ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের সেরা দলকেই পাকিস্তানে পাঠাতে হবে, হুঁশিয়ারি রিয়াজের

নিউজ ডেস্ক

২২ জানুয়ারী ২০২২, সকাল ৬:৭ সময়

[ inshot_20220122_111336797 ]
সম্পাদিত ছবি
চলতি বছরেই পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে পাকিস্তান সফরে যাবে ক্রিকেটের দুই পরাশক্তি অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ড। তবে সেই সফরগুলোতে দল দুটির পূর্ণশক্তির দল পাঠানো হবে কিনা, তা নিয়ে আছে যথেষ্ট সংশয়। তবে পাকিস্তানের মাটিতে আসন্ন সেই দুটি সিরিজে সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের সেরা দলকেই পাঠাতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ওয়াহাব রিয়াজ। পাকিস্তানের তারকা পেসারের দাবি সাম্প্রতিক সময়ে তাদের বিরুদ্ধে পূর্ণশক্তির দল নিয়ে মাঠে নামছে না প্রতিপক্ষ। যার ফলে পাকিস্তানের তরুণ ক্রিকেটারদের অগ্রগতি বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। কেননা, তারা মানসম্পন্ন খেলোয়াড়দের মুখোমুখি হতে পারছে না। পাকিস্তানের স্বনামধন্য সংবাদমাধ্যম 'ক্রিকেট পাকিস্তান' কে দেওয়া এক একান্ত সাক্ষাৎকারে এ প্রসঙ্গে পাকিস্তানের বাঁহাতি পেসার বলেন, "ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ার উচিত তাদের প্রকৃত বিশেষজ্ঞ দলকেই পাকিস্তান সফরে পাঠানো, যেই দলটি সম্প্রতি শেষ হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও অংশ নিয়েছিল। সাম্প্রতিক সময়ে এটি একটি সাধারণ ঘটনা হয়ে দাড়িয়েছে; যখনই আমরা কোথাও খেলতে যাই বা কোনো দল পাকিস্তানে আসে, তারা কখনই পূর্ণ শক্তির দল হয় না।” [caption id="attachment_43967" align="aligncenter" width="900"]আরব আমিরাতে খেলে কপাল পুড়েছে পাকিস্তানি পেসারদেরঃ রিয়াজ ওয়াহাব রিয়াজ (ছবিঃ এএফপি)[/caption] অবশ্য অপেক্ষাকৃত দুর্বল দলের বিপক্ষে খেলার কিছু সুবিধাও আছে বলে মনে করেন ওয়াহাব রিয়াজ। তবু কঠিন পরিস্থিতিতে কঠিন প্রতিপক্ষের মুখোমুখি হয়ে নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চর্চার অভাবে নিজের দেশের ক্রিকেটারদের অগ্রগতি বাধাগ্রস্ত হওয়ার হতাশাই ফুটে উঠেছে বাঁহাতি পেসারের কন্ঠে। তিনি বলেন, "যেহেতু এই সফরগুলো এখনও প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট, তাই দুর্বল দলগুলির মুখোমুখি হওয়া আপনাকে একটি সুবিধা দেয়৷ তবে, এটি একটি সমস্যাও হয়ে দাড়ায়, কারণ তখন আমাদের খেলোয়াড়রা পূর্ণ শক্তির দলগুলির মুখোমুখি হতে অভ্যস্ত হয় না এবং আমাদের শেখার প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হয়।" উল্লেখ্য, ১৯৯৮ সালের পর দীর্ঘ ২৪ বছর বাদে আগামী মার্চে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে পাকিস্তান সফরে যাবে অস্ট্রেলিয়া। যেখানে ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অন্তর্ভুক্ত তিন ম্যাচ সিরিজের টেস্ট সিরিজ সবার আগে মাঠে গড়াবে। এরপর আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগের অন্তর্ভুক্ত তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলবে দুইদল এবং সর্বশেষ একটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়া। আর বছরের মাঝামাঝি পাকিস্তান সফরে যাওয়ার কথা রয়েছে ইংল্যান্ডের।