ফুটবল > আন্তর্জাতিক ফুটবল

ম্যারাডোনাকে ’হত্যা’ করা হয়েছে! তদন্তে নতুন মোড়

ম্যারাডোনার চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে করা অভিযোগ প্রমাণিত হলে বড় ধরনের শাস্তির মুখে পড়তে পারেন তারা।

ডেস্ক রিপোর্ট

১৪ এপ্রিল ২০২২, রাত ১১:৫৫ সময়

[ Screen_Shot_2020_11_26_at_22.32.48.0.jpg ]
ইন্টারনেট

আর্জেন্টাইন ফুটবল সম্রাট ডিয়াগো ম্যারাডোনার মৃত্যুর পর সেটি স্বাভাবিক মৃত্যু ছিল কিনা সেটি নিয়েও অনেক জলঘোলা হয়েছে। ম্যারাডোনাকে হত্যা করা হয়েছে বলেও বলা হয়েছে বেশ কিছু সংগঠনের ব্যানারে। এতকিছুর পর তদন্ত শুরু হয়েছে অনেক দিন ধরেই। 

এবার সেই তদন্তে মামলার আওতায় আসতে পারেন ম্যারাডোনার চিকিৎসকরা। ম্যারাডোনাকে চিকিৎসা দিয়েছেন আটজনের মত যাদের মধ্যে দুজন স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ লিওপোলদো লুক ও মনোবিদ অগাস্তিনা কোসাকোভের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে তদন্ত বিভাগ।

ম্যারাডোনার চিকিৎসার মধ্যে সবথেকে বড় গাফিলতি করার অপরাধে সন্দেহ করা হচ্ছে এই দুইজন চিকিৎসককে। ফিজিওলজিস্ট কার্লোস দিয়াজ ও সমন্বয়কারী ন্যান্সি ফোরলানিও আওতায় আসতে যাচ্ছেন তদন্তের।

তদন্তে সরকারী উকিলরা যে সমস্ত তথ্য দিয়েছেন তা রীতিমত নতুন নতুন প্রশ্নের উদ্রেক করছে। তাদের অভিযোগ মতে, ম্যারাডোনার মারা যাবার আগে যাবতীয় চিকিৎসা বন্ধ রেখেছিলেন চিকিৎসকেরা যেটি ম্যারাডোনার শারীরিক অবস্থা অবনতির জন্য সবথেকে বড় কারণ বলে চিহ্নিত করা হচ্ছে।

ম্যারাডোনার চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে করা অভিযোগ প্রমাণিত হলে বড় ধরনের শাস্তির মুখে পড়তে পারেন তারা। ত্রিশ বছর পর্যন্ত জেল সহ চিকিৎসক লাইসেন্স বাতিল করতে পারে আদালত।

২০২০ সালে ব্রেইন স্ট্রোকজনিত সমস্যার পর অস্ত্রপাচার করা হয় ম্যারাডোনাকে, এরপর আর স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারেননি ফুটবল ইশ্বর বলে খ্যাত ডিয়াগো ম্যারাডোনা। জীবনের বেশিরভাগ সময়েই তিনি আসক্ত ছিলেন কোকেন আর অ্যালকোহলে।