বিজ্ঞাপন

অফিসিয়াল গ্রুপে যোগ দিন

বাংলাদেশের স্পোর্টসভিত্তিক শীর্ষ অনলাইন ম্যাগাজিন

টপ ট্রেন্ডিং সাকিব আল হাসান/ তামিম ইকবাল/ মুশফিকুর রহিম/ বিরাট কোহলি/ বাবর আজম/ মেসি/ নেইমার/ রোনালদো/ ব্রাজিল/ আর্জেন্টিনা/ রিয়াল মাদ্রিদ/ বার্সেলোনা/ পিএসজি

লুইস ঝড় থামিয়ে সিরিজ জিতলো দক্ষিণ আফ্রিকা

প্রকাশ: রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১ | ০৮:২৫:১৭

ডেইলি স্পোর্টসবিডি ডেস্ক

লুইস ঝড় থামিয়ে সিরিজ জিতলো দক্ষিণ আফ্রিকা
ছবি - আইসিসি/টুইটার
লুইস ঝড় থামিয়ে সিরিজ জিতলো দক্ষিণ আফ্রিকা ছবি - আইসিসি/টুইটার

আগের ৪ ম্যাচে সমান দুইটি করে জেতা ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার ৫ ম্যাচ সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি রূপ নেয় অলিখিত ফাইনালে। সেই ম্যাচে কুইন্টন ডি কক ও এইডেন মারকারামের ব্যাটিং দৃঢ়তার পর লুঙ্গি এনগিদির দুর্দান্ত বোলিংয়ে ২১ রানের জয় তুলে নেওয়ার পাশাপাশি সিরিজও জিতেছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

গ্রানাডায় টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক টেম্বা বাভুমা, তবে ম্যাচে শুরুটা ভালো পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজই। ব্যাটিংয়ে নামা দক্ষিণ আফ্রিকার ওপেনার টেম্বা বাভুমাকে প্রথম ওভারেই ফেরান ফিদেল এডওয়ার্ড, শূন্য রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে উল্টো নিয়ন্ত্রণ নেন কুইন্টন ডি কক ও এইডেন মারকারাম।

দ্বিতীয় উইকেটে দুজনে যোগ করেন ১২৮ রানের দুর্দান্ত জুটি, ফিফটি পেয়েছেন ডি কক ও এইডেন মারকারাম দুজনই। ৪২ বলে ২ চার ও ২ ছক্কায় ৬০ রান করা ডি কককে ফিরিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ শিবিরে স্বস্তি এনে দেন এডওয়ার্ডস, সঙ্গী ফিরলেও আরও কিছুক্ষণ ক্যারিবিয়ান বোলারদের হতাশা উপহার দেন মারকারাম।

৪৮ বলে ৩ চার ও ৪ ছক্কায় ৭০ রান করে এইডেন মারকারামের বিদায়ের পর ফিনিশিংটা মোটেও ভালো হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকার, শেষ ২১ বলে ৭ উইকেট হাতে রেখেও ২৪ রানের বেশি তুলতে পারেনি তারা। ১২ তম ওভারে ১০০ পেরোনো প্রোটিয়ারা নির্ধারিত ২০ ওভার ব্যাটিং করে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৬৮ রানের পুঁজি পায়, ফিদেল এডওয়ার্ডস ২, ওবেদ ম্যাককয় ও ডোয়াইন ব্রাভো নেন ১ টি করে উইকেট।

জবাব দিতে নেমে ২১ রানেই ওপেনার লেন্ডল সিমন্সের উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ, তবে অন্য ওপেনার এভিন লুইসের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে জয়ের পথেই এগোচ্ছিলো ক্যারিবিয়ানরা। ৩০ বলে ফিফটি পূর্ণ করেন এভিন লুইস, তবে এদিনও ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি ক্রিস গেইল, আগের ৩ ম্যাচে ৩২*, ৮ ও ৫ রান করা গেইল আউট হন ৯ বলে ১১ রান করে।

