পুরোনো অভিযোগে মোহামেডানেও জায়গা হলো না রবিউলের

প্রকাশ: শনিবার, ১৭ জুলাই, ২০২১ | ২০:৩৩:৩৪

মোঃ রানা শেখ

পুরোনো অভিযোগে মোহামেডানেও জায়গা হলো না রবিউলের মোহামেডানে যোগ দেয়ার পরের মুহুর্ত। ছবিঃ সংগ্রহীত

বসুন্ধরা কিংসের পর এবার মোহামেডানেও জায়গা হল না এক সময়ের বাংলাদেশের নাম্বার টেনের। যাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখতো সারা বাংলাদেশ সেই রবিউল হাসান এখন জায়গা পাচ্ছেন না মোহামেডানেও। শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে।

চলমান সিজনের মধ্যবর্তী দলবদলে বসুন্ধরা কিংস থেকে ধারে মোহামেডানে যোগ দিয়ে নিজেকে গুছিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করার পাশাপাশি নিয়মিত অনুশীলনও করেছিলেন রবিউল। যার ফলে মিলেছিল ম্যাচ খেলার সুযোগ কিন্তু দিন যত গড়িয়েছে নিজের পুরোনো অভ্যাসে ফিরে গেছেন রবিউল। তার নামে গুরুতর সেই পুরোনো অভিযোগ এনেছে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের কর্তৃপক্ষ।

মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবে ফুটবল সম্পাদক আবু হাসান প্রিন্স বলেন, “শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণেই তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। আমরা এর আগেও তাকে কয়েকবার শৃঙ্খলা মানতে নোটিশ দিয়েছিলাম কিন্তু সে তা মানেনি। যে কারণে আমরা তাকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছি। আমাদের দলে শৃঙ্খলা মানে না এমন কোন খেলোয়াড়ের জায়গা নেই।”

বসুন্ধরা কিংস ছেড়ে মোহামেডানে এসে মাত্র তিন ম্যাচে সর্বসাকুল্য ৩৬ মিনিট খেলার সুযোগ পান রবিউল হাসান যদিও সব ম্যাচেই বদলি হিসেবে নেমেছিলেন তিনি।

২০১৮ সালে আরামবাগের স্বাধীনতা কাপ জয়ের অন্যতম নায়ক ছিলেন রবিউল হাসান। এর ঠিক পরের মৌসুমেই দায়িত্ব পান আরামবাগের অধিনায়কত্বের। পুরো মৌসুমেই দারুণ পার্ফরমেন্স করে আদায় করে নেন ২০১৮–১৯ মৌসুমের প্রিমিয়ার লিগের সেরা উদীয়মান ফুটবলারের পুরস্কার। রবিউলের এমন পার্ফরমেন্স চোখে লেগে যায় বিগ বাজেটের দল বসুন্ধরা কিংসের। বসুন্ধরা কিংসের ডাকে রবিউলও সাড়া দেন। ব্যস, হয়ে যায় মোটা অংকের চুক্তি।

২০১৯-২০ সিজনে করোনার কারণে লিগ স্থগিত হওয়ার খুব বেশি মাঠে নামার সুযোগ হয়নি রবিউলের। করোনাকে পাশ কাটিয়ে আবারো মাঠে ফেরে ফুটবল। কিন্তু মাঠে ফেরা হয়নি প্রতিভাবান ফুটবলার রবিউল হাসানের। চলতি মৌসুমে বসুন্ধরা কিংস ফেডারেশন কাপ ও লিগের প্রথম পর্বে ১৭টি ম্যাচ খেললেও কোনও ম্যাচেই মাঠে নামার সুযোগ হয়নি রবিউলের। তাকে মাঠে না নামানোর অন্যতম কারণ হিসেবে কিংস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল, শৃঙ্খলা না মানা ও অস্বাভাবিক জীবন যাপনের কারণে রবিউলের প্রতি সন্তুষ্ট ছিল না বসুন্ধরা কিংস। যে কারণেই তাকে মাঠে দেখা যেত না।

শুধু ক্লাবের জার্সি নয়,রবিউল হারিয়ে ফেলেছে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দেয়ার অধিকার। সর্বশেষ ২০২০ সালের ডিসেম্বরে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে কাতারের বিপক্ষে ম্যাচে স্কোয়াডে ছিলেন রবিউল। এরপর থেকেই আর জায়গা হয়নি লাল-সবুজের দলে। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের জার্সিতে ১৩ ম্যাচ খেলে তিন গোল করেছেন রবিউল হাসান।