বিজ্ঞাপন

অফিসিয়াল গ্রুপে যোগ দিন

বাংলাদেশের স্পোর্টসভিত্তিক শীর্ষ অনলাইন ম্যাগাজিন

টপ ট্রেন্ডিং সাকিব আল হাসান/ তামিম ইকবাল/ মুশফিকুর রহিম/ বিরাট কোহলি/ বাবর আজম/ মেসি/ নেইমার/ রোনালদো/ ব্রাজিল/ আর্জেন্টিনা/ রিয়াল মাদ্রিদ/ বার্সেলোনা/ পিএসজি

৬৪০ জয়, ১৯৮ ড্র, ১৬২ হার- স্পেশাল ওয়ানের ‘১০০০’

প্রকাশ: সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ | ১৪:০৬:২৭

ডেইলি স্পোর্টসবিডি ডেস্ক

ছবিঃ ইন্টারনেট
ছবিঃ ইন্টারনেট

আচ্ছা, আপনাকে যদি জিজ্ঞাসা করা হয় ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে অভূতপূর্ব টুর্নামেন্ট জয়ের ইতিহাস কোনটি? তাহলে আপনি কি বলবেন? লেস্টার সিটির প্রিমিয়ার লীগ জয়? নাকি গ্রীসের ইউরো জয়? হুম তা বলতেই পারেন নিঃসন্দেহে। কিন্তু, যাই বলুন না কেন এই নামগুলোর ভীড়ে যে উজ্জ্বল নক্ষত্রের মত আলো ছড়াবে জোসে মরিনহোর পোর্তোর চ্যাম্পিয়ন্স লীগ জয় তা বলে দেয়াই যায়! টানা দুই মৌসুম পোর্তোকে নিয়ে লিগ ও একবার উয়েফা সুপার কাপ জিতলেও, হোসে মরিনহোর ‘স্পেশাল ওয়ান’ হওয়ার যাত্রাটা গতি পায় এই চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেই।

তারপরের গল্পটা তো সবারই জানা। কাতালান ক্লাব বার্সেলোনায় অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে শুরুটা করেছিলেন। চার বছর সেই পদে থেকে ২০০০ সালে তিনি পর্তুগিজ ক্লাব বেনফিকায় প্রধান কোচের ভূমিকায় আসীন হন। এরপর বেনফিকার হয়ে যে যাত্রাটা শুরু করেছিলেন পোর্তো, চেলসি, ইন্টার মিলান, রিয়াল মাদ্রিদ, চেলসি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, টটেনহাম হটস্পার থেকে এখন রোমায়- স্পেশাল ওয়ান ছুটছেন নিজের মতো করেই। আর এই যাত্রাই প্রায় দুই দশকের নিজের কোচিং ক্যারিয়ারে হাজারতম ম্যাচটিও খেলিয়ে ফেলেছেন।

ছবিঃ ইন্টারনেট

গতকাল (শনিবার) রাতে ইতালিয়ান সিরি’আ তে সাসোলোর বিপক্ষে ক্যারিয়ারের হাজারতম ম্যাচে ডাগ -আউটে দাঁড়ান। আক্রমণ প্রতি আক্রমণের ম্যাচে শুরু তে গোল করে রোমা এগিয়ে থাকলেও, বির‍তির পরই আচমকা গোল করে সমতায় ফিরে সাসোলো। শঙ্কা জাগে কোচ হোসে মরিনহোর ক্যারিয়ারের সহস্রাধিক ম্যাচ পয়েন্ট খুইয়েই মাঠ ছাড়ার।

এমন পরিস্থিতিতে ম্যাচের যোগ করা সময়ে দুর্দান্ত এক গোল করে গুরুর ঐতিহাসিক দিনটি স্মরণীয় করে রাখেন স্টিফেন সারওয়ে। ডাগ-আউট থেকে নিজের চিরচেনা আইকনিক দৌড়ে বুনো উল্লাস মেতে উঠেন স্পেশাল ওয়ানও। কোচিং ক্যারিয়ারে হাজারতম ম্যাচে  জয় নিয়েই মাঠ ছাড়লেন পর্তুগিজ কোচ।

