বিজ্ঞাপন

অফিসিয়াল গ্রুপে যোগ দিন

বাংলাদেশের স্পোর্টসভিত্তিক শীর্ষ অনলাইন ম্যাগাজিন

টপ ট্রেন্ডিং সাকিব আল হাসান/ তামিম ইকবাল/ মুশফিকুর রহিম/ বিরাট কোহলি/ বাবর আজম/ মেসি/ নেইমার/ রোনালদো/ ব্রাজিল/ আর্জেন্টিনা/ রিয়াল মাদ্রিদ/ বার্সেলোনা/ পিএসজি

দূরপাল্লার সাঁতারে উৎসবের আমেজ বসেছিল নড়াইলে

প্রকাশ: রবিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২১ | ১৭:৩৪:১০

ডেইলি স্পোর্টসবিডি ডেস্ক

নড়াইলের চিত্রা নদীতে হয়ে গেলে শেখ রাসেল ১৮তম জাতীয় দূরপাল্লা সাঁতার প্রতিযোগিতা। আজ রবিবার ছেলে এবং মেয়ে দুই বিভাগেই এই প্রতিযোগিতা সম্পন্ন হয়। যেখানে ছেলেদের বিভাগে ১০ কিলোমিটার সাঁতরে সেরা হন জাতীয় দল এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাঁতারু ফয়সাল আহমেদ। মেয়েদের বিভাগে ৮ কিলোমিটার সাঁতারে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেন জাতীয় দল এবং বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সাঁতারু সোনিয়া আক্তার টুম্পা। চিত্রা নদীর রথডাঙ্গা হাই স্কুল থেকে শুরু হয়ে প্রতিযোগিতা শেষ হয় রূপগঞ্জ বাজারের বাঁধাঘাট পয়েন্টে। বাংলাদেশ সাঁতার ফেডারেশনের উদ্যোগে এবং সাইফ পাওয়ারটেকের পৃষ্ঠপোষকতায় এবারের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে সহযোগিতায় ছিল বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও নড়াইল জেলা ক্রীড়া সংস্থা।

প্রতিযোগিতা সামনে রেখে পুরো নড়াইল শহরের আনন্দের ঢেউ জাগে। চিত্রা নদীর দুই ধারে স্থানীয়রা এই দূরপাল্লার সাঁতার দেখতে বিভিন্ন জায়গায় একত্রিত হন। নড়াইলবাসীর আনন্দের এ মাত্রাকে দ্বিগুণ করে তুলে পৃষ্ঠপোষক সাইফ পাওয়ারটেক। আয়োজন সামনে রেখে পুরো শহর রঙিন ব্যানার-পোস্টারে ছেঁয়ে ফেলে প্রতিষ্ঠানটি। শহরের মোড়ে, অলিতে-গলিতে শোভা পায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং যার নামে এই প্রতিযোগিতা সেই ছোট্ট শিশু শহীদ শেখ রাসেলের রঙ-বেঙয়ের পোস্টার। এমনকি নদীর দু’পাড়েও পোস্টার-ব্যানার চোখে পড়ে। প্রতিযোগিতা দেখতে আবাল-বৃদ্ধ-বণিতা সকাল থেকেই চিত্রা নদীর পাড়ে এসে জড়ো হোন। অনেকে বাড়ি থেকে চেয়ার-টেবিল এনে তাতে বসে প্রতিযোগিতা উপভোগ করেন।

