ফুটবল > আন্তর্জাতিক ফুটবল

‘রোনালদোদের বিশ্বকাপে তোলার সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পর্তুগাল কোচ’

কাতার বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করতে প্লে-অফের কঠিন পথই ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ মনে করেন ফার্নান্দো সান্তোস।

ডেস্ক রিপোর্ট

১৮ মার্চ ২০২২, দুপুর ১০:৩৬ সময়

[ fernando-santos-cristiano-ronaldo-portugal_3740974.jpg ]
ইন্টারনেট

২০১৪ সালে হুট করেই পর্তুগালের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে ইউরোপের মধ্যম সারির দলটিকে রীতিমতো বদলে দেন ফার্নান্দো সান্তোস। ৬৭ বছর বয়সী এই কোচের অধীনে পর্তুগাল নিজেদের ইতিহাসের প্রথমবারের মত বড় শিরোপা জেতে। ২০১৬ সালে প্রতাপশালী ফ্রান্সকে হারিয়ে ইউরোপসেরা হয় রোনালদোরা। পর্তুগালের ইতিহাসের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় তাই জুড়ে নিঃসন্দেহে  নাম থাকবে সান্তোসের।

তবে, এবার নিজের কোচিং ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে ফার্নান্দো সান্তোস। কাতারের বিশ্বকাপের টিকিট এখনও নিশ্চিত হয়নি পর্তুগালের। ইউরোপীয় অঞ্চলের গ্রুপপর্বে সার্বিয়ার বিপক্ষে জিতে না পারায় এখন প্লে অফ খেলবে রোনালদোরা। আর এখানে একটু পা হড়কালেই বিশ্বকাপ খেলা হবে না ২০১৬ সালের ইউরো জেতা দলটির। 

অবশ্য, প্লে অফ পর্বটাও বেশ কঠিন পথ পর্তুগালের। এ পথে ‘সি’ গ্রুপে আগামী ২৪ মার্চ তুরস্ককে হারাতেই হবে রোনালদোদের। পোর্তোয় এই ম্যাচটি জেতার পর অপেক্ষা করতে হবে ইতালি ও নর্থ মেসিডোনিয়া মধ্যে বিজয়ী দলের জন্য। এই লড়াইয়ে জিতেই বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করতে হবে রোনালদোদের।

গতকাল (বৃহস্পতিবার) গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ দুটির জন্য দল ঘোষণা করেছেন পর্তুগাল কোচ। সেখানেই ফার্নান্দো সান্তোস জানালেন, পর্তুগালকে বিশ্বকাপের মূলপর্বে তোলাই তাঁর ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। যে কোন মূল্যে এই চ্যালেঞ্জ জিততে চান তিনি। 

হিসাবটা সহজ, আমাদের জিততে হবে, অন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ নয়।

পর্তুগাল কোচ আরও বলেছেন,

পর্তুগালের কোচ হিসেবে আমার কাছে এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ চ্যালেঞ্জ। সবচেয়ে কঠিন নয়, তবে অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের ভক্তদের জন্য বিশ্বকাপের জায়গা করে নিতে হবে। এক মাসেরও বেশি সময় আগে প্লে-অফের টিকিট বিক্রি হয়ে গিয়েছিল কয়েক মিনিটের মধ্যে। আমরা তাদের হতাশ করতে পারি না।