ফুটবল > ক্লাব ফুটবল

বিশ্বকাপের গন্ধ পেয়েই ‘আসল রোনালদো’ হয়ে উঠছেন জেসুস

আর্সেনালে যোগ দিয়েই ‘গোলমেশিন’ বনে গেলেন ২৬ বছর বয়সী এই ব্রাজিলিয়ান তারকা।

ডেস্ক রিপোর্ট

৩১ জুলাই ২০২২, রাত ১০:২৫ সময়

[ Screenshot_20220731-221429_Gallery.jpg ]

গেল দশকে ব্রাজিলে সেরা প্রতিভাবান তারকাদের মধ্যে একজন গ্যাব্রিয়েল জেসুস। ফুটবলে হাতেখড়ি তাঁর ব্রাজিলেরই স্থানীয় ক্লাব আনহানগুয়েরাতে। ক্লাবটির যুব প্রকল্পে প্রায় দুই বছর কাটানোর সময় পালমেইরাসের স্কাউটদের নজরে আসেন। 

২০১৩ সালে পালমেইরাসের সঙ্গে চুক্তি করেন জেসুস। প্রথম বছরেই ৪৮ ম্যাচে ৫৪ গোল করে বুঝিয়ে দেন ঠিক জহরই বেছে নিয়েছেন পালমেইরাসের জহুরিরা। যুব প্রকল্পে ভালো খেলে ২০১৫ সালে জায়গা করে নেন মূল দলে। জেসুস ধারাবাহিক পারফর্ম করেন সেখানেও। 

ঠিক এই কারণেই ব্রাজিলের কোচ দুঙ্গা তাঁর কোপা আমেরিকার শতবর্ষী আসরের ৪০ জনের প্রাথমিক দলে রাখেন তাঁকে। ডগলাস কস্তা চোটে পড়ায় চূড়ান্ত দলেও জায়গা পেয়েছিলেন। তবে যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা না পাওয়ায় সেবার ব্রাজিল দলে খেলা হয়নি জেসুসের। 

নিজেকে প্রমাণ করতে জেসুস বেছে নিলেন ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত হওয়া অলিম্পিক আসর। সেবার নেইমারের সঙ্গে জুটি বেধে ব্রাজিলকে এনে দিলেন প্রথমবারের মতো অধরা অলিম্পিক সোনার মেডেল। ইউরোপীয়ান খবরে তখন জেসুসের নামে হইচই রব চলে। ২১ বছর বয়সেই জেসুস যোগ দিলেন ইংল্যান্ডের ক্লাব ম্যানচেস্টারসিটিতে।

ম্যান সিটিতে এসে কখনওই থিতু হতে পারেননি জেসুস। কখনও কিংবদন্তি সার্জিও আগুয়েরোর ছায়া কিংবা কোচ পেপ গার্দিওলার ট্যাকটিকসের কারণেই সিটির দলে নিয়মিত সদস্য হয়ে খেলে যেতে পারেননি ব্রাজিলিয়ান তারকা। তবে, যখনই সুযোগ পেয়েছেন, ২৬ বছর বয়সী তারকা ক্লাবে হয়ে ঠিকই নিজের সবটুকু নিংড়ে দিয়েছেন। 

গেল মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগের ব্যর্থতার পরই ফের আক্রমণভাগ ঢেলে সাজানোর কথা জানায় ম্যানসিটি। আক্রমণভাগ শক্তিশালী করতে ইত্তিহাদে আসেন আর্জেন্টাইন ‘মাকড়সা’ খ্যাত জুলিয়ান আলভারেজ। পেপ গার্দিওলার দল সময়ের সেরা গোলমেশিন আর্লিং হ্যালান্ডকেওও কিনে নেয়। 

মূলত, বেশিরভাগ সময় সিটির হয়ে বদলি নেমে ঝলক দেখালেও এদুজনের আগমণেই জেসুস বুঝে ফেলেন, সামনে আর সেই সুযোগও পাচ্ছেন না তিনি, ইত্তিহাদে বিদায় ঘন্টা বেজে গেছে! সাড়ে ৪ কোটি পাউন্ড ট্রান্সফার ফিতে জেসুস যোগ দিলেন ইংল্যান্ডের আরেক সুনামধন্য  ক্লাব আর্সেনালে।

এদিকে, ব্রাজিলের আক্রমণভাগেও এখন তারকা ফুটবলারদের ছড়াছড়ি। আসন্ন কাতার বিশ্বকাপে আক্রমণভাগ সাজাতে মধুর সমস্যায় পড়বেন সেলেসাও কোচ তিতে। এমতাবস্থায়, কাতারে যেতে হলে ক্লাবের হয়ে পারফরম্যান্সের কোন বিকল্ল নেই ফুটবলারদের সামনে। 

এই বিষয়টি ভালো করেই বুঝেছেন জেসুস। তাই, বিশ্বকাপের ঘ্রাণ পেয়েই নতুন ক্লাব এসে একের পর এক গোল করে যাচ্ছেন তিনি। গানার্সদের হয়ে নিজের শুরুর পথচলায় ২৬ বছর বয়সী এই তারকা যেন এখন ‘আসল রোনালদো’ অর্থাৎ, ব্রাজিলের কিংবদন্তি রোনালদো নাজারিওর মতোই হয়ে উঠছেন। গানার্সদের হয়ে প্রাক মৌসুমে ৪ ম্যাচে ৭ গোল করে তাই যেন বুঝালেন।

আর্সেনালের হয়ে নুর্নবার্গের বিপক্ষে অভিষেক হয় গ্যাব্রিয়েল জেসুসের। দলের ৫-৩ গোলের জয়ে বদলি নেমেই করেন জোড়া গোল। এভারটনের বিপক্ষেও প্রীতি ম্যাচে জালের দেখা পেয়েছেন। পরের ম্যাচে গোলের খাতা খুলতে না পারলেও ফ্লোরিডা কাপে স্বরুপে ফিরেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। চেলসির বিপক্ষে দলের ৪-০ গোলের জয়ে তিনিই গোলের খেরোখাতা আরম্ভ করেন। 

তবে, জেসুস যে নতুন মৌসুমে আর্সেনাকের তুরুপের তাস হয়ে উঠতে পারেন এমিরাতস কাপেই বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি। গতকাল (শনিবার) এমিরাতস কাপে ঘরের মাঠে স্প্যানিশ ক্লাব সেভিয়াকে ৬-০ গোলে হারায় আর্সেনাল। গানার্সদের জয়ে হ্যাট্রিক করেছেন জেসুস। 

সবধরনের খেলায় আর্সেনালের হয়ে চতুর্থ ম্যাচেই প্রথম হ্যাট্রিকের দেখা পেয়ে গেলেন ২৬ বছর বয়সী এই তারকা। দুর্দান্ত জেসুসের এমন নজরকাঁড়া পারফরম্যান্সেই অনেকে এখন  বলাবলি শুরু করে দিয়েছেন, বিশ্বকাপের গন্ধ পেয়েই কি জেসুস ‘আসল রোনালদো’ তথা রোনালদো নাজারিও হয়ে উঠছেন? অবশ্য, কাতার বিশ্বকাপে ব্রাজিল দলে জায়গা পেতে হলে জেসুসকে এখন খেলতে হবে নিজের সেরাটা দিয়েই!