বিজ্ঞাপন

অফিসিয়াল গ্রুপে যোগ দিন

বাংলাদেশের স্পোর্টসভিত্তিক শীর্ষ অনলাইন ম্যাগাজিন

টপ ট্রেন্ডিং সাকিব আল হাসান/ তামিম ইকবাল/ মুশফিকুর রহিম/ বিরাট কোহলি/ বাবর আজম/ মেসি/ নেইমার/ রোনালদো/ ব্রাজিল/ আর্জেন্টিনা/ রিয়াল মাদ্রিদ/ বার্সেলোনা/ পিএসজি

৮ ‘ব্যাটার’ নিয়ে একাদশ সাজানোর ব্যাখ্যা মুমিনুলের

প্রকাশ: সোমবার, ১২ জুলাই, ২০২১ | ০৯:৪৪:৪৮

ডেইলি স্পোর্টসবিডি ডেস্ক

৮ ‘ব্যাটার’ নিয়ে একাদশ সাজানোর ব্যাখ্যা মুমিনুলের
ছবি - টুইটার/জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট
৮ ‘ব্যাটার’ নিয়ে একাদশ সাজানোর ব্যাখ্যা মুমিনুলের ছবি - টুইটার/জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের একাদশ দেখে অনেকেই অবাক হয়েছিলেন, ৮ ব্যাটার রেখে একাদশ সাজানো হয়েছিল। জিম্বাবুয়ের মতো দলের বিপক্ষেও অতি রক্ষণাত্মক মনোভাব নিয়ে চলে আলোচনা-সমালোচনা, বড় জয়ের পর ম্যাচ শেষে একাদশে ৮ ব্যাটার খেলানোর ব্যাখ্যা দিয়েছেন অধিনায়ক মুমিনুল হক।

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নামা বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ৮ নম্বর ব্যাটারে ভর করেই রক্ষা পায়, সাইফ-সাকিবদের ব্যর্থতায় ১৩২ রানেই ৬ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়েছিল বাংলাদেশ। সেখান থেকে বাংলাদেশকে ভালো সংগ্রহ এনে দেন লিটন দাস, ৮ এ নামা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও তাসকিন আহমেদ।

লিটন-তাসকিনদের ইনিংস অতি গুরুত্বপূর্ণ হলেও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ব্যাটিং ছিল অনন্য, খেলেছেন ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস। ৮ ব্যাটার খেলানোর পরিকল্পনা না থাকলে একাদশেই জায়গা হতো না রিয়াদের, কিন্তু তার ব্যাটে ভর করেই ম্যাচ জেতার পর ৮ ব্যাটার খেলানো নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে না টিম ম্যানেজমেন্টকে।

একাদশে ৮ ব্যাটার খেলার ব্যাখ্যায় মুমিনুল হক বলেন, “বিদেশের এমন কন্ডিশনে আমার মনে হয় ৮ ব্যাটার থাকতে পারে, আর এখন তো সাকিব ভাইও আছে। উনি না থাকলে কম্বিনেশন ভিন্ন হত। উইকেট দেখে আমার মনে হয়েছিল প্রথম দিন সংগ্রাম করতে হতে পারে, কিন্তু লম্বা ব্যাটিং লাইনআপ হলে পরিত্রাণ পাবো, আমরা বের হতে পেরেছিও।”

টস জিতে ব্যাটিং নেওয়ার প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, “বুঝতে পেরেছিলাম উইকেট শক্ত, রোদ, কন্ডিশন যেমন থাকে তাতে চার-পাঁচ নম্বর দিনে বল একটু হলেও ঘুরবে। এই বিশ্বাস তো আপনাদের আমাদের সবার আছে, একটু স্পিন পেলে হয়ত সুযোগটা কাজে লাগাতে পারবো, এ কারণেই টস জিতে ব্যাটিং নেওয়া। সিদ্ধান্ত ভুল কি না এমন ভাবনা মাঝেমাঝে আসে। চেষ্টা করি না আনার। আমি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছি সেটাই ঠিক, হোক তা ভুল। যেহেতু জিতে গেছি সিদ্ধান্ত ঠিক, হারলে হয়তো সিদ্ধান্তটা অন্যরকম হত।”

প্রথম ইনিংসে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ১৫০, লিটন দাসের ৯৫, তাসকিন আহমেদের ৭৫ ও মুমিনুল হকের ৭০ রানের ইনিংসে ৪৬৮ রানের বিশাল সংগ্রহ পেয়েছিল বাংলাদেশ, বড় স্কোরের কারণেই ১৯২ রানের বিশাল লিড পেয়ে যায় দল। সেটাকে পুঁজি করেই দ্রুত রান তুলে ইনিংস ঘোষণার সুযোগ পায় বাংলাদেশ, শেষ পর্যন্ত ২২০ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে মুমিনুলরা।

সাম্প্রতিক খবর

বাংলাদেশ ফুটবল / একাডেমী কাপের শিরোপা জিতল ভৈরব ফুটবল একাডেমী
ব্যাডমিন্টন / বঙ্গবন্ধু ব্যাডমিন্টনে লড়াই করে হারলেন সালমান-উর্মি
টুকিটাকি / ওমিক্রন আতঙ্কে দেশে ফিরে গেলেন জাতীয় দলের নেপালি কোচ
টেনিস / বঙ্গবন্ধু কাপ টিটিতে বিকেএসপি সেরা
বাংলাদেশ ফুটবল / পুলিশকে হারিয়ে কাজ সেরে রাখতে চায় বসুন্ধরা কিংস
বাংলাদেশ ফুটবল / দুই ইউরোপিয়ান ফুটবলারের ম্যাজিকে নবাগত স্বাধীনতার প্রথম জয়
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট / গায়ে জোর থাকলে মন্থর উইকেটেও ভালো করা যায়: শাহিন আফ্রিদি
টপ ট্রেন্ডিং সাকিব আল হাসান/ তামিম ইকবাল/ মুশফিকুর রহিম/ বিরাট কোহলি/ বাবর আজম/ মেসি/ নেইমার/ রোনালদো/ ব্রাজিল/ আর্জেন্টিনা/ রিয়াল মাদ্রিদ/ বার্সেলোনা/ পিএসজি