কোপা আমেরিকা: ভোরে মেসির ‘প্রতিপক্ষ’ বন্ধু সুয়ারেজ

প্রকাশ: শুক্রবার, ১৮ জুন, ২০২১ | ১৯:০৭:১৩

ডেস্ক রিপোর্ট

কোপা আমেরিকা: ভোরে মেসির ‘প্রতিপক্ষ’ বন্ধু সুয়ারেজ ছবিঃ সংগৃহীত

সাম্প্রতিক সময়ে মেসি-সুয়ারেজ বন্ধুত্ব বেশ সুনাম কামিয়েছে৷ স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনায় ছয় বছর কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে খেলেছেন দুজন। মাঠের বন্ধুত্ব ছাপিয়ে গেছে মাঠের বাইরেও। আর্জেন্টাইন এবং উরুগুইয়ান পরিবারের মধ্যেও ছড়িয়েছে এই সম্পর্ক। দুই তারকার স্ত্রী-সন্তানরাও এখন আবেগের বন্ধনে জড়িয়েছেন। 

গেল মৌসুমের শুরুতেই চোখের জলে বুক ভাসিয়ে বার্সা ছেড়েছিলেন সুয়ারেজ। কোচ রোনাল্ড কোম্যানের চাপে পড়ে ন্যু-ক্যাম্প ছাড়তে হয় তারকা স্ট্রাইকারকে।

কাতালানদের ছেড়ে লুইস সুয়ারেজ যোগ দেন স্পেনে আরেক ক্লাব অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদে। উরুগুইয়ান এই তারকা বার্সেলোনার তাড়িয়ে দেওয়া ক্ষোভ ঝাড়েন বহু বছর পর দিয়েগো সিমেওনির দলকে লা লিগা শিরোপা জিতিয়ে। সেবার ন্যু ক্যাম্পে প্রিয় বন্ধু মেসির মুখোমুখি হয়েছিল সুয়ারেজ।

ছবিঃ ইন্টারনেট

এবার ক্লাব ফুটবল ছেড়ে জাতীয় দলের হয়েও দুই বন্ধু একে অপরের মুখোমুখি হচ্ছে। লাতিন আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্বে আসর কোপা আমেরিকায় গ্রুপপর্বে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মাঠে নামছে প্রতিযোগিতার সফলতম দুই দল আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ে। ব্রাজিলের ঐতিহাসিক মানে গ্যারিঞ্চা স্টোডয়ামে বাংলাদেশ সময় ভোর ছয়টায় লিওনেল মেসির প্রতিপক্ষ হবে লুইস সুয়ারেজ।

সময়টা মোটেও ভালো যাচ্ছে না আর্জেন্টিনার। দুর্দান্ত ফুটবল খেলে শুরুতে লিড নিয়েও কোন জয় পাচ্ছে না লিওনলে স্কোলানির দল। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে লাতিন আমেরিকা অঞ্চলে শেষ দুই রাউন্ড ড্র করার পর কোপা আমেরিকায়েও ড্রয়ের বৃত্তে বন্দি আলবিসেলেস্তেরা।

আসরের প্রথম ম্যাচে চিলির বিপক্ষে মেসি ম্যাজিকেও জয় পায়নি আকশী-নীলরা। তাই, দীর্ঘ আটাশ বছরের শিরোপা আক্ষেপ ঘুচাতে হলে খুব শীঘ্রই জয়ে ফেরার কোন বিকল্প নেই মেসিদের।

ছবিঃ টুইটার

অন্যদিকে খুব বেশি সুবিধাজনক অবস্থায় নেই প্রতিযোগিতার সর্বাধিক শিরোপাজয়ী উরুগুয়ের। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের নিজেদের শেষ দুই ম্যাচে লুইস সুয়ারেজরাও জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেনি।

নিজেদের সবশেষ তিন ম্যাচেই জয়হীন অস্কার তাবারেজের দল। তাই শিরোপা ২০১২ সালের পর পুনরুদ্ধার করতে আসরের প্রথম ম্যাচ জয় দিয়ে শুভসূচনা করতে চাইবে লুইস সুয়ারেজরা।

যদিও দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে বেশ এগিয়ে আছে আর্জেন্টিনা। দুবার করে বিশ্বকাপজয়ী দুই দলের ১৮৯ সাক্ষাতে আকাশী নীলদের জয় ৮৭ ম্যাচ, উরুগুয়ের জয় ৫৭ ম্যাচ। বাকি ৪৫টি ম্যাচ ড্র হয়েছে।

এই শতকে লাতিন আমেরিকা সেরা হওয়ার আসরে দুই দলের মধ্যে তিনবারের সাক্ষাতে মেসিদের জয় দুটি, লুইস সুয়ারেজদের একটি। দুই দলের সবশেষ আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে।

ছবিঃ টুইটার

দুই দলের জন্যই বেশ কঠিন। তবে এই ম্যাচে জয় দিয়ে চিলির বিপক্ষে পয়েন্ট হারানোর হতাশা কাটাতে চাইবে লিওনেল মেসিরা। অবশ্য ছাড় দিবে না সুয়ারেজরাও। বন্ধুত্ব ভুলে জয় দিয়ে এবারের আসরটি শুরু করতে চাইবে উরুগুইয়ান ফরোয়ার্ড। তাই বলা যায়, বেশ জমজমাট একটি ম্যাচ অপেক্ষা করছে ফুটবলপ্রেমিদের জন্য।