ফুটবল > বাংলাদেশ ফুটবল

বসুন্ধরা কিংস মাঠের ঘটনায় বাফুফেতে চাপা অসন্তোষ

মোহামেডান এর সাথে ম্যাচে, মাঠের বাইরের এক ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাফুফেতে চাপা অসন্তোষ।

নিউজ ডেস্ক

৭ মার্চ ২০২২, দুপুর ১০:৪১ সময়

[ ছবি- আজকের পত্রিকা ]
আজকের পত্রিকা

শুধু নামই না, কাজের ভারেও দেশব্যাপী হঠাৎ আলোচিত এক ক্লাবের নাম বসুন্ধরা কিংস। ক্লাবটির সভাপতি ইমরুল হাসান সোহাগ বাফুফেরও নির্বাচিত সহ সভাপতি। দামী ক্লাবের গুণগান এর সাথে হঠাৎ হঠাৎ ঘটা নানান ঘটনা ক্লাবের কিছু বিভাগকে প্রশ্নবিদ্ধও করেছে। সম্প্রতি এমন এক ঘটনা নিয়ে বিব্রত খোদ বাফুফের বড় একজন কর্তা। 

মোহামেডান এর সাথে ম্যাচে, মাঠের বাইরের এক ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাফুফেতে চাপা অসন্তোষ। বসুন্ধরা কিংসের হোম গ্রাউন্ড, বসুন্ধরা কিংস এরেনাতে দর্শকদের বারবার মারামারির ঘটনা ফলাও করে প্রচারিত হয়েছে বিভিন্ন গণমাধ্যমগুলোতে। খেলার মাঠে, খেলার বাইরের ঘটনায় উত্তেজনা বা অস্থিরতা নাম খারাপ করেছে বসুন্ধরা কিংসের। 

জানা গেছে, স্থানীয় কিছু গ্রুপ ভিত্তিক ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রথমে গ্যালারীতে আধিপত্য, পরে তা হাতাহাতিতে রুপ নেয়। প্রথম দফায় একবার মারামারি হওয়ার পর খেলা চলাকালীন বিরতির সময় আবারও বড় ধরনের হাতাহাতি হয় সেখানে। বিষয়টি সেখানেই থামেনি, চলেছে দীর্ঘ সময় মাঠের বাইরে গিয়েও। 

বাফুফের একজন উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বসুন্ধরা কিংস সম্পর্কে কোন কথা বলতে রাজী হননি। পরবর্তীতে নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি ডেইলি স্পোর্টসবিডিকে বলেন, "কি বলবো বলুন! এমন ঘটনা ঢাকার মাঠেও অনেক হয়েছে কিন্তু সেটা দুই দলের সমর্থকদের মধ্যে খেলার উত্তেজনাকে কেন্দ্র করে।" 

"সেখানে যেটি ঘটেছে, যা শুনেছি আশেপাশের কিছু বখাটে এটার জন্য দায়ী। এটা অবশ্যই বাংলাদেশের ফুটবলের জন্য বাজে দৃষ্টান্ত। ম্যাচ চলাকালীন সময়ে বারবার এমন বর্হি ঘটনা সংক্রান্ত উত্তেজনা গ্যালারীতে দেখা যাবে সেটা খুব ভালো উদাহরণ না। বসুন্ধরা অনেক পরিমাণে ইনভেস্ট করেছে সেখানে, তাদের জন্যও এটা নিশ্চিতভাবেই দুঃখের।" 

"আশা করবো এমন ঘটনা শুধু বসুন্ধরা কিংসের মাঠেই না, বাফুফে অন্য যে মাঠগুলোতে খেলা রেখেছে সেখানেও না ঘটে। আমাদের দর্শকের দরকার আছে, কিন্তু বখাটেদের ফুটবলে স্থান নেই। এইসব ঘটনা প্রকৃত দর্শকদের মাঠে আসা থেকে বিরত রাখে।" 

বিভিন্ন টিভি মিডিয়াতে দেখানো হয়েছে, ম্যাচের অনেক সময় ধরেই সেখানকার গ্যালারীতে এমন বিশৃঙ্খলা দেখা গেছে। সেখানকার সিকিউরিটি কিভাবে সেটিকে নিয়ন্ত্রণ করতে চেয়েছে সেটি নিয়ে কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি যোগাযোগ এর চেষ্টা করা হলেও। যদিও বাংলাদেশের ফুটবলের ইতিহাসে এমন ঘটনা ঘটে হরহামেশাই। গত বছরই ব্রাদার্স ইউনিয়নের সমর্থকরা মারামারি করেন খোদ প্রতিপক্ষ শেখ জামালের ফুটবলারদের সাথেই৷