অন্যান্য > টেনিস

রূপকথার গল্প লিখে ইউএস ওপেনের নতুন রানী রাডুকানু

নিউজ ডেস্ক

১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, সকাল ৮:৫২ সময়

[ 210911181612-08-2021-us-open-womens-final-0911-raducanu-super-169 ]
ছবিঃ ইন্টারনেট
গত সতের দিনের স্বপ্নময় পথে ১০টি ম্যাচ খেলেছেন। ৩টি বাছাইপর্বে, আর বাকি ৭টি মূল প্রতিযোগিতায়। বেশ কিছু বড় তারকা খেলোয়াড়ের মুখোমুখি হয়েছিলেন। ম্যাচ তো দূরের কথা, একটি সেটও হারেননি। ১৭ দিন আগে স্বপ্নময় যে পথচলা শুরু হয়েছিলো তাঁর, রোমাঞ্চ ও বিস্ময়ের নানা মোড় পেরিয়ে, এবার শেষ ধাপে উড়ন্ত জয় দিয়েই সেটির পূর্ণতা দিলেন ব্রিটিশ নারী টেনিস তারকা এমা রাডুকানু। রোববার ইউএস ওপেনে নারী এককে সাড়া জাগানো দুই টিনএজারের ফাইনালে ফাইনালে ৬-৪ ও ৬-৩ সরাসরি গেমে কানাডার লায়লা ফার্নান্দেজকে হারিয়ে শিরোপা জিতে নেন ১৮ বছর বয়সী এই ব্রিটিশ তারকা। ইউএস ওপেন তো বটেই যে কোনো গ্র্যান্ডস্ল্যামে বাছাইপর্বে খেলতে এসে প্রথমবারের মতো গ্র‍্যান্ডস্ল্যাম শিরোপা জিতলেন বাছাইয়ে ১৫০তম স্থানে থাকা রাডুকানু। [caption id="attachment_45962" align="aligncenter" width="1100"] ছবিঃ ইন্টারনেট[/caption] সর্বশেষ ১৯৯৯ সালের পর ইউএস ওপেনের ফাইনালে দুই অবাছাইয়ের ফাইনালে রাডুকানু অপ্রতিরোধ্য এ যাত্রায় কিছুটা শঙ্কা জেগেছিল। দ্বিতীয় সেটে ৫-৩ গেমে এগিয়ে থাকার সময় পায়ে আঘাত পেয়েছিলেন তিনি। পরে মেডিকেল টাইম আউট নিয়ে ফিরে আসেন তিনি। এরপর আর পেছনে তাকাতে হয়নি। শেষ সেটে দুর্দান্ত একটি ‘এইস’ মেরে নিশ্চিত করেন শিরোপা। আর তাতেই ইতিহাসে নিজের নাম লিখে ফেললেন রাডুকানু। সেরেনা উইলিয়ামসের পর দ্বিতীয় নারী টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে একটিও সেটে না হেরে চ্যাম্পিয়ন হলেন তিনি। মাত্র ১৮ বছর বয়সে ইউএস ওপেন জিতে সবচেয়ে কম বয়সী ব্রিটিশ খেলোয়াড় হিসেবে গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের রেকর্ডও লেখা হয়ে গেল তাঁর নামে। শুধু তাই নয়, রাডুকানুর এই শিরোপা জয়ে অপেক্ষা ঘুচল ব্রিটিশদেরও। ৪৩ বছর পর কোনো ব্রিটিশ নারী গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা জিতলেন। সর্বশেষ ১৯৭৭ সালে ব্রিটিশদের হয়ে ভার্জিনিয়া ওয়েড উইম্বলডন শিরোপা জিতেছিলেন। [caption id="attachment_45963" align="aligncenter" width="600"] ছবিঃ টুইটার[/caption] ইউএস ওপেনের আগে চলতি বছরের উইম্বলডনেই প্রথমবার গ্র্যান্ডস্ল্যামে আর্বিভাব ঘটে এমা রাডুকানুর। ঘাসের কোর্টে শুরুটা ভালো করেও চতুর্থ রাউন্ডে শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যার জেরে সরে দাঁড়াতে হয়েছিল তাকে। কে ভেবেছিল, মাত্র দুই মাস পরেই ব্রিটিশ তরুণীকে আর্থার অ্যাশে খেতাব হতে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাবে! ইউএস ওপেনের শিরোপা জিতে এখন ১৫০ নম্বর থেকে এক লাফে র‌্যাঙ্কিংয়ে ২৩ নম্বরে উঠে আসবেন তিনি। হয়ে যাবেন ব্রিটেনের এক নম্বর টেনিস তারকা। একই সঙ্গে তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা হবে ১৮ লাখ পাউন্ড!