ফুটবল > বাংলাদেশ ফুটবল

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের কাঠগড়ায় আরামবাগ ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন

নিউজ ডেস্ক

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১, দুপুর ৩:৫ সময়

[ fed-cup-2020-arambagh-vs-brothers-13 ]
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবলে পাঁচটি ম্যাচে "পাতানোর" অভিযোগ এনে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ও ব্রাদার্স ইউনিয়নের কাছে ব্যাখা চেয়ে চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। উক্ত পাঁচটি ম্যাচ হলোঃ ১৯ জানুয়ারি ব্রাদার্স ইউনিয়ন বনাম আবাহনী লিমিটেড ঢাকা, ২৩ জানুয়ারি বসুন্ধরা কিংস বনাম ব্রাদার্স ইউনিয়ন, ১৭ জানুয়ারি আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ বনাম মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব, ৯ ফেব্রুয়ারি শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র বনাম আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ এবং ১৩ ফেব্রুয়ারী আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ বনাম আবাহনী লিমিটেড ঢাকা। দুই ক্লাবের কাছেই ব্যাখ্যা চেয়ে গতকাল ( শুক্রবার) চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক জনাব আবু নাঈম সোহাগ। আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের সহ-সভাপতি এজাজ মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর জানিয়েছেন,
"আমরা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন থেকে চিঠি পেয়েছি, তারা আমাদের অভিযুক্ত ম্যাচ গুলো নিয়ে পূর্ণাঙ্গ ব্যাখ্যা চেয়েছে।"
বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ এই পাতানো ম্যাচ নিয়ে আরো জানিয়েছেন,
"আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ও ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে চলতি প্রিমিয়ার লীগে পাতানো ম্যাচ ও অনলাইন বিটিংয়ের কারণে ক্লাব দুটির কাছে কিছু ব্যাখ্যা চেয়েছি এবং বেশ কিছু দিন ধরেই আমরা এ বিষয়ে কাজ করছি। একটা পর্যায়ে আমাদের যে ফিক্সড ম্যাচ ডিটেকশন কমিটি আছে তারা এটা নিয়ে কাজ করবে। ঠিক এই মুহূর্তে আমরা আরামবাগের তিনটি ও ব্রাদার্স ইউনিয়নের দুটি সহ মোট ৫ টি ম্যাচ নিয়ে কাজ করছি। ফিফা ও এএফসি পাতানো ম্যাচ নিয়ে যে নিয়ম গুলো অনুসরণ করে বাফুফেও একই নিয়ম অনুসরণ করবে এবং এই ব্যাপারে বাফুফে জিরো টলারেন্স থাকবে। আমাদের অবস্থান একদম পরিস্কার কেননা ম্যাচের ইন্ট্রিগেটি বা সৌন্দর্য রক্ষার জন্য বাফুফে এই ম্যাচ পাতানো নিয়ে সব সময় কমব্যাড করে এসেছে এবং এই বিষয় নিয়ে বাফুফে সুনির্দিষ্ট অবস্থানের মাধ্যমে খুব স্ট্রেট ফরোয়ার্ড ভাবে কাজ করবে।"
চলতি লীগে পয়েন্ট টেবিলের শেষ দুই দল আরামবাগ ও ব্রাদার্স ইউনিয়ন। আট ম্যাচে সাত হার ও এ ড্র'তে এক পয়েন্ট নিয়ে ব্রাদার্স ইউনিয়ন বারো ও নয় ম্যাচে আট হার ও এক ড্র'তে এক পয়েন্ট নিয়ে তলানীতে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ।