ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ে টটেনহ্যামের কাছে হেরে ১১২ দিন পর থামলো ম্যানসিটির অজেয় যাত্রা

নিউজ ডেস্ক

১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২২, রাত ৯:৮ সময়

[ 20220220_030501 ]
ছবিঃ টুইটার
শুরুতেই এগিয়ে যায় টটেনহ্যাম হটস্পার। বিরতির ঠিক আগে সমতায় ফিরে ম্যানচেস্টার সিটি। দ্বিতীয়ার্ধে আরেক দফায় লিড নেয় স্পার্সরা। কিন্তু, এবারও সেই লিড ধরে রাখতে পারলো না। অতিরিক্ত সময়ে আবারও সমতায় ফিরে সিটিজেনরা। জমে উঠে খেলা। খানিক পরই আবারও এগিয়ে শেষ পর্যন্ত রুদ্ধশ্বাস ম্যাচটিতে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে টটেনহ্যাম হটস্পার। আজ (শনিবার) ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ৩-২ গোলে জিতেছে টটেনহ্যাম হটস্পার। স্পার্সদের হয়ে জোড়া গোল করেছেন হ্যারি কেইন, আর বাকি গোলটি করেছেন দেজান কুলুসেভস্কি। ম্যানসিটির দুটো গোল করেছেন ইলকাই গিনদোয়ান ও রিয়াদ মাহরেজ। [caption id="attachment_66444" align="aligncenter" width="1350"] ছবিঃ টুইটার[/caption] এই নিয়ে প্রিমিয়ার লিগে টটেনহ্যাম হটস্পারের কাছে চলতি আসরের দুই লেগই হারলো ম্যান সিটি। দুদলের প্রথম পর্বেও স্পার্সদের কাছে হেরেছিল সিটিজেনরা। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ১৫ ম্যাচ পর হারের তিক্ত স্বাদ পেল পেপ গার্দিওলার দল। মাত্র চতুর্থ ক্লাব হিসেবেই প্রিমিয়ার লিগে গার্দিওলার দলের বিপক্ষে দুই লেগই জয়ের দেখা পেল টটেনহ্যাম হটস্পার। ঘরের মাঠে বল দখলের লড়াইয়ে কিংবা গোলমুখে শট নেওয়ার ক্ষেত্রে- সবখানেই এগিয়ে ছিল ম্যানচেস্টার সিটি। গোটা ম্যাচে ৭২ শতাংশ বল নিজেদের পায়ে রাখে দলটি। গোলমুখে ২১ শট নিয়ে লক্ষ্যে রাখে ৪টি। বিপরীতে, অ্যান্টানিও কন্তের দল ৬ শটের মধ্যে ৫টি লক্ষ্যে রাখতে পারে। চ্যাম্পিয়নস লিগে স্পোর্টিং লিসবনকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দেওয়া ম্যানসিটি ঘরের মাঠে কিছু বুঝে উঠার আগেই গোল হজম করে। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে হ্যারি কেনের থ্রু বল ধরে ডান দিক দিয়ে সিটির বক্সে ঢুকেন হিউন মিং সন। সামনে ছিল সিটির দুই ডিফেন্ডার তাই কাট ব্যাক করে বল বাড়িয়ে দেন কুলুসেভস্কির দিকে, ঠান্ডা মাথায় দেখে শুনে বল জালে জড়ান এই সুইডিশ উইঙ্গার। ১৭তম মিনিটে হুয়াও ক্যানসালোর শট অল্পের জন্য ফিরলে সমতায় ফেরা হয়নি ম্যানচেস্টার সিটির। ৪ মিনিট পরই ইলকাই গিনদোয়ানের শট সাইড বারে লেগে ফিরে আসে। ম্যাচের ২৩তম মিনিটে জোয়াও কানসেলোর হাফ ভলি পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়। [caption id="attachment_66445" align="aligncenter" width="2048"] ছবিঃ টুইটার[/caption] অবশেষে ৩৩তম মিনিটে গোলরক্ষকের ভুলে সমতায় ফিরে স্বাগতিকরা। রহিম স্টার্লিংয়ের ক্রস পোস্ট ছেড়ে বের হয়ে এসে লুফে নেওয়ার চেষ্টা করেন হুগো লরিস, কিন্তু কেভিন ডি ব্রুইনের বলের দিকে এগিয়ে যাওয়ায় ঠিক মত ধরতে পারেননি স্পার্স গোলরক্ষক। বল পেয়ে যান গিনদোয়ান। দেখে শুনে স্পার্সের দুই ডিফেন্ডারের মাঝ দিয়ে বল জালে জড়ান এই জার্মান মিডফিল্ডার। প্রথমার্ধের খেলা ১-১ গোলের সমতায় শেষ হয়। বিরতির পর আক্রমণের ধার বাড়ায় ম্যানচেস্টার সিটি। তবে, এবার গোলে দেখা পেয়ে যায় টটেনহ্যাম। ৫৯তম মিনিটে সনের ক্রসে অফসাইডের ফাঁদ এড়িয়ে ৬ গজ বক্সে মুখ থেকে শটে সফরকারীদের এগিয়ে দেন হ্যারি কেইন। জয়ের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছিলো টটেনহ্যাম হটস্পার। [caption id="attachment_66447" align="aligncenter" width="2560"] ছবিঃ টুইটার[/caption] কিন্তু, খেলার সব রোমাঞ্চ বাকি ছিল যেন যোগ করা সময়ের জন্য। যোগ করা সময়ে সমতায় ফিরে ম্যান সিটি। বের্নার্দো সিলভার শট ডি-বক্সে টটেনহ্যামের আর্জেন্টাইন ডিফেন্ডার ক্রিশ্চিয়ান রোমেরোর হাতে লাগলে পেনাল্টি পায় স্বাফতিকরা। সফল স্পটকিকে সিটিজেনদের সমতায় ফেরান রিয়াদ মাহরেজ। খেলা ড্রয়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলো। ঠিক এমন সময় ম্যানসিটির ড্রয়ের স্বপ্ন ভেঙে দেন হ্যারি কেইন। যোগ করা সময়ের পঞ্চম মিনিটে কুলুসেভস্কির ক্রসে হেডে বল জালে পাঠিয়ে সিটির সমর্থকদের স্তব্ধ করে দিয়ে টটেনহ্যামকে উৎসবে ভাসান কেইন। বাকি সময় আর কোন গোল না হলে ৩-২ গোলের জয় নিয়ে বাড়ি ফিরে কন্তের দল। এই নিয়ে সবমিলিয়ে পেপ গার্দিওলার দলকে ছয়বার হারালেন ইতালিয়ান এই কোচ। [caption id="attachment_66446" align="aligncenter" width="828"] ছবিঃ টুইটার[/caption] ম্যানচেস্টার সিটির এই হারে জমে উঠলো প্রিমিয়ার লিগ। শীর্ষে থাকা সিটিজেনদের সাথে পয়েন্ট ব্যবধান ছয়ে নেমে এলো লিভারপুলের। ২৬ ম্যাচে গার্দিওলার দলের পয়েন্ট ৬৩। এক ম্যাচ কম খেলে দুইয়ে থাকা অলরেডদের পয়েন্ট ৫৭। ২৩ ম্যাচে ৩৯ পয়েন্ট নিয়ে সাতে আছে টটেনহ্যাম হটস্পার।