ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

রোমাঞ্চের ভেলায় ভেসে ড্রয়ে শেষ সিটি-লিভারপুলের লড়াই

বারুদে ঠাসা ম্যাচটি জিতেনি কেউই।

ডেস্ক রিপোর্ট

১১ এপ্রিল ২০২২, রাত ১২:৯ সময়

[ 20220411_000819.jpg ]
টুইটার

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা লড়াইয়ে দুদলের মধ্যে ব্যবধান মাত্র এক। তাই, ইত্তিহাদের বড় ম্যাচটিকে অনেকে ‘শিরোপা নির্ধারণী’ ম্যাচও বলেছিল। কেননা, যে দলই জিতবে, শিরোপা লড়াইয়ে এগিয়ে যাবে তারাই।

তবে, সাম্প্রতিক সময়ে লিভারপুল-সিটির খেলা মানেই যেন বাঘে-মহিষের দুরন্ত লড়াই। কেউই কাউকে ছাড় দিতে রাজি নয়। আজও তুমুল যুদ্ধ হয়েছে বটে। কিন্তু, ইত্তিহাদে বারুদে ঠাসা ম্যাচটি শেষ হাসি হাসতে পারেনি কেউই। চার গোলে দুই দলের রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচটি সমতায়ে শেষ হয়েছে। 

আজ (শনিবার)  ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচেটি ২-২ গোলের ড্র হয়েছে। দুবারই ঘুরে দাঁড়িয়ে সমতায় এসেছে লিভারপুল৷ ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে গোল করেছেন কেভিন ডি ব্রুইন ও গ্যাব্রিয়েল জেসুস। লিভারপুলের দু গোল করেছেন দিয়েগো জোতা ও সাদিও মানে।

অ্যানফিল্ডে দুই দলের আগের লড়াইও ২-২ গোলে ড্র হয়েছিল। ২০১২-১৩ মৌসুম পর এবারই প্রথমবার প্রিমিয়ার লিগে উভয় লীগ-ই ড্র করলো দুদল। এই ড্রয়ে লিভারপুলের বিপক্ষে সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচেই অপরাজিত থাকলো সিটিজেনরা।

ইত্তিহাদে বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে ছিলো ম্যান সিটি। গোটা ম্যাচে ৫৫ শতাংশ বল নিজেদের পায়ে রাখে পেপ গার্দিওলার দল। গোলমুখে শট নেওয়ার ক্ষেত্রেও এগিয়ে ছিল স্বাগতিকরা। পুরো ম্যাচে ১১ শটের ৫টি লক্ষ্যে রাখে তারা। বিপরীতে, ৬ শটের ৪টি লক্ষ্যে রাখে লিভারপুল। 

ঘরের মাঠে উত্তেজনা ঠাসা ম্যাচে শুরুতেই এগিয়ে যায় সিটিজেনরা। পঞ্চম মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইন দুর্দান্ত এক গোল করেন। ম্যাচে ফিরতে বেশি সময় নেয়নি লিভারপুলও। ১৩তম মিনিটে পর্তুগিজ তরুণ দিয়েগো জোতা অলরেডদের সমতায় ফেরান।

আক্রমণ প্রতি আক্রমণে জমে উঠে ম্যাচ। ম্যাচের ৩৬তম মিনিটে গ্যাব্রিয়েল জেসুসের অসাধারণ ফিনিশিংয়ে ফের এগিয়ে যায় পেপ গার্দিওলার দল। তবে, এবারও সেই লিড বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি তারা। 

বিরতি থেকে ফিরেই সাদিও মানের গোলে সমতায় ফিরে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। ম্যাচের বাকি সময় দুদল চেষ্টা করেও আর জাল খুঁজে পায়নি। ফলে  ২-২ গোলের ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে দুদল। 

এই ড্রয়ে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা লড়াইয়ে দুদলের ব্যবধান ১ থেকে গেল। ৩১ ম্যাচে ২৩ জয় ও ৫ ড্রয়ে ৭৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ম্যানচেস্টার সিটি। সমান ম্যাচ খেলে এক পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে আছে ইয়ুর্গেন ক্লপের লিভারপুল। এক ম্যাচ কম খেলে ৬২ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে চেলসি।