প্রত্যাশাকে চাপ নয়, আশীর্বাদ হিসেবেই দেখছেন মুশফিক

প্রকাশ: শনিবার, ২৯ মে, ২০২১ | ০৮:৩৫:৫৭

ডেস্ক রিপোর্ট

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে সেঞ্চুরি দারুণ এক সেঞ্চুরির পর মুশফিকুর রহিম দ্বিতীয় ওয়ানডেতে সেঞ্চুরি দারুণ এক সেঞ্চুরির পর মুশফিকুর রহিম (ছবি - বিসিবি)

গত কয়েক বছর ধরেই ব্যাট হাতে বাংলাদেশকে নির্ভরতা দিয়ে যাচ্ছেন মুশফিকুর রহিম, দলের বিপদের সবচেয়ে বড় ভরসাও তিনিই। পরিশ্রম ও ধারাবাহিকতা দিয়ে সমর্থকদের কাছে আলাদা একটা প্রত্যাশার জায়গা তৈরি করে ফেলেছেন। সেই প্রত্যাশাকে চাপ নয়, আশীর্বাদ হিসেবেই দেখছেন মি. ডিপেন্ডেবল খ্যাতি পাওয়া মুশফিক।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথমবারের মতো দ্বিপাক্ষিক সিরিজ জয়ের নায়ক মুশফিকুর রহিম, প্রথম দুই ম্যাচেই দলকে খাদের কিনারা থেকে টেনে তুলে এনে দিয়েছেন লড়াইয়ের পুঁজি। শেষ ম্যাচে ত্রাণকর্তা হয়ে উঠতে পারেননি, আউট হয়েছেন ২৮ রান করে; জয় পায়নি বাংলাদেশও।

শেষ ম্যাচে ভালো করতে না পারলেও প্রথম দুই ম্যাচের পারফর্মেন্সই সিরিজ সেরার পুরস্কার এনে দিয়েছে মুশফিককে। ৩ ম্যাচে ৭৯ গড়ে ১টি করে সেঞ্চুরি ও ফিফটিতে ২৩৭ রান করেছেন, সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো চাপের মুখেই সবগুলো রান এসেছে মুশফিকের ব্যাট থেকে।

দুর্দান্ত পারফর্মেন্সে সিরিজ সেরার পুরস্কার জিতেছেন মুশফিকুর রহিম

সিরিজ সেরার পুরস্কার জেতার পর মুশফিক জানিয়েছেন, তার কাছে দলের জন্য অবদান রাখতে পারাটাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন, “১৫ বছরের বেশি সময় ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার পর একজন ক্রিকেটারের দেশের জন্য যত সম্ভব বেশি অবদান রাখা উচিত। প্রতি ম্যাচে আমি সেই চেষ্টাই করি।”

সাম্প্রতিক বছর গুলো প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা মানেই চওড়া মুশফিকুর রহিমের ব্যাট, দলটির বিপক্ষে সর্বশেষ ৬ ওয়ানডেতে ৮২.৪০ গড়ে করেছেন ৪১২ রান। ৪ বারই পেরিয়েছে ৫০ রানের গণ্ডি, তবে মুশফিকের কাছে শ্রীলঙ্কা মোটেও কোন সহজ প্রতিপক্ষ নয়।

তিনি বলেন, “হয়তো আমি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ভালো খেলেছি। তবে প্রতিপক্ষ হিসেবে ওরা সহজ কোন দল নয়। ওরা কখনও হাল ছাড়ে না এবং আমাদের বিপক্ষে সব সময় ভালো খেলে। এই সিরিজে যেভাবে ব্যাট করেছি তাতে আমি খুশি। পরে যখনই সুযোগ পাব আশা করি, তখনও যেন অবদান রাখতে পারি।”

মুশফিকুর রহিম ব্যাট করতে নামলে রান করবেনই, এমনটাই ধরে নেন সমর্থকেরা। তার ধারাবাহিক পারফর্মেন্স আলাদা একটা প্রত্যাশার জায়গা তৈরি করে ফেলেছে, তবে এই প্রত্যাশাই ভালো খেলতে সাহায্য করে বলে জানিয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

তিনি আরও বলেন, “আমি খুব উপভোগ করি। যখনই আমার ওপর কোন প্রত্যাশা বা চাপ থাকে আমি সেটার সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে শান্ত থাকার চেষ্টা করি। আমি জানি, প্রতিপক্ষও হয়তো আমাকে বড় খেলোয়াড় ভাবে। এটা আমাকে ভালো খেলতে বাড়তি সুবিধা দেয়, আমি এই চাপ উপভোগ করি।”