অন্যান্য > রেসিং

বাংলাদেশি রেসার অভীককে নিয়ে অবাক বিশ্ব

নিউজ ডেস্ক

১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১, সকাল ৮:২৫ সময়

[ daily-sun-2019-06-30-20 ]
ছবিঃ ডেইলি সান
রেসিং ট্র্যকে বাংলাদেশের গতির ঝড় তোলার সূচনা দীর্ধ সময় পূর্বে। কিন্তু ছিল না বলার মত কোন সাফল্য। বাংলাদেশের রেসিং ইতিহাসে প্রথম সাফল্যটা এসেছে বাংলাদেশি রেসার অভীকের হাত ধরে। বাংলাদেশকে জিতিয়েছেন মালয়েশিয়া ফর্মুলা ওয়ান ট্র্যাক সেপাং, এর পর জিতেছেন প্রো চ্যাম্পিয়নশিপের রাউন্ড থ্রি। অথচ এত এত সাফল্য পাওয়া আর বাংলাদেশ থেকে উঠে আসার পথটা মসৃণ ছিল না অভীকের জন্য। বাংলাদেশে নেই কোন রেসিং ট্র্যাক। প্রশিক্ষণ নিয়েছেন বিদেশে। যে দেশে কোন রেসিং ট্র্যাকই নেই, অথচ সেই দেশের এজকজনই কিনা চ্যাম্পিয়ন! এটা ভেবে অবাক হয় বিশ্বের নামি অনেক রেসাররা। বাংলাদেশি একটি টিভি চ্যানেলকে অভীক জানিয়েছেন সেইসব কথা। অভীক বলেন, "আমার সর্বশেষ রেসটা খুবই কঠিন ছিল। সেকেন্ড যে কোয়ালিফাই করেছিল তার আমার সময়ের ব্যবধান ছিল এক সেকেন্ডেরও কম। অন্যান্য দেশের রেসাররা আমাকে দেখে অবাক হয়। বাংলাদেশের মত রেস ট্র্যাকহীন দেশ থেকে এসে একজন  রেস জিতছে, এটা কিভাবে সম্ভব?" রেস জয়ের পিছনে অবশ্য অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করেছে অভীকের বন্ধু- বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। প্রো চ্যাম্পিয়নশিপের রাউন্ড থ্রি জিতে তি বন্ধু তামিমকে উতসর্গ করেছেন পুরষ্কারটি। তামিমও ভিষণ খুশি তাকে উতসর্গ করায়। [caption id="attachment_5869" align="alignnone" width="945"] রেসার অভীকের সাথে তামিম ইকবাল। ছবিঃ ঢাকা ট্রিবিউন।[/caption] অভীক বলেন, "আমি যখন রেস করতাম শুরুর দিকের কথা। ২০১৭ সালে আন্তর্জাতিকভাবে রেস করতাম তখন তো কিছু জিততাম না। তখন বন্ধু তামিম ইকবাল বলতো, তুমি তো শুধু শুধু রেস করতেছো কিছু জিততেছো না। এই রেস ইউনটা তাকে উৎসর্গ করেছি।" বাংলাদেশি রেসারদের জন্য কোনও পৃষ্ঠপোষকতা নেই সরকারের। নেই রেসিং ট্র্যাক। ফলে প্লে স্টেশনের গেম আর সিমুলেটরই তার ভরসা। অভিক আশা প্রকাশ করেছেন স্পন্সরদের এগিয়ে আসার জন্য। অভিক আনোয়ার বলেন, "পুরো একটা সিজন করতে বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৩৫ থেকে ৪০ লাখ টাকা লাগে। কিছু স্পন্সর থেকে আসে তবুও ১৫ থেকে ২০ লাখ টাকা নিজ পকেট থেকে দিতে হয়। স্বাভাবিকভাবে কেউ যখন ১৫ থেকে ২০ লাখ টাকা নিজের পকেট থেকে দিবে তখন একজন চিন্তা করতে পারে এতো টাকা দিয়ে আমি রেস কেন করবো, এই টাকা দিয়ে ভাল কিছু কিনতে পারি। এজন্য সরকারকে উচিৎ এই জায়গায় একটু নজর দেয়া। পৃষ্ঠপোষকতা পেলে আমি লেমান্স চ্যাম্পিয়নশিপও জেতার চেষ্টা করবো।" এই মাসেই আরও একটি রেসিং চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ গ্রহন করবেন অভীক।