ক্রিকেট > ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট

আইপিএলের গ্রুপিং চূড়ান্ত, জটিল নিয়মে প্রতিপক্ষ নির্ধারণ

দুইটি গ্রুপে ৫টি করে দল থাকলেও প্রতিটি দল খেলবে ১৪টি করে ম্যাচ।

ডেস্ক রিপোর্ট

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২, দুপুর ১১:৪ সময়

[ Capture-37.webp ]
ইন্টারনেট

২০১১ সালের পর আইপিএলে আবারও ফিরছে গ্রুপিং পদ্ধতি, তবে স্বাভাবিক নিয়মে মুখোমুখি হচ্ছে না গ্রুপিংয়ের দলগুলো। একই গ্রুপের দল হওয়া সত্ত্বেও সব দল সবার সাথে একই নিয়মে মুখোমুখি হবে না, কোন দল একে অপরের বিপক্ষে ১ বার, আবার কোন দল ২ বার মুখোমুখি হবে।

জটিল এই নিয়মেই অনুষ্ঠিত হবে আইপিএলের ১৫তম আসর, সর্বশেষ আসরে ৮ দল অংশ নিলেও এবার তার সাথে যুক্ত হচ্ছে নতুন দুইটি দল। মোট দলের সংখ্যা ১০টি হলেও আগের মতোই প্রতিটি দলকে বাড়তি ম্যাচ খেলতে হচ্ছে না, অর্থাৎ প্রতিটি ১৪টি করেই ম্যাচ খেলবে। ১০টি দলকে আলাদা দুইটি গ্রুপে ভাগ করে ফেলা হয়েছে। 

গ্রুপ ‘এ’ তে রাখা হয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ানস, কলকাতা নাইট রাইডার্স, রাজস্থান রয়্যালস, দিল্লি ক্যাপিটালস ও লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টসকে। গ্রুপ ‘বি’ তে আইপিএলের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সফল দল চেন্নাই সুপার কিংস, সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর, পাঞ্জাব কিংস ও গুজরাট টাইটানস।

গ্রুপিং পদ্ধতিতে প্রতিটি গ্রুপে ৫ করে দল থাকলেও গ্রুপ পর্বে প্রতিটি দল ১৪টি করে ম্যাচ খেলবে, যার মধ্যে ৭টি হোম ও বাকি ৭টি ম্যাচ হবে অ্যাওয়েতে। গ্রুপ পর্বে অনুষ্ঠিত হবে ৭০টি ম্যাচ, ২৬ মার্চ থেকে শুরু হবে এবারের আইপিএলের খেলা, টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ২৯ মে।

গ্রুপ পর্বে প্রতিটি দল ৫টি দলের বিপক্ষে দুইবার করে একে অপরের হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলবে, এই ৫ দলের ৪টি হবে নিজ গ্রুপের। বাকি হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ম্যাচটি খেলবে অপর গ্রুপের বরাবর থাকা দলটি, অর্থাৎ এ গ্রুপে সেরা দল মুম্বাই মুখোমুখি হবে গ্রুপ বি’র সেরা দল চেন্নাইয়ের। 

এভাবে প্রতিটি দল নিজ গ্রুপের ৪ দলের বিপক্ষে দুইবার করে ৮ ও বাকি গ্রুপের বরাবর দলের বিপক্ষে দুইবার ও বাকিদের সাথে ১ বার করে মোট ৬ ম্যাচে মুখোমুখি হবে। প্রতিটি দল ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম ও ডিওয়াই পাতিল স্পোর্টস অ্যাসোসিয়েশনের মাঠে খেলবে ৪টি করে ম্যাচ। 

বাকি ৬ ম্যাচের ৩টি করে খেলবে ব্রেবোর্ন ও পুনের এমসিএ স্টেডিয়ামে। 

দুই গ্রুপের দলগুলো (ট্রফি জয়ের হিসেবে অনুযায়ী):

গ্রুপ ‘এ’ 

১৷ মুম্বাই ইন্ডিয়ানস
৩৷ কলকাতা নাইট রাইডার্স
৫৷ রাজস্থান রয়্যালস
৭৷ দিল্লি ক্যাপিটালস 
৯৷ লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস

গ্রুপ ‘বি’

২৷ চেন্নাই সুপার কিংস 
৪৷ সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ
৬৷ রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর
৮৷ পাঞ্জাব কিংস 
১০৷ গুজরাট টাইটানস