ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

দুর্দান্ত অভিষেকেও আক্ষেপ আকিল হোসেনের

নিউজ ডেস্ক

২১ জানুয়ারী ২০২১, সকাল ৫:২২ সময়

[ _f759125 ]
বাংলাদেশের কন্ডিশনে স্পিন বোলিংটাই যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে সেটা অজানা ছিল না ওয়েস্ট ইন্ডিজের, পেস নির্ভর দলটি সেভাবেই প্রস্তুতি নিয়ে এসেছিলো। তবে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ছিটকে যায় লেগ-স্পিনার হেইডেন ওয়ালশ, মাঠে নামার আগেই তাই ধাক্কা খায় ক্যারিবিয়ানরা। হেইডেন ওয়ালশের অনাকাঙ্ক্ষিত ভাবে ছিটকে যাওয়ার পরে আকিল হোসেনেই আশা দেখেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল, গতকাল ওয়ানডে অভিষেকে সেই আশার প্রতিফলন ভালোই দেখিয়েছেন বাঁহাতি এই স্পিনার। দুর্দান্ত বোলিং করে নিজের আগমনী বার্তা দিয়ে রাখলেন, তবে নিজে ভালো করলেও সঙ্গী হয়েছে দলের বড় পরাজয়। নিজে দারুণ বোলিং করেও দলের পরাজয়ে আক্ষেপে পুড়ছেন আকিল হোসেন, তবে একই সাথে বাস্তবতাও মেনে নিচ্ছেন ক্যারিবিয়ান এই স্পিনার। তার মতে, বড় রান না হলে বোলারদের কিছুই করার থাকে না। সাকিবের স্পিন ঘূর্ণিতে মাত্র ১২২ রানেই গুটিয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল, এই অল্প পুঁজি নিয়েও বাংলাদেশকে স্বস্তিতে থাকতে দেয়নি ক্যারিবিয়ানরা। উল্লেখ করে বললে আকিল হোসেন, ১০ ওভারে ১ মেইডেনে মাত্র ২৬ রান খরচায় তুলে নেন ৩ উইকেট। যা ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে কোন স্পিনারের অভিষেকে সেরা বোলিং ফিগার। নিজের পারফর্মেন্সে খুশি হলেও দলের হার নিয়ে আক্ষেপ আছে আকিল হোসেনের কণ্ঠে। তিনি বলেন, "এটা (অভিষেকে আলো ছড়ানো) ভালো অভিজ্ঞতা, আমরা আমাদের সর্বোচ্চটা করেছি। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক ভাবে ফল পাইনি। আশা করি, পরের ম্যাচে দারুণভাবে ফিরতে পারবো।" সর্বোচ্চ চেষ্টার কথা বলার পাশাপাশি বাস্তবতাও মনে করিয়ে দিয়েছেন আকিল হোসেন। অভিষিক্ত এই স্পিনার বলেন, "আমার মনে হয়, আমাদের বড় রান দরকার। আমরা ভালো বল করেছি, কিন্তু বড় রান হলে বোলারদের কিছু করার থাকে। আশা করি, পরের ম্যাচে তা হবে।" আগামীকাল মিরপুরে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে, সিরিজের শেষ ওয়ানডে ২৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে চট্টগ্রামে।