, আর্জেন্টিনার সার্জিও আগুয়েরো ছাড়াও পেরুর একমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে আছে স্ট্রাইকার পাওলো গুয়েইরো। তবে মজার বিষয়, একাদশে জায়গা হয়নি টানা দুবার কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন চিলির কোন ফুটবলারের। ২০১১ সালের কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ের এডিনসন কাভানি ও লুইস সুয়ারেজের মত কিংবদন্তী ফুটবলাররাও এই একাদশের বাহিরে রয়েছে। • IFFHS লাতিন আমেরিকার দশকসেরা একাদশঃ জুলিও সিজার; দানি আলভেজ, থিয়াগো সিলভা, হ্যাভিয়ের ম্যাশ্চেরানো, মার্সেলো; ক্যাসিমেরো, আনহেল ডি মারিয়া, লিওনেল মেসি; নেইমার জুনিয়র, সার্জিও আগুয়েরো, পাওলো গুয়েরো।