ফুটবল > বাংলাদেশ ফুটবল

প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে নিজেদের লক্ষ্যের কথা জানালেন জামাল, রবসন, জীবনরা

নিউজ ডেস্ক

৩০ জানুয়ারী ২০২২, দুপুর ২:১ সময়

রবিবার রাজধানীর একটি হোটেলে উন্মোচিত হয়ে গেল ২০২১-২২ মৌসুমের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের লোগো। লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে এসেছিলেন ১২ ক্লাবের ১২ অধিনায়ক। ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে যাওয়া প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে অধিনায়কেরা জানিয়েছেন নিজেদের লক্ষ্যের কথা। গত দুই মৌসুমে লিগ শিরোপা জেতা বসুন্ধরা কিংসের সামনে হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের সুযোগ। দলটির অধিনায়ক ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসন রবিনহো জানালেন শিরোপা ধরে রাখতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন তারা। "এখানে (বাংলাদেশে) খেলতে পেরে আমি খুবই খুশি। কিংসে খেলতে পেরে খুশি। ব্রাজিলে থাকা পরিবার ও বন্ধুরাও খুশি। আমরা একটা কাপ (স্বাধীনতা কাপ) মিস করেছি, এটা কোনো ব্যাপার নয়। এটাই ফুটবল। কখনও জিতবো, কখনও হারবো। কিন্তু আমরা চেষ্টা করবো লিগ জয়ের।" ২০২১-২২ মৌসুমে স্বাধীনতা কাপ ও ফেডারেশন কাপ জেতা আবাহনীর আত্মবিশ্বাস এখন তুঙ্গে। রাফায়েল অগাস্তো ইঞ্জুরিতে থাকায় লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে এসেছিলেন নাবীব নেওয়াজ জীবন। জাতীয় দলের এই ফরোয়ার্ড প্রতিশ্রুতি দিলেন ২০১৭-১৮ মৌসুমে হারানো লিগের মুকুট পুনরুদ্ধারের। "আমরা লিগের জন্য ভালো প্রস্তুতি নিয়েছি। যদিও সহজ নয়, তবে আমরা শিরোপার জন্য খেলবো এবং আশা করি শিরোপা জিতবো।" গত আসরে চতুর্থ হওয়া সাইফ স্পোর্টিং এখনো জিতেনি কোনো শিরোপা। ২০১৭ সাল থেকে সাইফের জার্সিতে খেলে কোনো শিরোপা জিতিয়ে আনতে পারেনি জামাল ভুইয়াই। তবে এবার শিরোপা জিততে সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে চান তিনি। "আমি জিতলে খুশি হই, হারটাও মেনে নিতে পারি। অবশ্যই আমরা এ বছর লিগ জয়ের চেষ্টা করবো। যদিও সেটা কঠিন। সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেছে ৫-৭টা দল শিরোপার জন্য লড়বে। তো লিগ খুবই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। তবে আমরা লিগ জয়ের সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো।" গত মৌসুমের লিগে বসুন্ধরা কিংসকে বেশ খানিকটা চাপে রেখেছিল শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব। ওই পথচলায় ১০ গোল করেছিলেন দলটির অধিনায়ক সলোমন কিং। এবার দলীয়ভাবে আরও বেশি গোল করে তিনি পৌঁছুতে চান অভীষ্ঠ লক্ষে। "ব্যক্তিগতভাবে আমি গোল করতে চাই। কিন্তু দলীয়ভাবে আমরা যত বেশি গোল করবো, দলের জন্য সেটা আরও ভালো। আশা করি, আমরা ব্যক্তিগতর চেয়ে দলীয়ভাবে আরও বেশি গোল করবো লিগে।" ২০০৭ সালে প্রিমিয়ার লিগ নামকরণের পর এখনও এই ট্রফি উঁচিয়ে ধরা হয়নি মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের। খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে