অন্যান্য > হকি

ভারত-পাকিস্তান মহারণের অপেক্ষায় ঢাকার মাওলানা ভাসানী স্টেডিয়াম

নিউজ ডেস্ক

১৬ ডিসেম্বর ২০২১, দুপুর ২:১২ সময়

এশিয়ান চ্যাম্পিয়নস ট্রফি হকিতে শুক্রবার গ্রুপ পর্বের ম্যাচে মাঠে নামছে দুই চিরপ্রতিদ্বন্ধী ভারত ও পাকিস্তান। মাওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকাল ৩টা ৩০মিনিটে শুরু হবে হাই ভোল্টেজ ম্যাচটি। টোকিও অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ জয়ী ভারত এবারের আসর শুরু করেছিল দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করে। সে ম্যাচে দুই গোলে এগিয়ে গিয়েও শেষ পর্যন্ত পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হয়েছিল মানপ্রিত সিংদের। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিক বাংলাদেশকে ৯-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়ে আত্মবিশ্বাসে টুইটুম্বর ভারত। তবে পাকিস্তান ম্যাচের আগে খুব আরাম আয়াসে সময় কাটাচ্ছে না ভারত। পাকিস্তান কঠিন প্রতিপক্ষ ভেবে নিজেদের সেরাটা দেয়ার কথা জানালেন ভারতের অধিনায়ক মানপ্রতি সিং। "এখানে কোন প্রতিপক্ষকে ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। সকল দলই এখানে (ঢাকায়) এসেছে তাদের সেটারাই দিতে। পাকিস্তান দল ক্যাম্পে অনেক ভালো প্রস্তুতি নিয়েছে। সুতরাং এটা খুব একটা সহজ কিছু হতে যাচ্ছে না আমাদের জন্য। আমরাও সেরাটাই দিতে চাই এখানে।" "আমরা আসলে ম্যাচের ব্যাপারে উদ্বিগ্ন নই বরং ভাবছি আমাদের ব্যাপারে যে আমরা কিভাবে কি করব। যদি আমরা আমাদের কাজটা ঠিকঠাক করতে পারি তাহলে আমরা ম্যাচটা জিতে যাবো। আপনারা তো জানেন যে হকি খুবই দ্রুত গতির খেলা। যে সুযোগ পেয়ে সেটা কাজে লাগিয়ে ফেলতে পারে সেই এগিয়ে থাকবে।" এদিকে জাপানের সঙ্গে গোল শূন্য ড্র করে টুর্নামেন্ট শুরু করেছে পাকিস্তান। ভারত-পাকিস্তানের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী তকমা ছাপিয়ে এই ম্যাচ স্বাভাবিক ভাবেই নিচ্ছেন পাকিস্তান অধিনায়ক ওমর ভুট্টা। "আমার মতে, এটা আর অন্য যেন ম্যাচের মতই। যখন আমরা কোনও ম্যাচ খেলি সেখানে প্রতিপক্ষ থাকে আর তাদের বিপক্ষে খেলতে হয়, এখানেও তাই। যেহেতু আমরা দুইবার অলিম্পিক কোয়ালিফাই করতে পারিনি, আমাদের কিছুটা গ্যাপ রয়ে গেছে।" হকিতে 'ড্র‍্যাগ এবং ফ্লিক' নিয়ে পাকিস্তানের চমৎকার একটা ঐতিহ্য রয়েছে। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে এটা বজায় রাখার কথা জানালেন ওমর ভুট্টা। "হ্যাঁ, অবশ্যই আমাদের দলে ভালো 'ড্র‍্যাগ এবং ফ্লিক' বিশেষজ্ঞ রয়েছে। তাই আশা করা যাচ্ছে যে আমাদের 'ড্র‍্যাগ এবং ফ্লিক' সম্পৃক্ত ঐতিহ্যটি বজায় থাকবে। দলে দুজন সেরা ড্র্যাগ এবং ফ্লিক বিশেষজ্ঞ খেলোয়াড় আছে। তবে তাদের নাম আমি সঙ্গত কারণেই এই মূহুর্তে প্রকাশ করতে পারছি না।" দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে সন্ধ্যা ছয়টায় স্বাগতিক বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ কোরিয়া। এ ম্যাচেও বড় ব্যবধানে হারের সম্ভাবনা রয়েছে জিমি-আশরাফুলদের।