এক হাজার ম্যাচের ক্যারিয়ারে কোচ হিসেবে হোসে মরিনহো জয় পেয়েছেন ৬৪০ ম্যাচে। ১৬২ম্যাচে হারের বিপরীতে ড্র করেছেন ১৯৮ ম্যাচে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ম্যাচে দায়িত্ব পালন করেছেন চেলসিতে। দুই মেয়াদে তিনি চেলসিকে ৩২০ ম্যাচে দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। ২০০৪ সাল থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত চেলসিকে ১৮৫ ম্যাচে এবং ২০১৩ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ১৩৬ ম্যাচে ডাগআউটে দাঁড়িয়েছেন তিনি।

ছবিঃ ফেসবুক

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ম্যাচে দায়িত্ব পালন করেছেন স্প্যানিশ জায়ান্ট ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদে। লস ব্লাংকোসদের হয়ে কোচিং করিয়েছেন ১৭৮ ম্যাচে। এ ছাড়াও ইংল্যান্ডের আরও দুই ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ১৪৪ ম্যাচ ও টটেনহ্যাম হটস্পারের হয়ে ৮৬টি ম্যাচ ডাগআউটে ছিলেন। রুপকথার জন্ম দিয়ে ইউরোপ সেরা করা পোর্তোর হয়ে ডাগ আউটে বসেছিলেন ১২৬ম্যাচ। দুই দশকের ক্যারিয়ারে সবমিলিয়ে শিরোপা জিতেছেন ২৫টি।

আরও খেলার খবরঃ   প্রিমিয়ার লিগে সেপ্টেম্বর মাসের সেরা খেলোয়াড় রোনালদো!!

ক্যারিয়ারের একমাত্র ট্রেবলজয়ী ক্লাব ইন্টার মিলানে ছিলেন ১০৮ ম্যাচ। পোর্তো ছাড়াও স্বদেশী আরেক ক্লাব বেনফিকায় কোচিং করিয়েছেন ১০ ম্যাচ। বর্তমান ক্লাব রোমার হয়ে এখন পর্যন্ত ৫ ম্যাচ ছাড়াও এর আগে উনাই ডি লেইনাতে আরও ২৩টি ম্যাচ কোচিং করান।

বয়স এখন ৫৮। তারপরও রোমার জয়ে শিশুদের মতো দৌড়ে বুনো উল্লাস! স্পেশাল ওয়ান পরোয়া করে না সমালোচনার। কারণ নিজেকে এখনও ১২ বছরেরই মনে হয় তাঁর। ম্যাচ শেষে হোসে মরিনহো জানান, “আমি সবাইকে মিথ্যা বলি। দলের সবাইকে আমি বলেছিলাম, এটা আমার এক হাজারতম ম্যাচ বলে কি হয়েছে! এটা কোনো ইস্যু না। কারণ আমি হারে ভয় পাই। আর ওই যে এত দৌড়াদৌড়ি করি,এটার কারণ নিজেকে আমার ১২ বছরের তরুণ মনে হয়, ৫৮ বছরের বুড়ো মনে হয় না।”

সাম্প্রতিক খবর

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট / শানাকার ‘অভিষেক’ সেঞ্চুরির পরেও জিম্বাবুয়ের কাছে হারলো শ্রীলঙ্কা
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট / হেনরিকসের এক অভিযোগে হুমকির মুখে পাকিস্তান ‘স্পিডস্টার’ হাসনাইনের ক্যারিয়ার
বাংলাদেশ ফুটবল / লিগের আগে ‘সারাহ রিসোর্টে’ ক্যাম্প করবে বসুন্ধরা কিংস
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট / ভারতকে টেস্টের পর ওয়ানডে সিরিজেও হারানোর হুঁশিয়ারি বাভুমার
বাংলাদেশ ফুটবল / দেশের প্রথম কোনো ক্লাব হিসেবে ইতিহাস গড়ার পথে বসুন্ধরা কিংস
বাংলাদেশ ক্রিকেট / পুরোনো ইতিহাস নিয়ে আলোচনা করতে চান না রোডস
ক্লাব ফুটবল / রিয়াল কিংবদন্তি ‘পাকো হেন্তো’ আর নেই
টপ ট্রেন্ডিং সাকিব আল হাসান/ তামিম ইকবাল/ মুশফিকুর রহিম/ বিরাট কোহলি/ বাবর আজম/ মেসি/ নেইমার/ রোনালদো/ ব্রাজিল/ আর্জেন্টিনা/ রিয়াল মাদ্রিদ/ বার্সেলোনা/ পিএসজি