ফুটবল > আন্তর্জাতিক ফুটবল

‘নতুন মেসি’ পেয়ে গেছে আর্জেন্টিনা

নিউজ ডেস্ক

১২ ফেব্রুয়ারি ২০২২, সকাল ৪:১২ সময়

[ 20220212_095910 ]
ছবিঃ টুইটার
বয়স এখন তার ৩৪ হয়ে গেছে। এই বয়সেই অনেক ফুটবলার নিজেদের বুট-জোড়া তুলেন রাখেন। কেউ কোচ হয়ে ফিরে আসেন কিংবা অন্য কোন পরিচয়ে। কিন্তু, লিওনেল মেসি এখনও দিব্যি খেলে ইযাচ্ছেন। খেলছেন কি, বেশ ভালোভাবেই খেলে যাচ্ছেন। এতটা ভালো খেলছেন যে এই বয়সেও সর্বশেষ দুটো ব্যালন ডি'অর উঠেছে তাঁর হাতেই। তবে, তা আর যাই হোক মেসি এখন ক্যারিয়ারের শেষ পর্যায়েই আছেন তা মেনে নিয়েছেন সবাই। অন্তত তাঁর বয়সও সেটাই বলে। তাহলে লিওনেল মেসির পরবর্তী সময়ে আর্জেন্টিনার হাল ধরবে কে? আকাশী-নীলদের ইতিহাসের সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা, তিন দশকের আক্ষেপ ঘুচিয়ে কোপা আমেরিকা এনে দেওয়া রেকর্ড সাতবারের ব্যালন ডি'অর জয়ীর শূন্যতা পূরণ করবে কে? [caption id="attachment_65728" align="aligncenter" width="990"] ছবিঃ টুইটার[/caption] আগেও বেশ কয়েকবার নতুন মেসির খোঁজ করেছে আর্জেন্টিনা। অনেকে আবার মেসির খেলা সাথে মিলে যাওয়ায় নাম পেয়েছে ‘নতুন মেসি’। কিন্ত, এবার মেসি নামেই এক নতুন মেসি খোঁজ পেল আলবিসেলেস্তেরা। হোয়াকিন সিলভাও মেসি নামে ১৯ বছর বয়সী তরুণ ইতিমধ্যে বেশ নজরও কেড়েছে। লিওনেল মেসি এবং হোয়াকিন মেসি- শুধু নামেই নয়। মেসির সাথে নতুন মেসির মিল আছে বেশ কয়েকটি জায়গায়। শৈশবে লিওনেল মেসি খেলেছেন স্বদেশী ক্লাব নিওয়েলস বয়েজের হয়ে। কদিন আগেও এক সাক্ষাৎকার সাতবারের বর্ষসেরা ফুটবলার জানিয়েছে, ক্যারিয়ারের শেষ মুহুর্তে ক্লাবটির হয়ে খেলতে চান তিনি। মজার বিষয় হলো, হোয়াকিন মেসিও খেলেছেন সেই ক্লাবের হয়ে। শুধু তাই নয়, মেসির সেই আইকনিক ‘১০’ নাম্বর জার্সি গায়েই অনূর্ধ্ব-২০ কোপা লিবার্তাদোরেসে মাতাচ্ছেন এ তরুণ। দুজনের মধ্যে আরও মিল আছে। ১৯৮৭ সালে আর্জেন্টিনার রোজারিওতে এক হতদরিদ্র দম্পতির ঘর আলো করে দুনিয়ায় আসেন লিওনেল মেসি। হোয়াকিন মেসির বাড়ির দূরত্বও বেশি দূর নয়। রোজারিওর পাশের শহর কোরোনেল আরনল্ডে জন্ম- বেড়ে ওঠা হোয়াকিনের। আবার দুজনেই ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে মাত্র আট বছর বয়সে নিউওয়েলসে বয়েজে ভর্তি হোন। দুজনের মধ্যে মিলের এত ছড়াছড়ি থাকলেও বিষয়টি একেবারেই কাকতালীয় বলেন হোয়াকিন মেসি। এমন কি লিওনেল মেসির সাথে তাঁর বড় কোন আত্মীয়তার সম্পর্কও নেই বলেও জানান তিনি। “অনেকেই জিজ্ঞেস করেছে তার (লিও মেসি) সঙ্গে আমার কোনো সম্পর্ক আছে কিনা। এটি কাকতালীয় একটা বিষয়। আমি যেখানে থাকি, সেখানেই আরও তিনটা পরিবার আছে যাদের উপনাম মেসি।” নিজের নামের ব্যাখ্যা দিয়ে হোয়াকিন মেসি বলেন, “পুরো বিশ্বের কাছে এই নামটা পরিচিত হবে, এটাই তো স্বাভাবিক। একই নাম থাকার কারণে এমনটা হয়েই থাকে। আমি একজন ফুটবলার, আর তাই আমার ক্ষেত্রে আরও বেশি হয়েছে। আমি নিওয়েলসে আছি, তার মতোই। ১০ নম্বর জার্সিটাও পরছি।” [caption id="attachment_65730" align="aligncenter" width="803"] ছবিঃ টুইটার[/caption] মেসির সঙ্গে জাতীয় দলে জার্সিতে খেলার স্বপ্ন দেখেন হোয়াকিন। আর এমনটা সত্যি হলে নিজেকে ধন্য মনে করবেন তিনি। “সবচেয়ে আনন্দদায়ক বিষয় হবে, যদি আমি লিওনেলের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পাই। সেই সৌভাগ্য হলে নিজেকে ধন্য মনে করব।” হোয়াকিন অবশ্য ভুল কিছু বলেননি। সারাবিশ্বেই তুমুল জনপ্রিয় নাম লিওনেল মেসি। ২০২০ সালে এক জরিপে দেখা গেছে, কাতালান শহরে মোট জন্ম নেয়া শিশুর মধ্যে ৮.২২ ভাগ ছেলে শিশুর নামই মেসির নামের প্রথমাংশের সঙ্গে মিল রেখে। আর্জেন্টিনায় তো অবস্থা হয়েছে যে, ম্যারাডোনাদের দেশের এক শহরে নতুন কোন শিশুর নাম লিওনেল মেসি রাখা রীতিমতো নিষিদ্ধ!