ক্রিকেট > বাংলাদেশের ক্রিকেট

কোচ চাইছেন আরেকটু সতর্ক সাকিবকে, সাকিব চাইছেন উল্টো

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে বরাবরের মতই টেস্টে খাবি খাচ্ছে টিম বাংলাদেশ। তবে নতুন অধিনায়ক সাকিবের অধীনে দল গোছানোর ব্যাপারও আছে, সেই সাথে টপ অর্ডারের অফ ফর্ম ভাবাচ্ছে বাংলাদেশকে। সেই সাথে যুক্ত হচ্ছে সাকিবের ব্যাটিং ধরনও

ডেস্ক রিপোর্ট

২০ জুন ২০২২, সকাল ৭:৫ সময়

[ unnamed.jpg ]
রাসেল ডোমিঙ্গো এবং সাকিব আল হাসান, ছবি - ডেইলি স্পোটর্সবিডি

যে কোন ক্রিকেটারই নিজের সহজাত এবং স্বাভাবিক খেলাটাই খেলতে চান সবসময়ই এবং সেভাবেই বড়বড় রথী মহারথী ক্রিকেটাররা সাফল্য পেয়েছেন এমনকি সেটা ক্রিকেটের ব্যকরন না মেনেও। বাংলাদেশ ক্রিকেটের পোস্টারবয় সাকিব আল হাসানকে নিয়ে সম্প্রতি নিজের স্বাভাবিক খেলার চর্চার একটি বিষয় সামনে এসেছে তার সাম্প্রতিক দুইটি আউটকে কেন্দ্র করে। অ্যান্টিগা টেস্টে সাকিব আউট হয়েছেন দু্ইবার বড় শট খেলতে গিয়ে। 

প্রথম ইনিংসে আউট হয়েছেন ছক্কা মারতে গিয়ে, ঠিক বাউন্ডারি লাইনের কাছাকাছি গিয়ে। আর দ্বিতীয় আউটটি কাভারে বড় শট খেলতে গিয়ে। দলের বাকি সবার থেকে সাকিবের রান বেশি বলে বাংলাদেশের ক্রিকেট সংস্কৃতি অনুযায়ী সেটি নিয়ে আলোচনা বা সমালোচনা করবার সুযোগটা কম। তবে সাকিবের আউটের ধরন নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে আর এতে উত্তর দিয়েছেন কোচ এবং সাকিব দুই পক্ষই। 

সংবাদ সম্মেলনে এই ব্যাপারে সাকিবের ব্যখ্যা খুবই সুস্পষ্ট, সাকিব বলেন, ‘নিজের ব্যাটিং নিয়ে আমি ইতিবাচক ছিলাম। সহজভাবে ভাবছিলাম—মারার বল পেলে মারব, নাহয় ঠেকাব। সব সময় গেম প্ল্যান এমন সাধারণ রাখি। এভাবেই সফল হয়েছি। আমি এটা পরিবর্তনও করব না!’ 

শট খেলতে শ্যাডো করছেন সাকিব , ছবি: ডেইলি স্পোটর্সবিডি

তবে কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো অবশ্যই শিক্ষক হিসেবে ভূল ত্রুটি নিয়ে কথা বলার এখতিয়ার রাখেন। সাকিব সম্পর্কে কোচও বলেছেন সতর্ক হতে সাকিবকে। তিনি বলেন,   ‘তাকে অ্যাটাক ও ডিফেন্সের ভারসাম্যটা খুঁজে বের করতে হবে। মাঝেমধ্যে প্রতি–আক্রমণ করতে হবে। কিন্তু তাকে মারার সময় মাথার অবস্থান, শরীরের অবস্থান ঠিক রাখতে হবে। কারণ, সে একজন সামর্থ্যবান ব্যাটসম্যান, যেটা সে আজ দেখিয়েছে।’

 ‘দেখুন, সাকিব সব সময়ই রান করার চেষ্টা করে। আমরা চাই না সে স্লগ করুক। আমরা চাই সে ভালো ক্রিকেট শট খেলুক। সেটা করেই প্রতিপক্ষের ওপর কিছুটা চাপ প্রয়োগ করুক। সে–ও জানে যে শুরুর সময়টা কাটিয়ে দিলে তাকে দীর্ঘ ইনিংসটা খেলতে হবে। তাকে সেঞ্চুরি করতে হবে। দলের সেরা ছয় ব্যাটসম্যানকে সেঞ্চুরি করতে হবে।’

প্রথম ইনিংসে সাকিব করেছেন ৬৭ বলে ৫১ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে করেছেন ৬৩, তবে দলের যে বিপর্যস্ত পরিস্থিতিতে সাকিব এই রান করেছেন সেটি আলাদা করে বলার প্রয়োজন আছে। তবে সাকিব যদি আরেকটু সতর্ক থাকতেন তাহলে হয়তবা রানটা আরেকটু বড় হলেও হতে পারতো , এই ব্যাপারে হয়ত কোচ এর সাথে সাকিবও দ্বিমত পোষন করবেন না।