হোয়াইটওয়াশ করতে বাংলাদেশকে করতে হবে ২৮৭ রান

প্রকাশ: শুক্রবার, ২৮ মে, ২০২১ | ১৬:৫৫:৫৯

ওয়াহেদ মুরাদ

হোয়াইটওয়াশ করতে বাংলাদেশকে করতে হবে ২৮৭ রান ছবিঃ বিসিবি

মিরপুরে সবথেকে বেশি রান চেজ করার রেকর্ড ৩৩০ রানের। পাকিস্তানের বিপক্ষে ভারত চেজ করেছিল। বাংলাদেশের পক্ষে সবথেকে বেশি রান চেজ করার রেকর্ড ২৯৩ রানের। ২০১২ সালের এশিয়া কাপে ভারতের বিপক্ষে ২৯৩ চেজ করেছিল বাংলাদেশ। তবে আশা জাগিয়েও বাংলাদেশকে সেই পরীক্ষাতে ফেলতে পারেনি শ্রীলংকা। ২৮৬ রান করতে পারে শেষ পর্যন্ত।

টস জিতে ব্যাটিং করবার যে ফায়দা বাংলাদেশ দুই ওয়ানডে ম্যাচে নিতে পারেনি সেটি একদিনে টস জিতে করে দেখালো সফরকারী দল শ্রীলংকা। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে আজ শুরু থেকেই বোলারদের চাপে রাখেন দুই ওপেনার কুশাল পেরেরা ও গুনাথিলাকা। সেখান থেকে কোনমতে টাইগারদের খেলায ফিরিয়ে আনেন তাসকিন আহমেদ।

একই ওভারে দুই উইকেট নিয়ে রানের গতিতে লাগাম আনেন তিনি। এরপর সাকিবের বলে কুশাল পেরেরা দুইবার জীবন পান। পরের ২৫তম ওভারে কুশাল মেন্ডিসকে আউট করেন তাসকিন, ক্যাচ নেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল খান। ৩১ ওভারে ১৭০ রানে পৌছে যায় টিম শ্রীলংকা।

অধিনায়ক কুশাল পেরেরা ৯৯ রানে তৃতীয়বারের মত জীবন পান। এরপরের বলেই সেঞ্চুরি করেন কুশাল পেরেরা। ৩৪ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৮৭ রান করে শ্রীলংকা৷ প্রথম উইকেটে ৬৮ বলে ৮২ রানের পার্টনারশিপ এর পর চতুর্থ উইকেটে ৩৫ তম ওভারে ৫৬ বলে ৪২ রানের জুটিতে ব্যাট করছেন সিলভা ও পেরেরা৷

এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে ৪৩ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ২৩৩ রানে থামে শ্রীলংকা। ততক্ষণে প্যাভিলিয়নে কুশাল পেরেরা৷ উইকেটে সেট ব্যাটসম্যান সিলভাকে নিয়ে বড় স্কোরের আশায় ওয়াহিন্দু হাসারাঙ্গা৷ ৪৫ তম ওভারে সেই রান গিয়ে ঠেকে ২৪৩ রানে।

শেষ পাঁচ ওভারে দ্য ফিজের ওভার বাকি ২টি। শরিফুলের বাকি ৩টি। ক্যাপ্টেন তামিম ইকবাল খান মুস্তাফিজকেই আনলেন। প্রথম বলে সিলভা’র ফিরতি শট ঠেকাতে গিয়ে আঙ্গুলে চোট পান ফিজ। কিন্তু ফিজিওর সহযোগিতায় কিছুসময় পরই বোলিংয়ে ফিরেন ফিজ। ৫ রান দেন তিনি। পরের ওভারে বোলিংয়ে আসেন তাসকিন আহমেদ।

৪৭তম ওভারে তাসকিন দেন মাত্র ৭ রান। ৪৭ ওভার শেষে শ্রীলংকার রান হয় ২৫৯ রান। নিজের শেষ ওভারে বল করতে আসেন। নিজের শেষ ওভারে মাত্র ৭ রান দেন মুস্তাফিজুর রহমান। ৪৯তম ওভারে অধিনায়ক আনেন আবারও তাসকিনকেই। নিজের চতুর্থ উইকেট নেন এই ওভারেই। দেন মাত্র ৭ রান। ৪৯ ওভারে ২৬৮ রানে পৌছাতে পারে লংকানরা। কিন্তু শেষ ওভারে শরিফুল দেন ১৮ রান। ২৮৬ রান করে শ্রীলংকা।

বাংলাদেশকে ৫.৭৩ রানরেটে করতে হবে ২৮৭ রান।

স্কোরকার্ডঃ

শ্রীলংকাঃ ২৮৬/৬, ৫০ ওভার; কুশাল পেরেরা – ১২০(১২২), ধনঞ্জয় ডি সিলভা – ৫৫(৭০), গুনাথিলাকা- ৩৯(৩৩), কুশাল মেন্ডিস – ২২(৪৬),

তাসকিনঃ ৯-০-৪৬-৪, শরিফুল ইসলামঃ ৮-০-৫৬-১