বাফুফেকে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছে ফিফা

প্রকাশ: বুধবার, ১০ মার্চ, ২০২১ | ২১:৫৫:২৯

মোঃ রানা শেখ

কত প্রশ্ন, কত আন্দোলন বা কত সমালোচনার পরেও চতুর্থ বারের মত বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতির মসনদে বসেছেন কাজী মোঃ সালাউদ্দিন। দেশের গণ্ডি পেড়িয়ে বিদেশেও বাফুফের এই নির্বাচনের হাওয়া লেগেছিল। যারই প্রেক্ষিতে বাফুফের নির্বাচন নিয়ে কিছুটা হলেও মাথা ঘামিয়েছে বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফা। বাফুফের সর্বশেষ নির্বাচনে এত পরিমাণে কাউন্সিলর কেনো ছিল সেটা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছে ফিফা।

গত নির্বাচনে সর্বমোট ১৩৯ জন কাউন্সিলর নির্বাচনে ভোট প্রদান করেন। নির্বাচনের পরেই ফিফা প্রশ্ন তুললেও বাফুফে সভাপতি কাজী মোঃ সালাউদ্দিন তা আজ (বুধবার) সবার সামনে তা প্রকাশ করলেন।

বাফুফের এই ১৩৯ জন কাউন্সিলরের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে ফুটবলের আন্তর্জাতিক অভিভাবক সংস্থা ফিফা। তাদের প্রশ্ন, বাফুফেতে এত কাউন্সিলর কেন? এছাড়াও বাফুফের কাউন্সিলর হিসেবে থাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং শিক্ষাবোর্ডের কাউন্সিলরশিপ নিয়েও প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছে ফিফা। এর পাশাপাশি বাফুফের স্ট্যান্ডিং কমিটি নিয়েও ফিফা প্রশ্ন করে বলেছে, এত গুলো স্ট্যান্ডিং কমিটি কেন? কমিটির সংখ্যা কমিয়ে আনারও পরামর্শ দিয়েছে ফুটবলের এই সর্বোচ্চ সংস্থা।

এছাড়াও ফিফা প্রশ্ন করেছে যারা নির্বাচনের সময় অনেক সক্রিয় থাকে কিন্তু মাঠের ফুটবলের প্রতি আগ্রহ নেই তাদের পিছনে কেনও টাকা খরচ করা হয়? কি কারণে?

ফিফা আরও বলেছে যারা ফুটবলের সাথে সম্পৃক্ত নয়, তাদের কাউন্সিলর হিসেবে না রাখতে। যেসব জেলা লিগ আয়োজন করবে না, তাদেরও কাউন্সিলর না রাখার পরামর্শ দিয়েছে ফিফা।

ফিফার এই চিঠি হাতে পাবার পরেই জেলা লীগ কমিটির সদস্যদের নিয়ে আলোচনায় বসেন বাফুফে সভাপতি ও জেলা লীগ কমিটির চেয়ারম্যান জনাব কাজী মোঃ সালাউদ্দিন। যেখানে জেলা গুলোর বর্তমান অবস্থান সম্পর্কে আলোচনা হয়। আলোচনায় দেখা যায় অধিকাংশ জেলাই শুধু মাত্র নির্বাচনের সয়য় বেশি সক্রিয় ছিল। এ বিষয়ে কাজী সালাউদ্দিন বলেন,

“নির্বাচনের সময় জেলা ফুটবলের কর্মকর্তারা যেভাবে সক্রিয় ছিল, মাঠের ফুটবলেও তারা যদি সক্রিয় থাকতো তাহলেই ভাল হতো। নির্বাচন শেষ হলেই এদের কাউকে পাওয়া যায় না। মাঠে ফুটবল করতে বলেন তখন বিভিন্ন ছুঁতা দেখাতে থাকবে।”

করোনার আগেই প্রতিটা জেলাকে অর্থ বরাদ্দ দিয়ে জেলা লীগ চালুর নির্দেশ দিয়েছিলেন কাজী মোঃ সালাউদ্দিন। কিন্তু এখন পর্যন্ত মাত্র ১৩ টি জেলা লীগ শেষ করতে পেরেছে। এছাড়া আরও তিন জেলার লীগ চলমান রয়েছে। কিন্তু বাকি জেলা গুলো কেন লীগ চলমান রাখতে পারছে না এই প্রশ্নের উত্তর চান কাজী সালাউদ্দিন।