ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

লেইপজিগকে হারিয়ে শেষ আটে লিভারপুল

নিউজ ডেস্ক

১১ মার্চ ২০২১, সকাল ৬:৩৯ সময়

'অ্যানফিল্ড হল মৃত্যুপুরী' - কথাটি বলেছিলেন স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন। ইউরোপীয়ান ক্লাব ফুটবলে লিভারপুলের ঘরের মাঠের সুখ্যাতি রয়েছে বিশ্বজুড়ে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে টানা ৬৮ ম্যাচ অপরাজিত থেকে তাই প্রমাণ করে আসছিল অলরেডরা। তবে এবার সেই খ্যাতির ভাটা পরেছে। ইংল্যান্ডের শীর্ষ লীগে ঘরের মাঠে সর্বশেষ টানা ৬ হারে রীতিমতো লিগে খাদের কিনারায় ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। অ্যানফিল্ডে এবার লিভারপুল যেন বড্ড অচেনা! ঘরের মাঠে টানা বিধ্বস্ত হওয়া দলটিই ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের আসরে অ্যানফিল্ডের বাহিরে গিয়ে জার্মান ক্লাব লেইপজিগের বিপক্ষে ব্যাক টু ব্যাক দু সহজ জয়ে শেষ আট নিশ্চিত করেছে। বুদাপেস্টের পুসকাস অ্যারেনায় বুধবার রাতে শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে ২-০ ব্যবধানে জিতেছে ইংলিশ চ্যাম্পিয়নরা। দুই লেগ মিলিয়ে ৪-০ গোলে এগিয়ে প্রতিযোগিতার শেষ আটে জায়গা করে নিল ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। লিভারপুলের হয়ে দু গোল করেন প্রথম লেগের দু গোলদাতা সাদিও মানে ও মোহাম্মদ সালাহ। যদিও ম্যাচটি হওয়ার কথা ছিল লিভারপুলের মাঠ অ্যানফিল্ডেই। কিন্তু কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে ভ্রমণের ওপর আরোপিত বিধিনিষেধের কারণে বুদাপেস্টে সরিয়ে নেওয়া হয়। একই কারণে প্রথম লেগের ম্যাচও হয়েছিল এই মাঠে। অবশ্য এতে লাভ হয়েছে অলরেডদেরই। ঘরের মাঠে টানা ব্যর্থতা এড়িয়ে যেতে পারলো ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। এই জয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে জার্মান ক্লাবগুলোর সঙ্গে সর্বশেষ ১২ ম্যাচেই অপরাজিত থাকলো লিভারপুল। ২০০২ সালে বায়ার লেভারকুসেনের বিপক্ষে হারার পর ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের আসরে জার্মান ক্লাবগুলোর বিপক্ষে আর কোন ম্যাচ হারেনি গ্রেট ব্রিটেনের ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। এই সময়ে ১২ ম্যাচের ৯টি জয় পেয়েছে ৬ বারের ইউরোপসেরারা। অন্যদিকে মাত্র দ্বিতীয়বার নিজদের চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে দুই লেগই হারের দেখা পেল লেইপজিগ। কয়েকদিন আগে লিভারপুল কোচ বলেছিলেন প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা হাতহাড়া হওয়ায় দল এখন চ্যাম্পিয়নস লিগের দিকে বেশি মনোযোগী হতে চায়। লেইপজিগের বিপক্ষে জয়ের পরও একই কথা শোনালেন ইয়ুর্গেন ক্লপ। বলেছেন, "এটি একটি কঠিন প্রতিযোগিতা। জয়টাই আমাদের লক্ষ্য ছিল। আর ছেলেরা মাঠে তাই করেছে।" তিনি আরও বলেছেন, "আমাদের ড্রয়ের জন্য অপেক্ষা করতে হবে। তবে যেকোন দলের বিপক্ষে খেলতে আমরা প্রস্তুত। কঠিন হলেও আমাদের জয়ের জন্যই খেলতে হবে।"