ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

ছেলেদের পর মেয়েদেরও কাঁদিয়ে রিয়ালের ‘কাটা গায়ে লবণ ছিটিয়ে দিল’ বার্সেলোনা

ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের আসরে মেয়েদের ‘এল ক্লাসিকো’-তে শুরুতে পিছিয়ে পড়েও রিয়ালের মেয়েদের গুড়িয়ে দিল কাতালানরা।

ডেস্ক রিপোর্ট

২৩ মার্চ ২০২২, দুপুর ১১:৩৮ সময়

[ 20220323_113716.jpg ]
টুইটার

প্রায় দুই বছর ধরে রিয়ালের ঘরের মাঠ স্যান্তিয়াগো বার্নাব্যু সংস্কার কাজ চলায় সেখানে কোনো ‘এল ক্লাসিকো’ হয়নি। তবে আলফ্রেডো ডি স্টেফানোয় লস ব্ল্যাংকোসরা ছিল জয়ের ধারায়। 

ইউরোপিয়ান ক্লাবের সবচেয়ে বড় দ্বৈরথের পাশাপাশি সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা পাঁচ ম্যাচেও জয়ে ধারায় ছিল কার্লো আনচেলত্তির দল। এর মাঝে আবার আছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে তারকা ঠাসা পিএসজির বিপক্ষে সেই দুর্দান্ত জয়ের ম্যাচও। 

এমন দুর্দান্ত ফর্মে নিয়েও দারুণ ছন্দে থাকা দলটি দুই বছর বাদে প্রিয় আঙিনায় চিরপ্রতীদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে খেলতে নেমে অসহায় আত্মসমর্পণ করল। দুদিন আগে রিয়ালের মাঠে গিয়ে বার্সেলোনা যে ফুটবল উপহার দিল, দাপুটে ফুটবল খেলে যেভাবে ৪-০ গোলের জয় ছিনিয়ে নিল, তা অনেকের কাছেই রীতি মতো অবিশ্বাস্য!

বিস্ময়করভাবে ছেলেদের ‘এল ক্লাসিকো’-য় জাভিবলে ভেসে যাওয়া রিয়াল মাদ্রিদের কাঁটা গায়ে এবার আরও লবণ ছিটিয়ে দিল বার্সেলোনা। মাত্র দুদিন আগে স্প্যানিশ লা লীগায় ছেলেদের ঐতিহ্যে এল ক্লাসিকোয় হেসেখেলে জেতার পর মেয়েদের ‘এল ক্লাসিকো’তেও জয় পেয়েছে কাতালান মেয়েরা। 

যদিও ছেলেদের এল ক্লাসিকোর মতো সহজে জিততে পারেনি গেল মৌসুমে ট্রেবল জয়ী দলটি। তবে, চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচটিতে শুরুতে পিছিয়ে পড়ার পরও দারুণ ভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে জিতেছে বার্সেলোনা।

গতকাল (মঙ্গলবার) রাতে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের মেয়েদের কোয়ার্টার ফাইনালে ‘এল ক্লাসিকো’র ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে জোনাথন কোস্টাসের দল। শুরুতেই রিয়ালের কারমোনার গোলে পিছিয়ে পড়ে বার্সা। পরে ব্যালন ডি 'অর জয়ী অ্যালেক্সিস পুটেলাসের জোড়া গোল আর ক্লাদিয়া পিনার গোলে জয় নিয়ে বাড়ি ফিরেছে দলটি।

রিয়ালের মাঠে বল দখলের লড়াইয়ে একচেটিয়া দাপট ছিল বার্সেলোনার মেয়েদের। গোটা ম্যাচে ৬৫ শতাংশ বল নিজেদের পায়ে রাখে দলটি। গোলমুখে শট নেওয়া ক্ষেত্রেও এগিয়ে ছিলো কাতালানরা। ১৮ শটের ৫টিই লক্ষ্যে রাখে তারা। বিপরীতে, স্বাগতিকরা ৬ শটের ৩টি লক্ষ্যে রাখতে পারে। 

আলফ্রেড ডি স্টেফানো স্টোডিয়ামে ম্যাচের অষ্টম মিনিটেই এগিয়ে গিয়েছিলো রিয়াল মাদ্রিদ। এস্থার গঞ্জালেজের পাস থেকে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন অলগা কারমোনা। প্রথমার্ধের বাকিসময়ে লিড ধরে রাখতে পারে লস ব্ল্যাংকোসরা। 

কিন্ত, বিরতির পর বার্সেলোনার মেয়েদের আক্রমণের মুখে আর পেরে উঠেনি স্বাগতিকরা। ম্যাচের ৫৩তম মিনিটে স্পটকিকে বার্সাকে সমতায় ফেরান পুটেলাস।

৮১তম মিনিটে ক্লাদিয়া পিনার গোলে এগিয়ে যায় দলটি। যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটেই চমৎকার এক গোলে কাতালান মেয়েদের জয় নিশ্চিত করে ফেলেন মেয়েদের ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কার জেতা পুটেলাস। 

এই জয়ে মেয়েদের ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের আসরে শেষ চারে এক পা দিয়ে রাখলো বার্সেলোনা। আগামী ৩০ মার্চ কাতালানদের ঘরের মাঠে শেষ আটের দ্বিতীয় লেগ অনুষ্ঠিত হবে।