ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

রিয়াল চাইছে আধিপত্য, লিভারপুলের চাওয়া প্রতিশোধ

সেমিফাইনাল শুরু হওয়ার আগেই লিভারপুল তারকা মোহাম্মদ সালাহ্ জানান, ফাইনালে তিনি রিয়াল মাদ্রিদকেই চান।

ডেস্ক রিপোর্ট

৭ মে ২০২২, রাত ১:১ সময়

[ FR8gM7OWQAMOirt.jpg ]
সংগৃহীত

ইউরোপের শ্রেষ্ঠ ক্লাব কোনটি এমন প্রশ্নে আপনার মাথায় প্রথম যে নামটি আসবে সেটি হলো রিয়াল মাদ্রিদ। রিয়াল মাদ্রিদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে কর্তৃত্ব আপনাকে সাদা পোশাকের জায়ান্টদের নাম শুরুতে আনতে বাধ্য করবে। রিয়াল মাদ্রিদ সেই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে আবারও ফাইনালে উঠেছে। রিয়ালের এই গল্পের পথটা মসৃন ছিল না, সিটির বিপক্ষে জেতার আগে বিভিন্ন ভোটে রিয়ালের ফাইনালে খেলার সম্ভাবনা ধরা হয়েছিল মাত্র ছয় শতাংশ। সবথেকে বেশি ৪৮ শতাংশ ভোট ছিল ম্যানচেস্টার সিটির পক্ষে। সেই দলকে পিছিয়ে থেকে শুরু করে হারানোর গল্পটা রচনা করতে পেরেছে মাদ্রিদই। তবে এতোসব কিছুর পরও ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে ফেভারিট হিসেবেই খেলা শুরু করবে লিভারপুল।

সেমিফাইনাল শুরু হওয়ার আগেই লিভারপুল তারকা মোহাম্মদ সালাহ্ জানান, ফাইনালে তিনি রিয়াল মাদ্রিদকেই চান। এতেই লিভারপুুলের শক্ত মনোভাব প্রকাশ করে, সেইসাথে ক্লপের মাস্টারমাইন্ড তো আছেই। পরিসংখ্যান অবশ্য মাদ্রিদের পক্ষে কথা বলবে। শেষ আট দেখায় মাদ্রিদ জিতেছে চারটি ম্যাচেই। লিভারপুল জিতেছে তিনটিতে, একটি ম্যাচ হয়েছে ড্র। রিয়ালের দশ গোলের বিপরীতে লিভারপুলের গোল সংখ্যা ৮টি। 

২০১৮ সালের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারার দুঃখ এখনো ভুলতে পারেনি লিভারপুল। সেকারণেই লিভারপুল তারকার চাওয়া ফাইনালে মাদ্রিদ থাকুক প্রতিপক্ষ হিসেবে। সেবার এক রামোসের কাছেই বোতলবন্দী ছিলেন সালাহ্ তবে এবার সেই হারের প্রতিশোধ নিতে চান। যদিও রামোস নেই রিয়ালের বেঞ্চে। বিখ্যাত এই ফাইনালের টিকিটের দাম নির্ধারণও করেছে উয়েফা। সর্বনিম্ন ৬০ ইউরো থেকে ৬৯০ ইউরো পর্যন্ত দাম রাখা হয়েছে টিকিটের। বাংলাদেশী টাকায় একজনকে সবথেকে সস্তা টিকিট পেতে হলেও গুনতে হবে ৫৪৭০ টাকা। সবথেকে দামি টিকিটের দাম পড়বে ৬২৯০০ টাকা। 

এবার দেখা যাক আন্তর্জাতিক বেটের হিসাব। বাজি খেলার দর হিসেবে রিয়ালের পক্ষে বাজির দর বেশি ৬০ শতাংশ পর্যন্ত। ম্যাচের আগ পর্যন্ত উঠানামা করতে পারে এই দর। বাজিকরদের একটা পক্ষ গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছে এই খেলাকে কেন্দ্র করে কমপক্ষে ৯০ বিলিয়ন ডলার টাকার বাজি লেনদেন হতে পারে। যে অর্থ দিয়ে কমপক্ষে ২০টি বড় ক্লাবেই কিনে ফেলা সম্ভব। হিসাব শুনলে চোখ কপালে উঠতেই পারে। তবে ম্যাচটি যেহেতু দুই জায়ান্টের মধ্যে, তাও আবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল তখন উত্তেজনা থাকবে তুঙ্গে সে তো স্বাভাবিক।