ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

জয়ে ফিরে সবার আগে ‘ট্রিপল সেঞ্চুরি’ ইউনাইটেডের

নিউজ ডেস্ক

২০ জানুয়ারী ২০২২, সকাল ৪:৫২ সময়

[ screenshot_20220120-105051_twitter ]
ছবিঃ টুইটার
নতুন কোচ রালফ র‌্যাঙ্গনিকের অধীনে শুরুটা বেশ করেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। জার্মান কোচ এর অধীনে প্রথম চার ম্যাচ তিন জয়ে নিজেদের খুঁজে পেয়েছিল যেন দলটি। তবে, রেড ডেভিলরা নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের বিপক্ষে হোঁচট খাওয়ার পরই দৃশ্যপট বদলে যাওয়া শুরু করে। পরের দুই ম্যাচেই পয়েন্ট হারিয়েছে ইউনাইটেড। তার মধ্যে উলভসের বিপক্ষে পেয়েছে হারের তিক্ত স্বাদও। প্রিমিয়ার লিগে টানা তিন ম্যাচ জিততে না পারা রালফ র‌্যাঙ্গনিকের দল জয়ে ফিরেছে। ব্রেন্টফোর্ডের বিপক্ষে ম্যাচের শুরুতে কিছুটা ছন্নছাড়া হলেও শেষ পর্যন্ত বেশ ঘুরে দাড়িয়েছে দলটি। প্রতিপক্ষের মাঠে জয়ে ফিরেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে সবার আগে জয়ের ‘ট্রিপল সেঞ্চুরি’ করল রেড ডেভিলরা। [caption id="attachment_63141" align="aligncenter" width="1080"] ছবিঃ টুইটার[/caption] গতকাল (বুধবার) রাতে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। রালফ র‌্যাঙ্গনিকের দলের হয়ে গোল তিনটি করেছেন অ্যান্থনি ইয়েলাংয়া, ম্যাসন গ্রিনউড ও মার্কোস রাশফোর্ড। অন্য দিকে স্বাগতিকদের ব্রেন্টফোর্ডের একমাত্র করেছেন ইভান টনি। লিগে জয়ে ফিরতে মরিয়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড প্রতিপক্ষের মাঠে বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে ছিল। গোটা ম্যাচে ৫৭ শতাংশ বল নিজেদের পায়ে রাখে দলটি। যদিও গোলমুখে শটের ক্ষেত্রে ব্রেন্টফোর্ডেরই দাপট ছিল। পুরো ম্যাচে গোলমুখে ১৮টি শট নিয়ে ৮টিই লক্ষ্যে রাখে স্বাগতিকরা; ইউনাইটেড ১৩ শটে লক্ষ্যে রাখতে পেরেছে ৫টি। নিজেদের মাঠে ১২তম মিনিটেই গোল করার সুযোগ পায় ব্রেন্টফোর্ড৷ রায়ান এমবামোর শট ঠেকিয়ে রেড ডেভিলদের বাঁচান ডি হেয়া। পরের দুই মিনিটে দুইটি কর্নার পেয়েছিল দলটি; কিন্তু ব্রেন্টফোর্ড তা কাজে লাগাতে পারেনি। ম্যাচের শুরু থেকে ছন্নছাড়া রালফ র‌্যাঙ্গনিকের শিষ্যরা ২৫তম মিনিটে প্রথম সুযোগ পায়। তবে,পর্তুগিজ তরুণ ডিফেন্ডার দিয়োগো দালোতের দূরপাল্লা শট গোলপোষ্ট বাহিরে চলে যায়। ৩৩তম মিনিটে ফের সফরকারীদের বাঁচান গোলরক্ষক ডি হেয়া। ওয়ান-অন-ওয়ানে ইয়েনসেনের শট দারুন দক্ষতায় ঠেকান স্প্যানিশ এই গোলরক্ষক। প্রথমার্ধে বাকি সময় আর কেউই বলার মতো সুযোগ করতে পারেনি। [caption id="attachment_63142" align="alignnone" width="2048"] ছবিঃ টুইটার[/caption] বিরতির পর নিজেদের মেলে ধরার চেষ্টা করে ম্যান ইউনাইটেড। প্রথমার্ধে গোটা সময় নিজের ছায়া হয়ে থাকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর হেড ক্রসবারে লাগে। খানিক পরই রেড ডেভিলরা গোলের দেখা পেয়ে যায়। ৫৫তম মিনিটে ফ্রেডের পাস থেকে ইউনাইটেডকে এগিয়ে দেন সুইডেনের তরুণ ফরোয়ার্ড ইয়েলাংয়া। ৬২তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ান ম্যাসন গ্রিনউড। ব্রুনো ফার্নান্দেজের দারুণ পাসে ফাঁকা জালে বল পাঠান ২০ বছর বয়সী এই ইংলিশ ফরোয়ার্ড। ৭১তম মিনিটে দুই ম্যাচ পর ফেরা রোনালদোকে তুলে নেন ইউনাইটেড কোচ। এতে কিছুটা ক্ষুব্ধ হতে দেখা যায় পর্তুগিজ এই মহাতারকাকে। ৭৭তম মিনিটে রেড ডেভিলদের জয় অনেকটা নিশ্চিত করে ফেলেন মার্কোস রাশফোর্ড। ব্রুনো ফার্নান্দেজের পাস ডি-বক্সে পেয়ে জোরাল শটে কাছের পোস্ট দিয়ে স্কোরলাইন ৩-০ করেন তরুণ ইংলিশ এই ফরোয়ার্ড। ৮৫তম মিনিটে ইভান টনি ব্রেন্টফোর্ডের হয়ে এক গোল করলেও তা হার এড়ানোর জন্য যথেষ্ট ছিল না। ফলে ৩-১ গোলের জয়েই মাঠ ছাড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। [caption id="attachment_63143" align="aligncenter" width="2048"] ছবিঃ টুইটার[/caption] এই জয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ৩০০তম জয় পেল রেড ডেভিলরা। ইউনাইটেডের পরে লিগে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ চেলসি জয় পেয়েছে ২৫৯টি। তারপর আছে যথাক্রমে: আর্সেনাল (২৪৬), লিভারপুল (২৩৯) ও ম্যানচেস্টার সিটি (১৮৮)। টানা তিন ম্যাচ পর জয়ে ফিরে ২১ ম্যাচে ১০ জয় ও পাঁচ ড্রয়ে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে ইউনাইটেড। ১৪ নম্বরে ব্রেন্টফোর্ডের পয়েন্ট ২৩, ২২ ম্যাচে। ২২ ম্যাচে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ম্যানচেস্টার সিটি। এক ম্যাচ কম খেলে লিভারপুল ৪৫ পয়েন্ট নিয়ে আছে দ্বিতীয় স্থানে।