অলিম্পিক

দেশের ক্রীড়াঙ্গনকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে চান বিওএ সভাপতি

নিউজ ডেস্ক

২৭ ডিসেম্বর ২০২১, দুপুর ২:১১ সময়

[ whatsapp-image-2021-12-27-at-17-38-53 ]
বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) সভাপতি নির্বাচিত হওয়া সেনাপ্রধান জেনারেল এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ আগামী দিনে ক্রীড়াঙ্গনকে নতুন উচ্চতায় নিতে চান। সোমবার বাংলাদেশ অলিম্পিক ভবনে নব-নির্বাচিত কমিটির সদস্যদের সঙ্গে পরিচিতি পর্বে নিজের লক্ষ্য পূরণে সবার সহযোগিতাও চেয়েছেন তিনি। বিওএ ভবনে সোমবার কমিটির সদস্যদের সঙ্গে পরিচিতি পর্ব শেষে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন শফিউদ্দিন আহমেদ। বৈশ্বিক ক্রীড়ার সর্বোচ্চ আসর অলিম্পিকে ভালো করা, ক্রিকেটের মতো অন্যান্য খেলাধুলায় দৃশ্যমান উন্নতির দিকে দৃষ্টি দেওয়া হবে বলে জানান তিনি। “আমাদের উদ্দেশ্যে থাকবে, দৃশ্যমান কিছু দেওয়া। বাংলাদেশ অলিম্পিক আগের চেয়ে ভালো করেছে এবং এর কারণে আমাদের বিভিন্ন ক্রীড়া ক্ষেত্রে ভালো ফলাফল এসেছে। দৃশ্যমানটা হলো আমরা ক্রিকেটে যেমন ভালো করছি বা ফুটবলে, সেরকমটা হওয়া।” “আমি উদাহরণ হিসেবে বলতে চাচ্ছিলাম যে, ব্রাজিল যে পরিমাণ টাকা ফুটবলে বিনিয়োগ করে, ক্রিকেটে কিন্তু ততটা করে না। আমাদের যেসব সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র, সে সব জায়গায় আমরা বেশি করে বিনিয়োগ করবো। আমরা বিভিন্ন গেমসে লক্ষ্য রাখছি, অলিম্পিকে লক্ষ্য রাখছি যাতে পদকের সংখ্যা যাতে বাড়াতে পারি। সেটাই হবে আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য অর্জন। বিষয়টি এমন যে, আমরা কিছু অর্জন করেছি।” অলিম্পিক নিয়েই বেশি ভাবতে চান সেনাপ্রধান জেনারেল এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ। অন্যকিছু না ভেবে লক্ষ্য নিয়েই ভাবতে চান তিনি। “স্বভাবতই আমি অলিম্পিক নিয়েই ভাববো। সেটা না ভেবে আমার কোনো উপায় নেই। অবশ্যই ভাবতে হবে। আমরা অর্জনে বিশ্বাস করি। লক্ষ্য থাকতে হবে অনেক দূর। আজকে যদি আমি চাঁদে যাওয়ার চিন্তা করি, আজ হয়তো পারবো না, কিন্তু লক্ষ্য থাকা ভালো। আমার লক্ষ্য থাকতে হবে যুগোপযোগী এবং চ্যালেঞ্জ জেতা। তবে এতো বেশি চ্যালেঞ্জিং না যে কালকেই আমি অলিম্পিকে ১০০ মিটারে স্বর্ণ জিতবো, সেটা আবার বেশি হয়ে যাবে। আমরা পারবো না। অলিম্পিকে ভালো করার জন্য সাফ গেমস ও এশিয়ান গেমসে ভালো করতে হবে। এগুলো বড় জায়গায় যাওয়ার একটা পদক্ষেপ মাত্র।” স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন করছে দেশ। এ সময়ে দায়িত্ব পাওয়ায় নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছেন বিওএ সভাপতি। আস্থার প্রতিদান দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দেন তিনি। “এই দায়িত্ব পাওয়া খুবই সৌভাগ্যের বিষয়। এ জন্য আমি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি। আমার উপর আস্থা রাখার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।" এর আগে অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের নব নির্বাচিত প্যানেলের পরিচিতি সভায় বিওএ'র সভাপতিকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা ও সহ-সভাপতি মাহবুব আরা বেগম গিনি এমপি। উল্লেখ্য, বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের নব-নির্বাচিত কমিটির পরিচিতি সভায় অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।