ঈদের শুভেচ্ছায় পগবা-ওজিল থেকে রিয়াল-বার্সা, সিটি, পিএসজি

প্রকাশ: বুধবার, ২১ জুলাই, ২০২১ | ১২:৫৪:০৪

ডেস্ক রিপোর্ট

ঈদের শুভেচ্ছায় পগবা-ওজিল থেকে রিয়াল-বার্সা, সিটি, পিএসজি

পবিত্র ঈদুল আজহা পালিত হচ্ছে গোটা বিশ্বে। ঈদের ছোঁয়া লেগেছে ইউরোপীয় ফুটবলেও। মুসলমানদের বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসবের এই দিনে ইউরোপের বড় ক্লাবগুলো মুসলিম সমর্থকদের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করতে ব্যস্ত। শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অনেক তারকা খেলোয়াড়ও।

ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী তারকা পল পগবা নিজের স্ত্রীর সাথে একটি ছবি টুইটারে পোষ্ট করে সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছে। ইউনাইটেড তারকা নিজের টুইটার পাতায় লিখেছেন, “ঈদ মোবারক, ভাই এবং বোনেরা।”

সাবেক আর্সেনাল তারকা মেসুত ওজিল ধর্মপ্রাণ হিসেবেই পরিচিত। বর্তমানে তুর্কি ক্লাবে খেলা এই খেলোয়াড় প্রায়ই মাঠেও ম্যাচ শুরুর আগে মোনাজাত করেন। সে রকমই একটি ছবি ব্যবহার করে ওজিল লিখেছেন, “আজকে যাঁরা ঈদ পালন করছেন, সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা।” লিভারপুল তারকা সাদিও মানেও টুইট করেছেন,”সবাইকে ঈদ মোবারক।”

শুধু খেলোয়াড়েরা নন, ক্লাবগুলোও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুভেচ্ছা জানাচ্ছে। রিয়াল মাদ্রিদ, এসি মিলান, বার্সেলোনা আরবিতে ঈদ মোবারক লেখা ছবি দিয়ে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের জানিয়েছে ঈদের শুভেচ্ছা।

শুধু খেলোয়াড়রাই নয়, সারাবিশ্বে মুসলিম সমর্থকদের ইদের শুভেচ্ছা জানিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, ম্যানচেস্টার সিটি ও পিএসজির মতো ক্লাবগুলোও। নিজেদের টুইটারে পাতায় বার্সেলোনা লিখেছে, “শুভ ঈদ উল আজহা। পুরো পৃথিবীতে ছড়িয়ে থাকা বার্সা ভক্তদেরকে জানাচ্ছি ঈদ মোবারক।” রিয়াল মাদ্রিদ ইদুল আযহার ছবি পোষ্ট করে সবাইকে ইদের শুভেচ্ছা জানিয়েছে।

পিছিয়ে নেই ইংলিশ চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি ও ফরাসি ক্লাব পিএসজিও। নিজেদের টুইটার পাতায় ক্লাবের তিন ফুটবলার রিয়াদ মাহরেজ, রুবেন দিয়াজ ও ফিল ফোডেনের ছবি পোষ্ট করে সিটিজেনরা লিখে,“পুরো পৃথিবীতে ছড়িয়ে থাকা সব মুসলমানদেরকে ঈদ উল আজহার শুভেচ্ছা।”

সবার চেয়ে একটু ভিন্নতা দেখা গিয়েছে পিএসজির ঈদ শুভেচ্ছা বার্তায়। এক ভিডিওবার্তার মাধ্যমে মুসলিম সমর্থকদের ঈদ উল আজহার শুভেচ্ছা জানা ক্লাবটি। যেখানে ছিলো সদ্য ক্লাবে যোগ দেওয়া তিন ফুটবলার জিয়ানলুইজি ডোনারুমা, আশরাফ হাকিমি ও সার্জিও রামোস। তিনজনই ইদ মুবারাক বলে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সবাইকে৷

চলতি মাসে দেশে হয়ে মহাদেশ সেরা হওয়ার লড়াইয়ে খেলার পর তারকা ফুটবলাররা এখন বিশ্রামে আছে। ক্লাবের প্রি সিজনে ফুটবলাররা ধীরেধীরে নিজেদের দলে ফেরা শুরু করছে। আগামী মাসেই শুরু হয়ে যাবে ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের নতুন আসর।