ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

‘গরীব’ বলে ডি ইয়ংয়ের পাওনা দিচ্ছে না বার্সা, মামলা করার পরামর্শ ইংলিশ কিংবদন্তির

ডি ইয়ংয়ের প্রতি বার্সেলোনার আচরণে ক্ষুব্ধ ইংলিশ কিংবদন্তি।

ডেস্ক রিপোর্ট

২৬ জুলাই ২০২২, রাত ১২:১২ সময়

[ Screenshot_20220726-000430_Gallery.jpg ]

বেশ কয়েক দিন ধরেই জোরালভাবে শোনা যাচ্ছে ফ্রাংক ডি ইয়ংয়ের ক্লাব ছাড়ার খবর। উপযুক্ত প্রস্তাব পেলেই নাকি তাকে ছেড়ে দেবে বার্সেলোনা। আয়াক্সে থাকাকালীন তার কোচ ছিলেন এরিক টেন হেগ। ম্যান ইউনাইটেডর দায়িত্ব নেওয়ার পর তিনি নাকি খুব করে চাইছেন সাবেক শিষ্যকে। 

মাঠে বরাবরই নিজেকে নিংড়ে দিয়েছেন ডি ইয়ং। বার্সার খারাপ সময়ে ছিলেন দলের সেরা তারকাও। কিন্তু, তারপরও নিজেদের অর্থনৈতিক দৈনতার জন্য ডাচ মিডফিল্ডারকে ছেড়ে দিতে হচ্ছে কাতালানদের। ২৫ বছর বয়সী এই তারকাকে নাকি বিক্রি করে দিতে পারলেই নাকি বার্সা ঠিকঠাক করে নিতে পারবে ফিনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে মেনে চলার নিয়ম। 

ইতিমধ্যে, ফ্রাংক ডি ইয়ংকে বিক্রি করে দিতে সব বন্দোবস্তই করে ফেলেছে বার্সেলোনা। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সঙ্গে এই নিয়ে প্রাথমিক আলাপও সেরে ফেলেছে ক্লাবটি। কিন্তু, তার মধ্যেই বাগড়া বাধিয়েছেন ডি ইয়ং নিজেই। ডাচ মিডফিল্ডার ছাড়তে চান না ন্যু ক্যাম্প। 

মূলত, বেতন বাবদ বার্সেলোনার কাছ থেকে এখনো প্রায় ১ কোটি ৭০ লাখ ইউরো পান ফ্রাংক ডি ইয়ং। বাংলাদেশি হিসেবে প্রায় ১৬০ কোটি টাকার মতো। খবরটা নিশ্চিত করেছে অ্যাথলেটিকও। 

বার্সেলোনার সঙ্গে ডি ইয়ংয়ের চুক্তি ২০২৬ সাল পর্যন্ত। এই সময়ে বার্সেলোনার কাছ থেকে বেতন-বোনাস বাবদ আরও ৮ কোটি ৮৭ লাখ ইউরো পাওয়ার কথা এই ডাচ তারকার। অর্থের অভাবে ডি ইয়ংয়ের সেই পাওনা পরিশোধ করতে পারছে না কাতালানরা, তাই ডাচ মিডফিল্ডারও পাওনা বেতন ছাড়া এখনই ন্যু ক্যাম্প ছাড়তে রাজি না। 

এবারের দলবদলে একের পর এক চমক দেখাচ্ছে বার্সেলোনা। খেলোয়াড় কেনার দৌড়ে কাতালানদের সঙ্গে পেরে উঠছেনা কোন ক্লাবটি। অথচ সেই ক্লাবটিই অর্থনৈতিক দুর্দশার কথা তুলে ধরে ডি ইংয়ের পাওনা দিচ্ছে না। 

এই বিষয়টি একেবারেই ভালো লাগছে না ইউনাইটেড কিংবদন্তি গ্যারি নেভিলের। সাবেক ইংলিশ ডিফেন্ডার ডি ইয়ংয়ের প্রতি বার্সার এমন আচরণে ভীষণ ক্ষুব্ধ  হয়েছেন। ডাচ মিডফিল্ডারকে তিনি আইনি পদক্ষেপ নেওয়ারও পরামর্শ দিয়েছেন। 

এমনকি, ফুটবলারদের সবচেয়ে বড় সংঠন ফিফপ্রোকে এই ধরনের গুন্ডামি বন্ধ করতে পদক্ষেপ নিতে বলেছেন নেভিল। এক টুইট বার্তায় এসব বলেছেন তিনি। 

“ডি ইয়ংকে বার্সেলোনার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ বিবেচনা করা উচিত এবং সমস্ত খেলোয়াড়দের তার পাশে থাকা উচিত! একটি ক্লাব নতুন খেলোয়াড়দের জন্য ভাগ্য অঢেল অর্থ ব্যয় করছে, কিন্তু তার চুক্তির অধীনে থাকা খেলোয়াড়ের পাওনা বেত্ন দিচ্ছে না। এটি অনৈতিক কাজ।”

“ফিফপ্রোকে এসব গুন্ডামি বন্ধ করতে পদক্ষেপ নিতে হবে। এটি অবশ্যই বন্ধ করা উচিত।”

২০১৯ সালে আয়ক্স ছেড়ে বার্সেলোনায় যোগ দেন ফ্রাংক ডি ইয়ং। তিন মৌসুমে কাতালানদের হয়ে ১৩৮ ম্যাচ খেলেছেন ডাচ মিডফিল্ডার। এই সময় ২৫ বছর বয়সী এই তারকা ১৩ গোল করে সতীর্থদের দিয়ে আরও ১৭ গোল করিয়েছেন।