ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

টেন্ডুলকারকে কেন ‘শচীন স্যার’ বললেন না, ভারতীয়দের তোপের মুখে লাবুশেন!

অজি তারকাকে টেন্ডুলকারের কাছে ক্ষমা চাইতে বলছে ভারতীয় সমর্থকরা।

ডেস্ক রিপোর্ট

৩১ জুলাই ২০২২, দুপুর ৪:২৯ সময়

[ Screenshot_20220731-162237_Chrome.jpg ]

অ্যাশেজ দিয়ে পাদপ্রদীপের আলোয় আসেন মার্নুস লাবুশেন। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই টেস্টের অন্যতম সেরা ব্যাটার হিসেবে জায়গা করে নেন এই অস্ট্রেলিয়ান। বর্তমানে আইসিসি টেস্ট র‍্যাংকিংয়ে দুইয়ে আছেন ২৮ বছর বয়সী এই ডানহাতি ব্যাটার।

দুর্দান্ত ব্যাটিং করে এতদিন বিশ্বব্যাপী যেসব কিংবদন্তির সুনাম কুড়িয়েছেন মার্নুস লাবুশেন, তাদের মধ্যেই আছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১০০ সেঞ্চুরির মালিক শচীন টেন্ডুলকারও। ক্রিকেট ঈশ্বর একবার সরাসরি বলেই দিয়েছিলেন, অজি ব্যাটারকে অনেকটাই তার নিজের মতোই মনে হয়।

ক্যারিয়ারের পথচলার শুরুতেই যার কাছে থেকে এত বড় সনদ পেয়েছিলেন; সেই শচীন টেন্ডুলকারের ভক্তদেরই এবার তোপের মুখে পড়লেন মার্নুস লাবুশেন। ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়কে ‘অসম্মান’ করা অভিযোগে অজি তারকাকে রীতিমতো শূলে চড়াচ্ছে ভারতীয়রা। 

ঘটনা মূলত, এবারের কমনওয়েলথ গেমসে দীর্ঘদিন পর ক্রিকেটের ফেরা নিয়ে শচীন টেন্ডুলকারের একটি টুইটের রিটুইট করা নিয়েই। 

ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে চলছে কমনওয়েলথ গেমসের আসর। ২৪ বছর পর আবার এতে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে ক্রিকেট। গত ২৯ জুলাই মেয়েদের চার-ছক্কার ক্রিকেটে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত ও অস্ট্রেলিয়া। 

সেই ম্যাচের আগে কমনওয়েলথ গেমসে ক্রিকেটের ফেরা নিয়ে স্বস্তি প্রকাশ করেন শচীন টেন্ডুলকার। নিজের টুইটার পাতায় ক্রিকেট ঈশ্বর লিখেন,

“কমনওয়েলথ গেমসে ক্রিকেট ফিরতে দেখে ভালো লাগছে। আশা করছি, এটা আমাদের খেলাটিকে নতুন দর্শকদের কাছে পৌঁছে দেবে। কমনওয়েলথ গেমস ক্রিকেটে ভারতের মেয়েদের জন্য শুভকামনা রইল।”

ভারতীয় কিংবদন্তির সেই টুইট রিটুইট করেন মার্নুস লাবুশেনও। নিজের টুইটার পাতায় বেশ সাদামাটাভাবেই মন্তব্য করেন অজি ব্যাটার। লাবুশেন লিখেন, “সহমত শচীন, অস্ট্রেলিয়া বনাম ভারত ম্যাচ দিয়ে শুরু, এটা বেশ রোমাঞ্চকর।”

শচীন টেন্ডুলকারের বিরুদ্ধে কোন মন্তব্যেই করেননি, অথচ অজি ব্যাটারের এমন সাফামাটা মন্তব্যেই ভালো লাগেনি শচীন ভক্তদের। মার্নাস লাবুশেন কেন রিটুইটে শচীনের নামে আগে ‘স্যার’ বলেনি তাতেই ক্ষেপেছে ভারতীয় সমর্থকরা।

অনেকে মার্নুস লাবুশেনের বিরুদ্ধে ক্রিকেট ঈশ্বরকে অসম্মান করারও অভিযোগ তুলেছে। এমনকি, এই নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভারতীয়রা মার্নাস লাবুশেনকে টেন্ডুলকারের কাছে ক্ষমা চাইতেও বলছেন। 

যদিও এই বিষয়ে শচীন টেন্ডুলকার কিংবা মার্নাস লাবুশেনের কেউই এখনও কোন মন্তব্য করেনি।