ফুটবল > আন্তর্জাতিক ফুটবল

কাতার বিশ্বকাপের পর ব্রাজিলের কোচ হচ্ছেন পেপ গার্দিওলা!

তিতের উত্তরসূরী হিসেবে স্প্যানিশ এই কোচের কথা ভাবছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

ডেস্ক রিপোর্ট

৭ এপ্রিল ২০২২, বিকাল ৭:৪২ সময়

[ 20220407_193555.jpg ]
টুইটার

সময়ের অন্যতম সেরা কোচ হচ্ছেন পেপ গার্দিওলা। বার্সেলোনায় ইতিহাস গড়ে বায়ার্ন মিউনিখের অধ্যায় শেষে বর্তমানে ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটির কোচিং করাচ্ছেন তিনি। 

যদিও সিটিজেনদের সাথে মেসির সাবেক গুরুর চুক্তি শেষ হয়ে যাবে ২০২৩ সাল। তবে ইতোমধ্যেই ‘ফুটবলে বৈপ্লবিক পরিবর্তন’ এনে দেওয়া ৫১ বছর বয়সী এই কোচ জানিয়ে দিয়েছেন ইত্তিহাদের ক্লাবটির সঙ্গে আর চুক্তি নবায়নের ইচ্ছে নেই! ম্যানচেস্টার সিটির অধ্যায় চুকিয়ে এবার কোন জাতীয় দলের কোচ হতে চান পেপ গার্দিওলা। ২০১২ সালে একবার পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের কোচ হওয়ারও সুযোগও পেয়েছিলেন তিনি। 

ওই সময় মানো মেনেজেসকে ছাঁটাই করে নতুন কোচ খুঁজছিল সেলেসাওরা। গার্দিওলা তখনো বায়ার্নের দায়িত্ব নেননি। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলেও ‘ব্রাজিল কখনও ভিনদেশী কোচ করাতে আগ্রহী নয়’ এমন প্রথাগত ধারণা থেকে বেরিয়ে আসতে না পারায় শেষ পর্যন্ত তা হয়ে উঠেনি। 

এদিকে, ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের পর দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়ার কথা জানিয়েছেন তিতে। আর এই সময়েই ব্রাজিল এবার নিজেদের পুরোনো প্রথাগত ধারণা থেকে বেরিয়ে আসতে চাচ্ছে। বর্তমান কোচ তিতের উত্তরসূরী হিসেবে পেপ গার্দিওলার কথাই চিন্তা করছে ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন (সিবিএফ)। কাতার বিশ্বকাপের পরই স্প্যানিশ এই কোচকে নেইমারদের দায়িত্ব বুঝিয়ে দিতে চাচ্ছে তারা। স্প্যানিশ দৈনিক মার্কা এমন খবর করেছে। 

সাংবাদিক মারিও কর্টেগানার বরাতে পত্রিকাটি জানিয়েছে, কোচ তিতের উত্তরসূরী হিসেবে পেপ গার্দিওলার কথা ভাবছে ব্রাজিল। চার বছরের চুক্তিতে ২০২৬ সাল পর্যন্ত পেপকে পেতে চায় তারা। গার্দিওলা চুক্তিতে সই করলে প্রতি বছর পাবেন ১২ মিলিয়ন ইউরো করে।

যেহেতু জাতীয় দলের কোচ হওয়ার ইচ্ছে আছে গার্দিওয়ালার; সিবিএফের বিশ্বাস করে, তারা স্প্যানিশ কোচের সঙ্গে একটি চুক্তিতে পৌঁছাতে পারবে। 

২০১৬ সালে ব্রাজিলের দায়িত্ব নেন তিতে। ৬০ বছর বয়সী এই কোচের অধীনে সেলেসাওরা একবার কোপা আমেরিকা জিততে পারলেও বৈশ্বিক আসরে এখনও বড় কোন সাফল্যে পায়নি। ২০২২ বিশ্বকালের ব্রাজিলের সঙ্গে চুক্তিও নবায়ন করবেন না তিনি।

১৯৬৫ সালের পর আর কখনওই ব্রাজিলের ডাগ-আউটে ভিনদেশী কাউকে দেখা যায়নি। সর্বশেষ ব্রাজিলের জাতীয় দলে বিদেশী কোচ হিসেবে ছিলেন ফিলপো নুনেজ।