এবারের প্রতিযোগিতায় ৭ জন ছেলে এবং ৭ জন মেয়ে সাঁতারু অংশ নেন। গেল ২৭ অক্টোবর উন্মুক্ত বাছাই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে তাদেও নির্বাচিত করে সাঁতার ফেডারেশন। প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া ছেলে সাঁতারুরা হলেন- বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ফয়সাল আহমেদ ও সাজ্জাদ হোসেন, বাংলাদেশ নৌবাহিনীর পলাশ চৌধুরী ও কাজল মিয়া, নড়াইলের রবিউল আউয়াল, বাংলাদেশ আনসারের মো. আশিক শেখ ও কুষ্টিয়ার সাঁতারু আশিকুল ইসলাম। আর মেয়েদের বিভাগে অংশ নেয়া সাঁতারুরা হলেন- বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মুক্তি খাতুন ও লাবনী আক্তার, বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সোনিয়া আক্তার টুম্পা ও সুরাইয়া আক্তার, বাংলাদেশ আনসারের মুক্তা খাতুন, নড়াইল জেলার সুমি খাতুন এবং আমলা সুইমিং ক্লাব কুষ্টিয়ার সাঁতারু সুমাইয়া আক্তার। গত বছর এই প্রতিযোগিতা গোপালগঞ্জের মধমুতি নদীতে অনুষ্ঠিত হয়। সেখানেও ছেলেদের বিভাগে সেরার মুকুট পরেন ফয়সাল আহমেদ।

আরও খেলার খবরঃ   দু'বার করোনা আক্রান্ত হয়েও সাঁতারে সোনা জয় ডিনের

প্রতিযোগিতা চ্যাম্পিয়ন হয়ে দারুণ খুশি ফয়সাল। তিনি বলেন, ‘প্রতিযোগিতা বেশ প্রতিদ্বদ্বীতাপূর্ণ হয়েছে। আমার বাহিনীকে সেরা (বাংলাদেশ সেনাবাহিনী) করতে পেরে আমি ভীষণ আনন্দিত। প্রতিযোগিতা সামনে রেখে আমি অনুশীলন করেছি। তবে প্রতিযোগিতাটি যে পয়েন্ট থেকে আরম্ভ হওয়ার কথা ছিল সেটা না হয়ে উল্টো দিক থেকে হয়েছে। প্রথমে বলা হয়েছিল বাঁধাঘাট থেকে সাঁতার শুরু হবে। শেষ হবে গোবরা মিত্র ঘাটে। কিন্তু পরে আয়োজকরা উল্টো দিক থেকে এটা শুরু করেছেন। এর জন্য কিছুটা সমস্যা হয়েছে। নৌবাহিনীর সাঁতারুরা দুইবার আমার চোখে ঘুষি দিয়েছে। আমি যাতে জিততে না পারি তারা সেই চেষ্টা করেছে। কিন্তু আমি সব বাঁধা পেরিয়ে শেষ পর্যন্ত জয়ের মুকুট ধরে রাখতে পেরেছি।’

প্রতিযোগিতা মেয়েদের বিভাগে সেরাদের সেরা হতে পেরে খুশি নৌবাহিনীর সাঁতারু সোনিয়া আক্তার টুম্পাও। এই ধারাবাহিকতা জাতীয় খেলাতেই অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি। ১ ঘণ্টা ৩ মিনিট ১৭ সেকেন্ড সাঁতরে ছেলেদের বিভাগে সেরা হন ফয়সাল। আর মেয়েদের বিভাগে ৫৮ মিনিট ৫০ সেকেন্ড সাঁতরে সেরা হন সোনিয়া আক্তার টুম্পা। এছাড়া ছেলেদের বিভাগে ১ ঘণ্টা ৪ মিনিট সাঁতরে দ্বিতীয় হন নৌবাহিনী পলাশ চৌধুরী এবং পলাশের চেয়ে এক মিনিট বেশি সময় নিয়ে তৃতীয় হন নৌবাহিনীর কাজল মিয়া। এছাড়া মেয়েদের বিভাগে ১ ঘণ্টা ৪৩ সেকেন্ড সাঁতওে দ্বিতীয় হন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মুক্তি খাতুন এবং ১ ঘণ্টা ২ মিনিট ৫০ সেকেন্ড সময় নিয়ে তৃতীয় হন নৌবাহিনীর সুরাইয়া আক্তার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশনের সভাপতি ও নৌবাহিনীর প্রধান এডমিরাল এম শাহীন ইকবাল। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুইমিং ফেডারেশনের সহ-সভাপতি ও পৃষ্ঠপোষক সাইফ পাওয়ারটেকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তরফদার মো. রুহুল আমিন। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে নড়াইল জেলা পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায়, বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) উপ-মহাসচিব আশিকুর রহমান মিকু, সুইমিং ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক এমবি সাইফ মোল্লাসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নড়াইল জেলা প্রশাসক হাবিবুর রহমান।

