ফুটবল > বাংলাদেশ ফুটবল

ক্যাবরেরার সঙ্গে টিম হিসেবে কাজ করতে চান কায়সার ও বিপ্লব

নিউজ ডেস্ক

২৩ জানুয়ারী ২০২২, দুপুর ১২:২০ সময়

গত ১৯ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিক ভাবে বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব বুঝে নিয়েছেন স্প্যানিশ হ্যাভিয়ের ক্যাবরেরা। তার সহকারী কারা কারা থাকছেন সেটা নিয়ে গুঞ্জন থাকলেও রবিবার আনুষ্ঠানিক ভাবে জানা গেছে তাদের নাম। সহকারী কোচ হিসেবে থাকছেন এর আগেও জাতীয় দলের সঙ্গে কাজ করা মাসুদ কায়সার এবং গোলরক্ষক কোচ হিসেবে প্রথমবারের মত পূর্ণাঙ্গ দায়িত্ব পাওয়া বিপ্লব ভট্টাচার্য। এর আগে কাজ করা কোচেরা কোচিং স্টাফে বিদেশিদের উপর নির্ভর থাকলেও ক্যাবরেরার ভরসা দেশিদের উপরেই। জানুয়ারির ফিফা উইন্ডোতে ম্যাচ খেলতে না পারলেও বাফুফের প্রত্যাশা মার্চের উইন্ডোতে ম্যাচ খেলবে জামাল-তারিকরা। এর আগে ৩ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া প্রিমিয়ার লিগেই চোখ রাখতে হচ্ছে নতুন কোচ হ্যাভিয়ের ক্যাবরেরাকে। আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব নেওয়ার দিন ঘোষণা দিয়েছিলেন ক্লাবে ক্লাবে ঘুরে ফুটবলারদের অনুশীলন দেখবেন তিনি। সেই ধারাবাহিকতায় ইতোমধ্যে আবাহনী লিমিটেডের অনুশীলন দেখেছেন নতুন এই কোচ। সোমবার উত্তর বারিধারা ও মঙ্গলবার যাবেন সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের অনুশীলন দেখতে। এদিকে জাতীয় দলে সহকারী কোচ মাসুদ কায়সার এবং গোলরক্ষক কোচ হিসেবে বিপ্লব ভট্টাচার্যকে পাচ্ছেন ক্যাবরেরা। এই স্প্যানিয়ার্ডের চাওয়া ছিল দেশের ঘরোয়া ফুটবল সম্পর্কে খুব ভাল জানেন এমন কোনো কোচ। তেমনটাই পেয়ে জানালেন, "বিপ্লব এবং কায়সার বিগত বছর গুলো থেকেই দেশের ফুটবলকে দেখে আসছে। আমি তাদের সাথে ঠিক মতো আলোচনা করে সব কিছু ঠিক করবো।" এদিকে হ্যাভিয়ের ক্যাবরেরার সঙ্গে একটা টিম হিসেবে কাজ করতে চান সহকারী কোচ মাসুদ কায়সার। ফুটবলারদের উন্নতি এবং পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা যেনো থাকে সেদিক নিয়ে কাজ করার কথা ব্যক্ত করলেন তিনি। "একটা টিম হয়ে যাতে আমরা কাজ করতে পারি। প্রিমিয়ার লিগে ফুটবলারদের স্কাউটিং করবো। মার্চে ফিফা উইন্ডোর আগে কিভাবে প্রস্তুতি নিবো এবং ফুটবলারদের পারফরম্যান্স যেন এক জায়গায় স্থির না থাকে বরং তারা যেন আরো উন্নতি করতে পারে সেটা নিয়ে কাজ করবো। ফুটবলাররা যেন বুঝতে পারে আমরা কোন লক্ষ্যে কাজ করছি। তবে সব যেন এক সূত্রে গাঁথা হয় এবং চাওয়াটা যেন একই হয় সেসব নিয়ে কোচের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।" মাসুদ কায়সারের মত বিপ্লব ভট্টাচার্যও প্রধান কোচের নির্দেশনা মতাবেক এবং টিম হিসেবে কাজ করতে মুখিয়ে আছেন। তার মতে জাতীয় দল হচ্ছে একটি পরিবার। তাই সবার মধ্যে সমন্বয় থাকা আবশ্যক। "জাতীয় দল হচ্ছে একটি পরিবার। আমি মনে করি 'পরিবার' তখনই স্বার্থক হবে যখন সবার মাঝেই সমন্বয় থাকবে। কোচের পরিকল্পনা বুঝতে হবে এবং তার দর্শন নিয়েই আমরা চলবো।" শুধু জাতীয় দল নয়, বয়সভিত্তিক দলের গোলরক্ষকদের নিয়েও কাজ করতে চান বিপ্লব ভট্টাচার্য। যারা পারফরম্যান্স করবে তাদেরকেই জাতীয় দলে সুযোগ করে দিতে চান তিনি। এছাড়া প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলোর গোলরক্ষকদের নিয়ে আলাদা ভাবে কাজ করতে চান তিনি। সে লক্ষ্যে ইতোমধ্যে বাফুফের মাধ্যমে ক্লাব গুলোর নিকট চিঠি পাঠিয়েছেন। যাতে ভবিষ্যতের জন্য ভাল মানের গোলরক্ষক বের করে আনতে পারেন তিনি।