ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

নিজেকে মেসি-রোনালদোর কাতারে ভাবেন ‘সুপার মারিও’

কোয়ালিটির বিচারে নিজেকে লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর মতোই মনে করেন ইতালিয়ান এই মিডফিল্ডার। স্বীকার করলেন ম্যানচেস্টার সিটি ছেড়ে যাওয়া ‘বড় ভুল’ ছিল।

ডেস্ক রিপোর্ট

২ মার্চ ২০২২, রাত ১০:৫৯ সময়

[ 20220302_225653.jpg ]
সংগৃহীত

মারিও বালোতেল্লির দারুণ ঐশ্বরিক প্রতিভা নিয়ে কারও কোনো সন্দেহ নেই। শৈশবের অনেক চড়াই উৎরাই পেরিয়ে ঠাঁই করে নিয়েছিলেন ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের মঞ্চে, কিংবা ইতালির জাতীয় দলে। 

কিন্তু, শুধুমাত্র প্রতিভা দিয়েই সেরা ফুটবলার হওয়া যায় না; তার বড় উদাহরণ হয়ে গেলেন সুপার মারিও বালোতেল্লি। অমিত প্রতিভা নিয়েও ভীষণ খামখেয়ালি, তার চেয়েও বেশি উগ্র মেজাজের কারণে কোথাও স্থির হতে পারেননি। শৃঙ্খলাজনিত সমস্যা ও বদ মেজাজের কারণে সময়ের অনেক আগেই ছিটকে গেছেন মূল স্রোত থেকে।

দীর্ঘ সময় আলোচনার বাহিরে থাকার পর আবারও ফিরলেন বালোতেল্লি। গত জানুয়ারিতে ইতালির দলে ফিরে খবরের শিরোনাম হয়েছিলেন তিনি। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের প্লে-অফ ম্যাচকে সামনে রেখে অনুশীলন ক্যাম্পের জন্য ৩১ বছর বয়সী এই তারকাকে আবার ও দলে ডেকেছেন কোচ রবার্তো মানচিনি। 

এত বছর পর জাতীয় দলে ফিরে দারুণ উচ্ছ্বসিত মারিও বালোতেল্লি। আর এমন সময়েই নিজের অমীয় প্রতিভার দারুণ অপচয়ের কথা স্বীকার করলেন তিনি। সম্প্রতি দ্য অ্যাতলেতিক'-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বালোতেল্লি বলেই ফেললেন, কোয়ালিটির বিচারে তিনি নাকি সর্বকালের অন্যতম সেরা দুই ফুটবলার লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর কাতারেই।

আমি কিছু সুযোগ মিস করেছি। তবে আমি নিশ্চিত যে, আমার কোয়ালিটি মেসি-রোনালদোর সমান। আমি নির্দিষ্ট কিছু সুযোগ মিস করেছি।
মাঝেমাঝে এটা হয়। তবে এখন আমি বলতে পারি না যে আমি রোনালদোর মতো ভালো। কারণ রোনালদো কতটি ব্যালন ডি'অর জিতেছে? পাঁচটি। আপনি তার সঙ্গে তুলনা করতে পারেন না, কেউ পারে না। তবে আপনি যদি ফুটবল খেলার কোয়ালিটির কথা বলেন, সত্যি বলছি, তাদেরকে হিংসা করার কিছু নেই আমার।

এসময় ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটি ছেড়ে যাওয়াকে নিজের ক্যারিয়ারের বড় ‘ভুল’ বলে স্বীকার করেন ৩১ বছর বয়সী এই তারকা। বালোতেল্লির দাবি, বর্তমান সময়ে তাঁর যে মানসিকতা তা যদি ইত্তিহাদের ক্লাবটির হয়ে খেলার সময় থাকত তাইলে ব্যালন ডি'অরও নাকি জিততে পারতেন। 

আমার এখন যে মানসিকতা, সেটা যদি ম্যানচেস্টার সিটিতে থাকাকালে থাকতো, তাহলে আমি ব্যালন ডি'অর জিততাম। নিশ্চিত আমি জিততাম। কিন্তু বয়সের সঙ্গে সঙ্গে মানুষ পরিণত হয়। বুঝতেই পারছেন।

ইতালিয়ান ক্লাব ইন্টার মিলান ছাড়ার পর ২০১০-১৩ সাল পর্যন্ত ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে খেলেছেন মারিও বালোতেল্লি। এসি মিলান, লিভারপুল ও মার্শেইয়ের মতো ক্লাবেও খেলেছেন তিনি। বর্তমানে খেলছেন তুর্কি ক্লাব আদানা দেমিস্পোরের হয়ে।