চলা দলটির অধিনায়ক সুলেমানে দিয়াবাতে এবারও তেমন কোনো স্বপ্ন দেখালেন না সমর্থকদের। "আশা করি, মোহামেডানে ভালো করবে। সেরা চারে থেকে লিগ শেষ করতে চাই আমরা। লিগে অনেক ভালো দল আছে, তদের ভালো খেলোয়াড় আছে।" পুরান ঢাকার দল রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস অ্যান্ড সোসাইটি গত লিগে হয়েছিল অষ্টম। তবে সবশেষ ফেডারেশন কাপের ফাইনালে খেলেছে তারা। এটা যে ‘আলৌকিক’ কিছু নয়, লিগে তা প্রমাণে দল মরিয়া থাকবে বলে জানালেন অধিনায়ক মাহমুদুল হাসান কিরণ। মজা করলেন পুরান ঢাকার খাওয়া-দাওয়া নিয়েও। "সবকিছুতেই চ্যালেঞ্জ। আমরা কঠোর পরিশ্রম দিয়ে প্রমাণ করতে চাই (ফেডারেশন কাপের ফাইনাল খেলা) এটা মিরাকল নয়। পুরান ঢাকার খাবারের লোভ…শুধু বিরিয়ানি খাওয়ার কারণে পেট বেড়ে গিয়েছিল। এগুলো তো ক্লাব করে না, আমরা ব্যক্তিগতভাবে করি। তো ব্যক্তিগতভাবে আমরা চাইলেই এই অভ্যাস নিয়ন্ত্রণ করতে পারি। এখন করছি।" পঞ্চম স্থানে থেকে গত লিগ শেষ করা চট্টগ্রাম আবাহনী অধিনায়ক কৌশিক বড়ুয়া সমর্থকদের জানালেন প্রিমিয়ার লিগ দেখার আমন্ত্রণ। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রের জাপানি অধিনায়ক তেতসুয়াকি মিসুয়া ঢাকায় এসে কাচ্চি বিরিয়ানির প্রতি মুগ্ধতা জানাতে গিয়ে বললেন, “আই লাইক কাচ্চি বিরিয়ানি।” লিগের খেলোয়াড়দের খাদ্যাভাস প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে অভিজ্ঞ গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা টেনে আনলেন জাতীয় দলের ‘ছুটিতে’ থাকা কোচ জেমি ডে'কে। শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের অধিনায়ক প্রসংশায় ভাসালেন ইংলিশ কোচের। "আসলে জেমি আসার পর থেকে আমাদের কিছু পরিবর্তন এসেছে। আমাদের বাঙালি প্লেয়ারদের খাবারের প্রতি দুর্বলতা আছে। ওর মাধ্যমে শিখেছি আমরা কিভাবে ফিটনেস ভালো রাখতে পারবো…ওর সময় থেকে আমাদের ফিটনেসের উন্নতি হয়েছে। এটা শুধু জাতীয় দলের নয়, ক্লাব ফুটবলারদেরও।" গত লিগে পুলিশ এফসি হয়েছিল নবম; কোনোমতে অবনমন এড়িয়েছিল উত্তর বারিধারা। এবারই লিগে প্রথম খেলবে স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘ। এই তিন দলের অধিনায়কের চাওয়া উন্নতি করা কিংবা লড়াকু ফুটবল উপহার দেওয়া। পুলিশ এফসির অধিনায়ক ব্রাজিলিয়ান দানিলো অগাস্তো বললেন, "বাংলাদেশ পুলিশের হয়ে খেলতে পেরে আমি খুশি। বাফুফেকে ধন্যবাদ এই লিগ আয়োজনের জন্য। আমরা চেষ্টা করবো ভালো করার, লড়াই করার।" উত্তর বারিধারা অধিনায়ক জুয়েল জানালেন উন্নতির আশাবাদ। "আমাদের তেমন কোনো প্রেসার নেই। গতবার আমরা অনবমন এড়িয়ে ভালো পর্যায়ে আছি। এবার লক্ষ্য থাকবে ভালো খেলে ৬-৭ এ থাকার।" প্রথমবারের মতো লিগে খেলা স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘের অধিনায়ক সজল ইসলাম জানালেন নির্ভার থেকে লড়াকু ফুটবল খেলার লক্ষ্য। "আমি তেমন কোনো চাপ নিচ্ছি না। প্রতিপক্ষ যেই হোক খেলতে হবে। এটাই আমাদের মানসিকতা।" আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে চারটি ভেন্যুতে মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল।