ফুটবল > বাংলাদেশ ফুটবল

দুই লালকার্ডের ম্যাচে শেষ দিকে মোহামেডানকে রুখে দিল শেখ রাসেল

নিউজ ডেস্ক

৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২, দুপুর ১:২১ সময়

[ fb_img_1644066923777 ]
ছবিঃ ফেসবুক
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের নতুন মৌসুমের শুরুটা ভালো হয়নি ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের। আগের দিন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আবাহনী লিমিটেড ব্রাজিলিয়ান তারকা দোরিয়েলতনের একমাত্র গোলে কষ্টার্জিত জয় পেলেও মোহামেডান নিজেদের প্রথম ম্যাচেই হোঁচট খেয়েছে। বাংলাদেশের ক্লাব ফুটবলের অন্যতম সফল দলটি মৌসুমের প্রথম ম্যাচে শুরুতে এগিয়ে থাকলেও শেষ মুহুর্তে শেখ রাসেলের ক্রীড়া চক্রের কাছে পয়েন্ট হারিয়েছে। আজ (শুক্রবার) টঙ্গীর শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে প্রিমিয়ার লিগে ম্যাচটি ১-১ গোলে সমতায় শেষ হয়েছে। ম্যাচে শুরুতে মালির সুলেমান দিয়াবাতে মোহামেডানকে এগিয়ে নেওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধের শেষ দিকে সমতা ফেরান আইজার আখমেতভ। উত্তেজনা ঠাসা ম্যাচটিতে প্রথমার্ধে শেখ রাসেল মোহাম্মদ সাদকে হারিয়ে দশজনের দলে পরিণত হওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে মাসুদ রানাকে হারিয়ে মোহামেডানও দশজনের দলে পরিণত হয়। [caption id="attachment_65050" align="aligncenter" width="1080"] ছবিঃ ফেসবুক[/caption] বাংলাদেশ প্রিমিয়িার লিগ(বিপিএল) ফুটবলে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের বিপক্ষে জয়ের উদ্দেশে খেলতে নেমেছিল ঐতিহ্যবাহী ক্লাব মোহামেডান। ম্যাচের শুরুতে বল দখলে এগিয়ে ছিল তারাই। একের পর এক আক্রমণে ব্যস্ত রাখে প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগ। প্রথমার্ধে মোহামেডানের একচেটিয়া আক্রমণের মাঝে ম্যাচের ২৩তম মিনিটে উত্তেজনা দেখা দেয়। শেখ রাসেলের ডি-বক্সে জটলার মধ্যে বল পেয়ে হেড গোল করে মোহামেডানকে এগিয়ে দেন দিয়াবাতে। মালির এই স্ট্রাইকারের বল গোললাইন থেকে হাত দিয়ে বাঁচানোর চেষ্টা করেন সাদ উদ্দীন। শেখ রাসেল তারকা সেটা পারেননি, উল্টো ডি-বক্সে ইচ্ছাকৃতভাবে বল আটকানোয় লালকার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন তিনি। তবে, প্রথমার্ধে দশজনের শেখ রাসেলকে পেয়েও আর ব্যবধান বাড়াতে পারেনি মোহাম্মদ। বিরতির পর দশজনের দল নিয়েও ম্যাচে ফেরার চেষ্টা চালায় শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। ২০১২-১৩ মৌসুমে ঘরোয়া ট্রেবল জয়ী দলটির আক্রমণে কোণঠাসা হয়ে ৬৭তম মিনিটে বড় ধাক্কা খায় মোহামেডান। [caption id="attachment_65051" align="aligncenter" width="1080"] ছবিঃ ফেসবুক[/caption] বলের নিয়ন্ত্রণ নিতে মাসুদ রানার অনেক উঁচুতে তোলা পা রহমত মিয়ার মাথা ছুঁয়ে গেলে সরাসরি লাল কার্ড দেন রেফারি। শেখ রাসেলের মতো দশজনের দলে পরিণত হয় ব্রেন্ডান লানের দলও। এরপরই ম্যাচ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আক্রমণের ধার বাড়ায় শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। যার ফলশ্রুতিতেই ৮৪তম মিনিটে ডেডলক ভাঙ্গে সাইফুল বারী টিটুর দল। রহমতের কর্নারে হেডে গোল করে শেখ রাসেলকে সমতায় ফেরান কিরগিজস্তানের আখমেতভের। ম্যাচের বাকি সময় আর কোন গোল না হলে ১-১ সমতায় ম্যাচ শেষ হয়। [caption id="attachment_65052" align="aligncenter" width="1080"] ছবিঃ ইন্টারনেট[/caption] এদিকে, দিনের অন্য খেলায় শুরুতে পিচ্ছিয়ে পড়েও জয় পেয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনী। বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লে: মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস অ্যান্ড সোসাইটির বিপক্ষে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ২-১ গোলে জিতেছে চট্টলার দলটি। মুন্সিগঞ্জে শুরুতেই ফিলিপ আজাহরের গোলে পিছিয়ে পড়ে রহমতগঞ্জ। বিরতির পর মাঠে ফিরেই পিটার থ্যাঙ্কগডের গোলে সমতায় ফিরে চট্টগ্রাম আবাহনী। পরে রুবেল মিয়ার গোলে মারুফুল হকের দলের জয় নিশ্চিত হয়।