ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

মেসি-নেইমার-এমবাপ্পের হ্যাট্রিকে গোলউৎসব করলো পিএসজি

নেইমার ও এমবাপ্পে করলেন গোলের হ্যাট্রিক, মেসি করলেন অ্যাসিস্টের।

ডেস্ক রিপোর্ট

১০ এপ্রিল ২০২২, সকাল ৪:১৮ সময়

[ 20220410_041740.jpg ]
টুইটার

গোটা ম্যাচেই একচেটিয়া দাপট দেখিয়েছে পিএসজি। এক ম্যাচেই জ্বলে উঠেছেন দলের সেরা তিন তারকা। তিন জনের মধ্যে নেইমার ও এমবাপ্পে করলেন গোলের হ্যাট্রিক। আর এ দুজনকে গোলের সহায়তার হ্যাট্রিক করলেন লিওনেল মেসি। এক সঙ্গে তিন জনের দ্যুতি ছড়ানোর রাতে প্যারিসের ক্লাবটি করলো রীতিমতো গোলউৎসব। 

আজ (শনিবার) রাতে ফরাসি লীগ ওয়ানে ক্লেহমোঁকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে পিএসজি। প্যারিসিয়ানদের হয়ে সবকটি গোলই করেছেন নেইমার ও এমবাপ্পে। ক্লেহমোঁর হয়ে একমাত্র গোলটি করেছেন জোডেল ডোসো। 

প্রতিপক্ষের মাঠে এদিন বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে ছিল পিএসজি। গোটা ম্যাচে ৬৪ শতাংশ বল নিজেদের পায়ে রাখে দলটি। গোলমুখে শট নেওয়ার ক্ষেত্রেও এগিয়ে ছিলো সফরকারীরা। ১৭ শটের ১০টি লক্ষ্যে রাখে তারা। বিপরীতে, নবাগত ক্লেহমোঁ ১০ শটে ৪টি লক্ষ্যে রাখতে পারে। 

শিরোপা পুনরুদ্ধারের অভিযানে আরও এগিয়ে যেতে এদিন শুরু থেকেই আক্রমণ শানায় পিএসজি। শুরুতে ব্রাজিলিয়ান পোষ্টারবয় নেইমারের নৈপুণ্যে গোল উৎসব শুরু করে দলটি। ম্যাচের ৬ষ্ঠ মিনিটেই পিএসজিকে এগিয়ে দেন তিনি। গোলের যোগান দেন মেসি।

১৯তম মিনিটে ফের মেসি জাদু। আর্জেন্টাইন তারকার পাস থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। যদিও বিরতির আগে জোডেল দোসো গোল করে স্বাগতিকদের হয়ে ব্যবধান কমান। প্রথমার্ধে ২-১ গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি। 

দ্বিতীয়ার্ধে আরও বেশি আক্রমণাত্মক হয়ে উঠে পিএসজি। ৭১তম মিনিটে সফল স্পটকিকে ব্যবধান আরও বাড়ান নেইমার। তিন মিনিট পর ব্রাজিলিয়ান তারকার পাস থেকে লক্ষ্যভেদ করেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। ৮০তম মিনিটে হ্যাট্রিক পূর্ণ করেন ফরাসি তারকা। মেসির পাস থেকে গোলটি করেন বিশ্বকাপজয়ী এ ফরোয়ার্ড। মেসিরও অ্যাসিস্টের হ্যাট্রিক পূর্ণ হয়। 

এমবাপ্পের গোলের হ্যাট্রিক ও মেসির অ্যাসিস্টের হ্যাট্রিকে নেইমারও বাদ যাননি। ৮৩তম মিনিটে এমবাপ্পের পাস থেকেই হ্যাট্রিক পূর্ণ করেন ৩০ বছর বয়সী এই তারকা। 

এক ম্যাচেই পিএসজির স্বপ্নের আক্রমণত্রয়ী যেন স্বপ্নের মতোই জ্বলে উঠলো। বাকি সময় আর কোন গোল না হলে ৬-১ গোলের বড় জয়ে মাঠ ছাড়ে পচেত্তিনোর শিষ্যরা। 

এই জয়ে শিরোপা পুনরুদ্ধারে ১২ পয়েন্ট এগিয়ে গেল মৌরিচিও পচেত্তিনোর দল। ৩১ ম্যাচে ২২ জয় ও ৫ ড্রয়ে মেসি-নেইমারদের পয়েন্ট ৭১। দুইয়ে থাকা রেঁসের পয়েন্ট ৬৭। টানা পঞ্চম হারে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে অবনমন অঞ্চলের পাশে আছে ক্লেহমোঁ।