অলিম্পিক

অনুষ্ঠিত হলো অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের এজিএম

নিউজ ডেস্ক

১১ ডিসেম্বর ২০২১, বিকাল ৬:৭ সময়

[ 1639230729_dsc_5746 ]
ছবিঃ সংগৃহীত
দেশের ক্রীড়া উন্নয়নে বেশ কিছু পরিকল্পনা উপস্থাপন করা হয় বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম)। শনিবার শুটিং স্পোর্ট ফেডারেশনের অনুষ্ঠিত হয় এই এজিএম। সভায় বিগত বছরের আর্থিক বিষয়াদিও পাশ হয়। আরচারি ফেডারেশনের সভাপতি লে. জেনারেল (অব.) মইনুল ইসলাম এজিএমে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উত্থাপন করেন। চার পাতার লিখিত বক্তব্যে তিনি দেশের ক্রীড়াঙ্গনের নানা বিষয় তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে বিশ্লেষণ করেন। ঘরোয়া ক্রীড়াঙ্গনের সঙ্গে আন্তর্জাতিক ক্রীড়াঙ্গনের সম্ভাবনা-সংকটও তুলে ধরেন। সেই সঙ্গে তিনি কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সুপারিশও করেন। এর মধ্যে অন্যতম বাংলাদেশ ও যুব গেমসে প্রটোকল, জাঁকজমকপূর্ণ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের অর্থ ব্যয় কমিয়ে খেলার পেছনে বেশি ব্যয় করা কাম্য বলে তিনি মনে করেন। বিওএ’র যুব গেমস আয়োজনের প্রশংসা করেন তিনি। এই গেমস আয়োজনের পাশাপাশি বিওএর পক্ষ থেকে প্রতিভা অন্বেষণ কার্যক্রম অব্যাহত রাখার আহবা জানান। আগামী তিনটি অলিম্পিকের জন্য এখন থেকেই দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন তিনি। কোচ, মনোবিদ, চিকিৎসক সহ প্রয়োজনীয় সকল ব্যক্তিকে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার আওতায় মাসিক সম্মানী দেওয়া উচিত বলেও মনে করেন তিনি। নেপালের এসএ গেমসে বাংলাদেশের পদকের বিশ্লেষণও করেন তিনি। তার বিশ্লেষণে উঠে এসেছে ব্যক্তিগত নন কন্ট্রাক্ট গেমে বাংলাদেশে অধিকাংশ পদক পেয়েছে। এশিয়ান, কমনওয়েলথ গেমসে এই গেমে বেশি জোর দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। মইনুল ইসলামের গুরুত্বপূর্ণ প্রস্তাবনাগুলোতে সবাই সম্মত হন। নতুন কমিটি এই বিষয়গুলো পর্যালোচনা করে দেশের ক্রীড়াঙ্গনের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করবে। বিওএর এজিএমে স্বাধীন-বাংলা ফুটবল দেলর এনায়েতুর রহমান খানসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। বিওএ’র বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটির মেয়াদ শেষ। কয়েক দিনের মধ্যেই নতুন কমিটি দায়িত্ব নেবে। মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজার নেতৃত্বাধীন কমিটি প্রাথমিকভাবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হবেন ১৮ ডিসেম্বর। সরকারীভাবে যা ঘোষণা করার দিনক্ষণ রয়েছে ২২ ডিসেম্বর।