ইতিহাস গড়লো ইসলামাবাদ-পেশোয়ার ম্যাচ

প্রকাশ: শুক্রবার, ১৮ জুন, ২০২১ | ০৭:৫৪:৫২

Nazmussakib Rumman

ইতিহাস গড়লো ইসলামাবাদ-পেশোয়ার ম্যাচ ছবিঃ সংগৃহীত

পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) সর্বোচ্চ দলীয় রানের রেকর্ড ভেঙে দিল ইসলামাবাদ ইউনাইটেড। পেশোয়ার জালমির বিরুদ্ধে এদিন তারা করেছে ২৪৭ রান। যদিও এতদিন যাবত সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড তাদের দখলেই ছিল। এর আগে ২০১৯ সালে ২৩৮ রান করেছিল। এবার নিজেদের করা রেকর্ড তাঁরা নিজেরাই ভেঙে দিল।

বৃহস্পতিবার শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলতে থাকেন ইসলামাবাদের অধিনায়ক উসমান খাজা। ৫৬ বলে ১৩টি চার এবং ৩টি ছয়ে খেলেন ১০৫ রানের ইনিংস। খাজার সাথে গোড়াপত্তন করতে নেমে তাঁকে যোগ্য সঙ্গ দেন কলিন মুনরো।

২৮ বলে ৪৮ রানের বিধ্বংসী ইনিং খেলেন তিনি। এ ছাড়াও ধ্বংসাত্মক মেজাজে আসিফ আলি ১৪ বলে ৪৩ রান এবং ২২ বলে ৪৬ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলেন ক্যারিবিয়ান ব্র্যান্ডন কিং।

জবাবে কামরান আকমল ৩২ বলে ৫৩, শোয়েব মালিক ৩৬ বলে ৬৮, শেরফান রাদারফোর্ড ৮ বলে ২৯ রানে ভর করে লক্ষ্যের খুব কাছে গেলেও শেষ রক্ষা হয়নি। ৬ উইকেটে পেশোয়ারের ইনিংস থামে ২৩২ রানে। ফলে ১৫ রানে জয় পায় ইসলামাবাদ।

এই ম্যাচে দুই ইনিংসে এসেছে ৪৭৯ রান। যা কিনা স্বীকৃত টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে ৬ষ্ঠ সর্বোচ্চ রানের ম্যাচ। এবং পিএসএলের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের ম্যাচ। আর আরব আমিরাতের মাটিতেও এটি যেকোনো স্বীকৃত টি-টোয়েন্টি ম্যাচে সর্বোচ্চ রান অ্যাগরেগেট করার রেকর্ড।

স্বীকৃত টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের ৬ টি ম্যাচঃ (রান- দল- সাল)

৪৯৭ – সেন্ট্রাল ডিস্ট্রক্ট বনাম ওটাগো, ২০১৬
৪৯৩ – জ্যামাইকা তালাওয়াশ বনাম ত্রিনিবাগো নাইট রাইডার্স, ২০১৯
৪৮৯ – ভারত বনাম উইন্ডিজ, ২০১৬
৪৮৮ – নিউজিল্যান্ড বনাম অস্ট্রেলিয়া, ২০১৮
৪৮৩ জ্যামাইকা তালাওয়াশ বনাম সে.নেভিস অ্যান্ড প্যাট্রিওটস, ২০১৯
৪৭৯ – ইসলামাবাদ ইউনাইটেড বনাম পেশোয়ার জালমি, ২০২১।

রান তাড়া করতে নেমে হারতে হয়েছে, পেশোয়ারের করা এই ম্যাচে ২৩২ রানের ইনিংসটিও ছিল তৃতীয় সর্বোচ্চ হারের ইনিংস। রান তাড়ায় সবচেয়ে বেশি রান করার রেকর্ডটি রয়েছে ওটাগো ভোল্টের দখলে। ২০১৬ সালে সেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্টের বিরুদ্ধে ২৪৮ করেছিল তাঁরা। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেকর্ডটি ভারতের দখলে। একই বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজের দেয়া ২৪৬ রানের লক্ষ্যে ভারত করেছিল ২৪৪ রান।