ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

ভারতকে পাত্তা না দিয়ে ওয়ানডে সিরিজও জিতে নিলো দক্ষিণ আফ্রিকা

নিউজ ডেস্ক

২২ জানুয়ারী ২০২২, রাত ২:২৮ সময়

[ 20220122_082129 ]
ছবি - আইসিসি
প্রথম ওয়ানডেতে ৩১ রানে হারের পর পার্লে পাত্তাই পায়নি ভারত, ৩ ম্যাচ সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডে হারের ফলে টেস্টের পর ওয়ানডে সিরিজেও হার নিশ্চিত হলো দক্ষিণ আফ্রিকার। ভারতের দেওয়া ২৮৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ১১ বল আর ৭ উইকেট হাতে রেখে জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। রান তাড়া করতে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকার জয়ের ভিত্তি গড়ে দেন দুই ওপেনার কুইন্টন ডি কক ও জানেমান মালান, আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ভারতীয় বোলারদের কোণঠাসা করে ফেলেন দুজন। ৩৬ বলে ফিফটি তুলে নেন ডি কক, ১৬তম ওভারেই প্রোটিয়াদের স্কোর ১০০ পেরিয়ে যায়, ফিফটি পান আরেক ওপেনার মালানও। ৬৬ বলে ৭ চার ও ৩ ছক্কায় ৭৮ রান করা কুইন্টন ডি কককে লেগ-বিফোরের ফাঁদে ফেলে ভারতকে স্বস্তি এনে দেন শার্দুল ঠাকুর, প্রথমে অবশ্য আউট দেননি মাঠের আম্পায়ার, রিভিউ নিয়ে প্রথম উইকেটের দেখা পায় ভারত। অধিনায়ক টেম্বা বাভুমাকে নিয়ে ভারতকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন মালান, যদিও ৯ রানের জন্য সেঞ্চুরি বঞ্চিত হয়েছেন ডানহাতি এই ওপেনার। [caption id="attachment_63362" align="aligncenter" width="2560"] ছবি - সংগৃহীত[/caption] মালান-বাভুমার ৮০ রানের জুটি ভাঙেন জাসপ্রিত বুমরাহ, ১০৮ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৯১ রানের দারুণ ও আক্ষেপ ছড়ানো ইনিংস খেলেন জানেমান মালান। বাভুমা ৩৫ রান করে যুজবেন্দ্র চাহালের ফিরতি ক্যাচ হয়ে ফিরলেও দক্ষিণ আফ্রিকার জয় নিশ্চিত করেন এইডেন মার্করাম ও প্রথম ম্যাচের নায়ক রাসি ভ্যান ডার ডাসেন। দক্ষিণ আফ্রিকা খুব সহজেই ১১ বল হাতে রেখে ভারতের দেওয়া লক্ষ্য পেরিয়ে যায়, ৭ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা। এই জয়ে ৩ ম্যাচের সিরিজে ২-০ তে এগিয়ে গেলো ভারত, এইডেন মার্করাম ও রাসি ভ্যান ডার ডাসেন দুজনেই ৩৭ রান করে অপরাজিত থাকেন। [caption id="attachment_63363" align="aligncenter" width="2560"] ছবি - সংগৃহীত[/caption] এর আগে ম্যাচের শুরুতে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো পায় ভারতও, দুই ওপেনার লোকেশ রাহুল ও শেখর ধাওয়ান দলকে ৬৩ রানের উদ্বোধনী জুটি এনে দেন। ধাওয়ানের ব্যাট থেকে আসে ৩৮ বলে ২৯ রানের ইনিংস, ভিরাট কোহলিকে শূন্য হাতে ফেরান কেশব মেহরাজ। ১ রানের ব্যবধানে ২ উইকেট হারালেও রিশাভ পান্তকে নিয়ে ভারতকে বড় স্কোরের পথে এগিয়ে নেন লোকেশ রাহুল, ৫৫ রান করা রাহুলের বিদায়ে ভাঙে ১১৫ রানের তৃতীয় উইকেট জুটি। দারুণ ব্যাট করা পান্ত ৭১ বলে ১০ চার ও ২ ছক্কায় ৮৫ রানে আউট হলে বড় ধাক্কা খায় ভারত, শ্রেয়াস আয়ার ও ভেঙ্কটেশ আয়ার দ্রুত ফিরলে আরও বিপদেই পড়ে দলটি। [caption id="attachment_63365" align="aligncenter" width="2193"] ছবি - সংগৃহীত[/caption] ২৩৯ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলা ভারতকে লড়াইয়ের পুঁজি এনে দেন অফ-স্পিনিং অলরাউন্ডার রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও অলরাউন্ডার বনে যাওয়া শার্দুল ঠাকুর। ৭ম উইকেটে দুজনে গড়েন হার না মানা ৩৭ বলে ৪৮ রানের জুটি, নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ২৮৭ রানের সংগ্রহ পায় ভারত। শার্দুল ৩৮ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় ৪০ ও অশ্বিন ২৪ বলে ২৫ রানে অপরাজিত থাকেন, অতিরিক্ত থেকে আসে ২০ রান। দক্ষিণ আফ্রিকান স্পিনার তাবরাইজ শামসি ৫৭ রান দিয়ে নেন ২ উইকেট, ১টি করে উইকেট পেয়েছেন সিসান্দা মালাগা, এইডেন মার্করাম, কেশব মেহরাজ ও অ্যান্দিলে ফেহলেকুয়ায়ো।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত ২৮৭/৬, ৫০ ওভার; (রিশাভ পান্ত ৮৫, লোকেশ রাহুল ৫৫, শার্দুল ঠাকুর ৪০*, শেখর ধাওয়ান ২৯, রবিচন্দ্রন অশ্বিন ২৫*, তাবরাইজ শামসি ২/৫৭)। দক্ষিণ আফ্রিকা ২৮৮/৩, ৪৮.১ ওভার; (জানেমান মালান ৯১, কুইন্টন ডি কক ৭৮, এইডেন মার্করাম ৩৭*, রাসি ভ্যান ডার ডাসেন ৩৭*, টেম্বা বাভুমা ৩৫, শার্দুল ঠাকুর ১/৩৫, জাসপ্রিত বুমরাহ ১/৩৭)। ফলাফল: দক্ষিণ আফ্রিকা ৭ উইকেটে জয়ী। ম্যাচ সেরা: কুইন্টন ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা)।