ফুটবল > আন্তর্জাতিক ফুটবল

‘আমাদের মাঝে চমৎকার সম্পর্ক আছে’, সালাহকে নিয়ে সাদিও মানে

মিডিয়া দুজনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা নিয়ে বাড়াবাড়ি করছে, দাবি সেনেগাল তারকার।

ডেস্ক রিপোর্ট

২৩ জুলাই ২০২২, রাত ১২:২ সময়

[ Screenshot_20220722-235733_Chrome.jpg ]

ইংলিশ ক্লাব লিভারপুলের ঘুরে দাঁড়ানোর পিছনে অন্যতম কারিগর দুজন। অলরেডদের হয়ে প্রতিপক্ষের রক্ষণসীমায় দুজনের বোঝাপড়াও ছিল চমৎকার। কিন্তু গত মাসেই লিভারপুল ছেড়ে বায়ার্ন মিউনিখে যোগ দেন সাদিও মানে। আর এর মধ্য দিয়ে ভেঙে যায় লিভারপুলের আক্রমণভাগে মানে ও মোহাম্মদ সালাহর জুটি। 

বায়ার্ন মিউনিখে যোগ দেওয়ার পর প্রথমবার মোহাম্মদ সালাহকে নিয়ে কথা বলেছেন সাদিও মানে। গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাতে মরক্কোর রাজধানীতে আফ্রিকার বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরসস্কার জিতেন মানে। মহাদেশীয় সেরা ফুটবলার হওয়ার লড়াইয়ে আবারও মিশরীয় ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ সালাহকে হারান তিনি। 

সাম্প্রতিক সময়ে দুজনের ব্যক্তিগত লড়াইয়ে সাদিও মানেই শেষ হাসি হাসছে। ক্লাবে দুজন কাঁদেকাঁধ মিলিয়ে খেললেও দেশের হয়ে একে অপরের মুখোমুখি হয়েছে। আর এই লড়াইয়ে গত মৌসুমে দুবারই জিতেছে মানে। 

গত ফেব্রুয়ারিতে মোহাম্মদ সালাহর মিশরকে হারিয়ে প্রথমবার সেনেগালকে আফ্রিকা মহাদেশের শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট এনে দেনে সদ্য বায়ার্নে যোগ দেওয়া এই তারকা। এরপর বিশ্বকাপ বাছাইয়েও সাবেক ক্লাব সতীর্থকে অঝোরে কাঁদান তিনি। ফের সালাহর মিশরকে হারিয়ে সেনেগালকে বিশ্বমঞ্চেও তুলেন। এবার ব্যক্তিগত লড়াইয়েও সালাহর হৃদয় ভেঙেছেন মানে।

দুজনের এই প্রতিদ্বন্দ্বীতা নিয়ে প্রায় সংবাদমাধ্যমে খবর আসে। অনেকে দুজনকে একে অপরের মুখোমুখিও দাঁড় করিয়ে দেয়। যদিও বিষয়টি নাকচ করে দিয়েছেন সাদিও মানে। সেনেগাল তারকা নিজেই জানালেন মোহাম্মদ সালাহর সঙ্গে কোন প্রতিদ্বন্দ্বীতাও নেই। 

লিভারপুল ছাড়ার পরও মিশরীয় তারকার সঙ্গে কথা হয় বলে জানান তিনি। টানা দ্বিতীয়বার আফ্রিকার বর্ষসেরা ফুটবলার হওয়ার পুরস্কার নিতে এসে এসব বলেন ৩০ বছর বয়সী এই তারকা।

“লোকেরা মাঝে মাঝে বলে যে আমার এবং (সালাহ) এর মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা আছে, কিন্তু আমি নিজে সৎ হতে কোন খেলোয়াড়ের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করিনা।”

“আমাদের মাঝে চমৎকার সম্পর্ক আছে। আমরা একে অপরকে মেসেজ করি। আমি মনে করি মিডিয়া সব সময় জিনিসগুলি নিয়ে বাড়াবাড়ি করে। সব খেলোয়াড়ের সাথে আমার ভালো সম্পর্ক আছে