ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

রিয়ালের বিপক্ষে গোল করাকে ‘ডালভাত’ বানানো সেই মেসি ‘ভূত’ হয়ে গেছেন!

রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে সর্বশেষ ৯ ম্যাচে কোন গোল কিংবা অ্যাসিস্ট করতে পারেননি মেসি। এ সময় জিততে পেরেছেন মাত্র ১ ম্যাচ!

ডেস্ক রিপোর্ট

১১ মার্চ ২০২২, দুপুর ১২:৩ সময়

[ Screenshot_20220311-115754_Gallery.jpg ]
ইন্টারনেট

পৃথিবীর সর্বকালের সবচেয়ে বড় অমীমাংসিত রহস্য সম্ভবত ভূত। মানুষে চিরন্তন আগ্রহ আর রহস্যময়তার কারণে ভূত বিষয়টির জনপ্রিয়তা কখনোই কমেনি। আদো সবার একই চিন্তা—ভূত আছে, নাকি নেই। 

তবে, প্রচলিত অর্থে ভূত বলতে কোথাও অদৃশ্য হয়ে থাকাকেই বুঝায়। তাই, প্রকৃতিতে ভূতের অস্তিত্ব থাকুক কিংবা না থাকুক; ভূতের অদৃশ্য হয়ে যাওয়ার গল্পটির সাথে সাম্প্রতিক সময়ে রিয়াল মাদ্রিদে বিপক্ষে লিওনেল মেসিকে কল্পনা করা যায় অনায়াসেই!

ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে বড় দ্বৈরথ বলা হয় বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদের লড়াই। এ দুদলের লড়াই মানেই বাড়তি উত্তেজনা। পুরো ফুটবল বিশ্বের নজর থাকে তাদের দিকেই। মাঠে যেমন দুই দল কারা থাকছেন, কি পরিকল্পনায় খেলবে দুই দল- এ নিয়ে আলোচনার শেষ নেই। দুই দলের মহারণে পরিসংখ্যান নিয়েও সমর্থকদের মধ্যে কাজ করে চাপা উত্তেজনা। 

আর্জেন্টাইন মহাতারকা লিওনেল মেসি সেই দ্বৈরথের সবচেয়ে সফল ফুটবলারদের মধ্যেই একজন। এল ক্লাসিকোর ইতিহাসের সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসি। এল ক্লাসিকোর সর্বোচ্চ অ্যাসিস্ট করার রেকর্ডও মেসির দখলে। রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে আর্জেন্টাইন ক্ষুদে জাদুকর এল ক্লাসিকোয় গোল করেছেন ২৬টি; গোলে সহায়তা করেছেন আরও ১৪টি। 

শুধু তা নয়; এল ক্লাসিকোর ইতিহাসে স্প্যানিশ তারকা সার্জিও রামোসের সাথে যৌথভাবে সর্বোচ্চ ৪৫টি ম্যাচ খেলার রেকর্ডের সঙ্গী লিওনেল মেসি। এমনকি, দুই দলের মহারণে সর্বোচ্চ ২টি হ্যাট্রিক ও সর্বাধিক ২টি ফ্রিকিক গোল করার নজির আছে শুধুই সাতবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলারের। 

এক সময় রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে নিজে গোল করা কিংবা সতীর্থকে দিয়েও গোল করানোকে ‘ডালভাত’ বানিয়ে ফেলা মেসি এখন নিজেই গোল করতে ভুলে গিয়েছেন। মূলত, ২০১৫-১৬ মৌসুমের পর থেকে লস ব্ল্যাংকোসদের বিপক্ষে মুদ্রার উল্টো দেখা শুরু করছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। 

সাম্প্রতিক সময়ে রিয়ালের বিপক্ষে ম্যাচে খেলা মানেই মাঠে ‘ভূত’ হয়ে থাকা মেসি। গোল করা  অনেক দূরে, সাতবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার লস ব্ল্যাংকোসদের বিপক্ষে এখন সতীর্থদের গোলেও আর সহায়তা করতে পারছেন না। 

২০১৫-১৬ মৌসুমে স্প্যানিশ লা লিগায় রিয়াল মাদ্রিদকে নিয়ে ‘ছেলেখেলা’ করে বার্সেলোনা। লুইস এনরিকের সাড়া জাগানো দলটি লুইস সুয়ারেজের জোড়া গোলে লস ব্ল্যাংকোসদের জালে ‘এক হালি’ গোল করে। সেই ম্যাচে নেইমার ও ইনিয়েস্তা গোল করতে পারলেও নিজে গোল করা কিংবা সতীর্থের গোলে সহায়তা কিছুই করতে পারেননি মেসি! তারপর রিয়ালের বিপক্ষে কাতালানদের হয়ে এল ক্লাসিকোর সর্বোচ্চ গোলদাতা ম্যাচ খেলেছেন আরও ১৫টি। এই সময় মেসির গোলসংখ্যা মাত্র ৫টি, যেখানে পেনাল্টি গোল ২টি; গোল সহায়তায় ১টি। 

অবশ্য, এরই মাঝে এল ক্লাসিকোর ইতিহাসে সবচেয়ে যুগান্তকারী ম্যাচে রিয়ালের রাতের ঘুম হারাম করে দিয়েছিলেন মেসি। ২০১৭-১৮ মৌসুমে লা লিগায় চরম উত্তেজনা ঠাসা ম্যাচে মেসির জোড়া গোলে রিয়ালকে ৩-২ গোলে হারিয়েছিলো বার্সেলোনা। 

রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে লিওনেল মেসি সর্বশেষ গোল করতে পেরেছিলেন ২০১৮ সালে। স্প্যানিশ লা লিগায় সেবার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পাশাপাশি গোল করেন তিনিও। ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত ২-২ গোলে ড্র হয়েছিল। তারপর আর্জেন্টাইন মহাতারকা এল ক্লাসিকো খেলেছেন আরও ৭টি; এই সময় গোল কিংবা গোলে সহায়তা কিছুই করতে পারেননি তিনি। 

গত বছর ক্লাব বদলিয়ে পিএসজিতে যোগ দিলেও ভাগ্যে বদলায়নি মেসির। বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে সাতশোর বেশি গোল করা ৩৫ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড প্যারিসের ক্লাবটির হয়েও রিয়ালের বিপক্ষে জালের দেখা পাননি। চ্যাম্পিয়নস লিগের এবারের আসরে দুই পর্বের ম্যাচেই ক্যাসিমেরো-ক্রুসদের ‘পকেট বন্দি’ ছিলেন তিনি। 

সবমিলিয়ে ২০১৫ সালের পর রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে গোলের জাল খুঁজে পাওয়ার কাজটা লিওনেল মেসির জন্য যেন বড্ড কঠিন হয়ে গেছে। গত ছয় বছরে লস ব্ল্যাংকোসদের বিপক্ষে এল ক্লাসিকো সর্বোচ্চ গোলদাতা খেলেছেন বটে, তবে অনেকটাই ‘অদৃশ্য’ হয়ে ছিলেন। মেসি খেলেছেন; কিন্তু মাঠে ‘ভূত’ হয়েই ছিলেন!