আরও খেলার খবরঃ   মালদ্বীপ-বাংলাদেশ ম্যাচ টিকেটের জন্য প্রবাসীদের হাহাকার

এমন আয়োজনে সন্তোষপ্রকাশ করেন সুইমিং ফেডারেশনের সভাপতি ও নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল এম শাহীন ইকবাল। এ ধরনের প্রতিযোগিতা বছরে শুধু একবার নয়; একাধিকবার আয়োজনের ইচ্ছাও পোষন করেন। এজন্য পৃষ্ঠপোষকদের আরো বেশি বেশি এগিয়ে আসার অনুরোধও রাখেন। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শহীদ শেখ রাসেলের নামে এই আয়োজন। চিত্রা নদীতে এই ধরনের আয়োজন আরো বেশি যাতে হয়, সুন্দর-সুষ্ঠুভাবে হয় এজন্য আয়োজকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সভাপতি।

অনুষ্ঠানে সুইমিং ফেডারেশনের সহ-সভাপতি ও পৃষ্ঠপোষক সাইফ পাওয়ারটেকের কর্ণধার তরফদার রুহুল আমিন বলেন, “হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট ভাইয়ের নামে এই প্রতিযোগিতা আমরা আয়োজন করেছি। আমাদের ফেডারেশনের সম্মানিত সভাপতি ও নৌবাহিনীর প্রধানের সর্বাত্মক সহযোগিতা এবং পরামর্শক্রমে আমরা দূর পাল্লার সাঁতার প্রতিযোগিতাটি করেছি। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি এই আয়োজন বছরের একবার নয়; দু’বার করব। এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে তৃণমূল থেকে সাঁতারুরা আরো বেশি উঠে আসবো। আমরা তৃণমূলে জোর দিতে চাই। তৃণমূলে ফুটবলসহ আরো অনেক কিছু নিয়েই আমরা কাজ করছি। সাঁতারে সেটা করতে চাই। যেখানেই নদী সেখানেই সাঁতার- এই ব্রত নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।”

সাম্প্রতিক খবর

ক্লাব ফুটবল / অবসর নিতে ভয় পাওয়া ইব্রাহিমোভিচ ক্যারিয়ার শেষ করতে চান এসি মিলানে
বাংলাদেশ ফুটবল / মতিঝিলের টার্ফ মাতালেন ‘প্রতিবন্ধী’ ফুটবলাররা
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট / দক্ষিণ আফ্রিকায় ভারত সফরের সূচি প্রকাশ
হকি / চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে ভাল খেলাই লক্ষ্য বাংলাদেশের
ক্লাব ফুটবল / প্যারিসের শীতে কষ্টে আছেন মেসি!
খেলাধুলায় মেয়েরা / বাংলাদেশ ফুটবল / সাফের শিরোপায় চোখ বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ নারী দলের
বাংলাদেশ ফুটবল / গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় মোহামেডানের
টপ ট্রেন্ডিং সাকিব আল হাসান/ তামিম ইকবাল/ মুশফিকুর রহিম/ বিরাট কোহলি/ বাবর আজম/ মেসি/ নেইমার/ রোনালদো/ ব্রাজিল/ আর্জেন্টিনা/ রিয়াল মাদ্রিদ/ বার্সেলোনা/ পিএসজি