ফুটবল > বাংলাদেশ ফুটবল

টঙ্গী স্টোডিয়াম ‘জবরদখল’ করেছে ফুটবল, ক্ষেপেছেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক

৮ ফেব্রুয়ারি ২০২২, সকাল ৮:২২ সময়

[ prothomalo-bangla_2022-02_c8fc149a-a5d7-42af-8db9-489116c4b495_whatsapp_image_2022_02_07_at_17_12_22 ]
ছবি - সংগৃহীত
টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ স্টেডিয়াম শুধু আর্চারির জন্যই বরাদ্দ করেছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। আর্চারি ফেডারেশন ভেন্যু পেয়ে খেলার উন্নতি ঘটিয়েছে অনেক। রোমান সানা নিজের জায়গায় ইতোমধ্যে টোকিও অলিম্পিকেও অংশগ্রহণ করেছেন। যা বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনের বিশেষ এক অর্জন। তবে এশিয়ান গেমস, এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপের মতো প্রতিযোগিতা সামনে রেখে যখন মাত্র প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন রোমান সানা, দিয়া সিদ্দিকীরা; ঠিক তখন এখানে এসে বাগড়া দিয়েছে বাফুফে। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের আয়োজনের জন্য আর্চারদের প্রস্তুতি বন্ধ করে দিয়েছে ফুটবল ফেডারেশন। তীরন্দাজদের প্রস্তুতি বন্ধ করে এখন সেখানেই হচ্ছে বিপিএল ফুটবল। যা নিয়ে দেশের ক্রীড়াঙ্গনে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। এবার তা নিয়ে মুখ খুলেছেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীও। টঙ্গীর স্টেডিয়াম নিয়ে বাংলাদেশ আর্চারি ফেডারেশনে সঙ্গে বাফুফে সাম্প্রতিক বিরোধ নিয়ে রীতিমতো ক্ষেপেছেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, এমপি। আর্চারি ফেডারেশনের সঙ্গে কোন রকম সমন্বয়ের পথে না হেটে হুট করে আর্চারদের চলা অনুশীলন করতে না দেওয়ায় ফুটবলের উপর ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মন্ত্রী। গতকাল (সোমবার) দুপুরে শেখ রাসেল রোলার স্কেটিং কমপ্লেক্সে এক অনুষ্ঠানে বাফুফের উপর ক্ষোভ উগড়ে দেন মন্ত্রী। তীরন্দাজদের প্রস্তুতি বন্ধ করে দিয়ে ফুটবল ফেডারেশনের এমন কাজকে ‘জবরদখলমূলক’ বলে মনে করেন তিনি। “ফুটবল-আর্চারির মধ্যে যে ঝামেলাটি তৈরি হয়েছে, সেটা কারও কাছে কাম্য ছিল না। চিঠিতে উল্লেখ ছিল আলোচনা করে করবেন। সেটা না করে একপ্রকার জবরদখলের মতো হয়েছে, যে কাজটা সঠিক হয়নি। কারণ আপনারা জানেন বাংলাদেশের যে কয়েকটি খেলা আন্তর্জাতিকভাবে খুব ভাল করছে, তাদের অন্যতম আর্চারি। অবশ্যই এটিকে আমরা ভালোভাবে দেখিনি। ভবিষ্যতে এরকম কর্মকাণ্ড দেখলে তাদের অনুমোদন দেওয়াটাও আমাদের জন্য কষ্টকর হয়ে যাবে।” “দু'পক্ষের সঙ্গে বারবার কথা হয়েছে আমার। শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে কিন্তু এ ধরনের লিগ করার মতো সকল ধরনের সুযোগ সুবিধা নেই। ফুটবলের মতো বড় একটা খেলার জন্য সেখানে ড্রেসিং রুম নেই, সাংবাদিকদের বসার স্থান নেই, সব ধরনের সুযোগ সুবিধা নেই। ভবিষ্যতে হয়তো সুযোগ সুবিধা আমরা করে দিব, যদি অন্যান্য খেলা আয়োজন করতে চাই। তবে যেহেতু এটা আর্চারিকে দেওয়া হয়েছে, এই মাঠে আর্চারিকেই সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেওয়া হবে।”