ফুটবল > বাংলাদেশ ফুটবল

পুলিশকে হারিয়ে শেষ আটে বসুন্ধরা কিংস

নিউজ ডেস্ক

৪ ডিসেম্বর ২০২১, দুপুর ১২:৩১ সময়

[ whatsapp-image-2021-12-04-at-6-27-39-pm ]
বড় জয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করলেও দ্বিতীয় ম্যাচেই চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হলো ২০১৮-১৯ মৌসুমের স্বাধীনতা কাপ চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংসের। বাংলাদেশ পুলিশের বিপক্ষে শুরুতেই এগিয়ে গেলেও পুরো ম্যাচে পুলিশের রক্ষণভাগ আর ভাঙতে পারেনি কিংস। ম্যাচে ফেরার সুযোগ পেয়েছিল পুলিশও কিন্তু ক্রসবারের বাধায় আর ফেরা হয়নি। ফলে টানা দুই জয়ে শেষ আট নিশ্চিত করলো বসুন্ধরা কিংস। শুক্রবার কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে স্বাধীনতা কাপে 'ডি' গ্রুপের ম্যাচে বাংলাদেশ পুলিশকে ১-০ গোলে হারায় বসুন্ধরা কিংস। ম্যাচের জয়সূচক গোলটি করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসন রবিনহো। অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে মাঠে নামে বসুন্ধরা কিংস। তবে ইঞ্জুরির কারণে ম্যাচের ২২ মিনিটেই মাঠ ছাড়েন তারিক কাজি, বদলি হিসেবে নামেন রিমন হোসেন। এছাড়া ইঞ্জুরির কারণে ৭০ মিনিটে মাঠ ছাড়েন ডিফেন্ডার তপু বর্মণ। আগের ম্যাচে নৌবাহিনীকে ৬-০ গোলে হারালেও পুলিশের বিপক্ষে অগোছালো ফুটবল খেলেছে বসুন্ধরা কিংস। নিজেদের স্বভাবজাত ফুটবল না খেলতে পারলেও কোন পয়েন্ট হারাতে হয়নি দলটির। প্রথমার্ধে পেনাল্টি থেকে এগিয়ে যাওয়ার পর ফরোয়ার্ডদের মধ্যে সমন্বয়হীনতায় আর গোলের দেখা পায়নি বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। এদিকে প্রথম ম্যাচে দারুণ খেলেও চিটাগাং আবাহনীর সঙ্গে ১-১ গোলে সমতায় শেষ করেছিল বাংলাদেশ পুলিশ। দুই আফগান ও জার্মান ফরোয়ার্ডের উপর ভর করে বসুন্ধরা কিংসের সমানে সমান লড়াই করেছে পুলিশ। আদিল কুশখুশের শট ক্রস বারে লেগে ফিরে না আসলে এক পয়েন্ট নিয়ে ফিরতে পারতো দলটি। তবে শেষ পর্যন্ত আর ম্যাচে ফেরা হয়নি গত মৌসুমে লিগে নবম হওয়া বাংলাদেশ পুলিশ। কমলাপুরের টার্ফে ম্যাচের ১৬মিনিটেই এগিয়ে যায় বসুন্ধরা কিংস। নিজেদের বক্সে ব্রাজিলিয়ান জোনাথন ফার্নান্দেজকে ফাউল করে পুলিশকে বিপদে ফেলেন ডিফেন্ডার ইশা ফয়সাল। সফল স্পট কিকে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের এগিয়ে নেন গত মৌসুমে লিগে ২১ গোল করা ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসন রবিনহো। ৩১তম মিনিটে প্রথম বারের মত কিংসের রক্ষণভাগকে চাপে ফেলে পুলিশ। বা দিক থেকে আক্রমণে উঠে বক্সে ঢুকে পড়েন মোনায়েম খান রাজু, গোল মুখের সামনে থাকা আমির উদ্দিন শারিফির উদ্দেশ্যে কাট ব্যাক করলেও সে বল পাওয়ার আগেই গোল মুখ থেকে ক্লিয়ার করেন বিশ্বনাথ ঘোষ। ৩৫তম মিনিটে পুলিশের মরোক্কান বংশোদ্ভুত জার্মান ফরোয়ার্ড আদিল কুশখুশের বাঁকানো শট লাফিয়ে উঠে রুখে দেন গোলরক্ষক আনিসুর রহমা জিকো। প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধেও বসুন্ধরার সমান তালে খেলে পুলিশ। ৬১তম মিনিটে ডান দিক থেকে ব্রাজিলিয়ান জোনাথন ফার্নান্দেজের ক্রস বক্সের জটলা থেকে বসনিয়ান স্টোয়ান ভ্রানিয়াস পা ছোঁয়ালেও গোল মুখ থেকে ক্লিয়ার করেন পুলিশের ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার ড্যানিয়েল অগোস্তো। ৬৬তম মিনিটে বা দিক থেকে ইয়াসিন আরাফাতের কাট ব্যাক স্টোয়ান ভ্রানিয়াসের দূর্বল শট সহজেই রুখে দেন গোলরক্ষক মোহাম্মদ নেহাল। ৭১তম মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে পুলিশের ফরোয়ার্ড আলামিনের দূরপাল্লার মাটি ঘেষানো শট বা দিকে ঝাপিয়ে রক্ষা করেন আনিসুর রহমান জিকো। ৭৬তম মিনিটে জিকোর কল্যাণে রক্ষা পায় বসুন্ধরা কিংস। বা দিক থেকে আমিরুদ্দিন শারিফির দারুণ পাস ধরে বক্সের খানিকটা সামনে থেকে আদিল কুশখুশের বাঁকানো শট আনিসুর রহমান জিকোর হাতে স্পর্শ করে ক্রস বারে লেগে ফিরে আসে। ৮৮তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিল বসুন্ধরা কিংস। ফাকায় থাকা এলিটা কিংসলের দিকে বল বাড়ালেই পেতে পারতো গোল কিন্তু জোনাথন ফার্নান্দেজ নিজেই শট নিলে পুলিশের এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে কর্ণারে পরিণত হয়। শেষ দিকে ফ্রিকিকের মানব দেয়ালের পজিশন নিয়ে দুই দলের ফুটবলাররা হালকা ধাক্কাধাক্কিতে জড়িয়ে পড়ে। যদিও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন রেফারি। তবে বেশি উত্তেজিত হওয়ায় হলুদ কার্ড দেখেন বসুন্ধরা কিংসের ইব্রাহিম ও রিমন হোসেন। ইব্রাহিমের বদলি হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন আগের ম্যাচে গোল করা এলিটা কিংসলে। এ ম্যাচে নিজের ছায়া ছিলেন বসনিয়ান স্টোয়ান ভ্রানিয়াসও। তাই আর বাড়েনি গোলের ব্যবধান। শেষ পর্যন্ত কষ্টার্জিত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে বসুন্ধরা কিংস। টানা দুই জয়ে ছয় পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ ডি থেকে সবার আগে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করল বসুন্ধরা কিংস। গ্রুপের অন্য দুই দল নৌবাহিনী ও চিটাগাং আবাহনীরও সুযোগ রয়েছে পরের রাউন্ডে যাওয়ার। দুই দলের পরের দুই ম্যাচের উপর নির্ভর করছে তাদের শেষ আটের ভাগ্য। কাগজে কলমে সুযোগ রয়েছে বাংলাদেশ পুলিশেরও। শেষ ম্যাচে নৌবাহিনীকে হারাতে পারলেও যেতে পারে শেষ আটে। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে নৌবাহিনী ও চিটাগাং আবাহনী।