ক্রিস গেইলের বিদায়ের পর ১৪ বলে ১০ রান আসে এভিন লুইস ও শিমরন হেটমায়ার জুটি থেকে, ৩৪ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় ৫২ রান করে লুইস ফিরে গেলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। চতুর্থ উইকেটে শিমরন হেটমায়ার ও কাইরন পোলার্ড ৩৫ রানের জুটি গড়লেও খেলে ফেলেন ৩০ বল, পরপর দুই বলে পোলার্ড (১৩) ও আন্দ্রে রাসেলকে (০) ফিরিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার জয় অনেকটাই নিশ্চিত করে ফেলেন উইয়ান মুল্ডার।

আরও খেলার খবরঃ   লঙ্কানদের বিপক্ষে জয় দিয়ে সিরিজ শুরু দক্ষিণ আফ্রিকার

জয়ের জন্য শেষ ২ ওভারে ৩০ রানের প্রয়োজন ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের, আগের ওভারেই ২ ছক্কায় ১৫ রান তুলে ক্যারিবিয়ানদের আশা দেখাচ্ছিলো নিকোলাস পুরান। তবে তাদের সেই আশা নিরাশায় পরিণত হতে খুব বেশি সময় লাগেনি, আবারও পরপর দুই বলে উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। অল আউট না হলেও শেষ ২ ওভারে ৪ রানের বেশি তুলতে পারেনি দলটি, ফলাফল ২৫ রানের হারের পাশাপাশি তাদের সঙ্গী হয়েছে সিরিজ হারের হতাশাও।

শিমরন হেটমায়ার ৩১ বলে ৩৩ ও নিকোলাস পুরান ১৪ বলে ২০ রান করেন, দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে লুঙ্গি এনগিদি ৩, কাগিসো রাবাদা ও উইয়ান মুল্ডার নেন ২ টি করে উইকেট।

দক্ষিণ আফ্রিকা ১৬৮/৪, ২০ ওভার; (এইডেন মারকারাম ৭০, কুইন্টন ডি কক ৬০, ডেভিড মিলার ১৮*, উইয়ান মুল্ডার ৯*, ফিদেল এডওয়ার্ডস ২/১৯, ডোয়াইন ব্রাভো ১/২৮, ওবেদ ম্যাককয় ১/৩২)।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৪৩/৯, ২০ ওভার; (এভিন লুইস ৫২, শিমরন হেটমায়ার ৩৩, নিকোলাস পুরান ২০, কাইরন পোলার্ড ১৩, ক্রিস গেইল ১১, লুঙ্গি এনগিদি ৩/৩২, কাগিসো রাবাদা ২/২৪, উইয়ান মুল্ডার ২/৩১)।

ফলাফলঃ দক্ষিণ আফ্রিকা ৩-২ ব্যবধানে সিরিজ জয়ী।

ম্যাচ সেরাঃ এইডেন মারকারাম।

সাম্প্রতিক খবর

বাংলাদেশ ফুটবল / একাডেমী কাপের শিরোপা জিতল ভৈরব ফুটবল একাডেমী
ব্যাডমিন্টন / বঙ্গবন্ধু ব্যাডমিন্টনে লড়াই করে হারলেন সালমান-উর্মি
টুকিটাকি / ওমিক্রন আতঙ্কে দেশে ফিরে গেলেন জাতীয় দলের নেপালি কোচ
টেনিস / বঙ্গবন্ধু কাপ টিটিতে বিকেএসপি সেরা
বাংলাদেশ ফুটবল / পুলিশকে হারিয়ে কাজ সেরে রাখতে চায় বসুন্ধরা কিংস
বাংলাদেশ ফুটবল / দুই ইউরোপিয়ান ফুটবলারের ম্যাজিকে নবাগত স্বাধীনতার প্রথম জয়
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট / গায়ে জোর থাকলে মন্থর উইকেটেও ভালো করা যায়: শাহিন আফ্রিদি
টপ ট্রেন্ডিং সাকিব আল হাসান/ তামিম ইকবাল/ মুশফিকুর রহিম/ বিরাট কোহলি/ বাবর আজম/ মেসি/ নেইমার/ রোনালদো/ ব্রাজিল/ আর্জেন্টিনা/ রিয়াল মাদ্রিদ/ বার্সেলোনা/ পিএসজি