ক্রিকেট > আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

ইলিয়াস, সাকিব, মোস্তাফিজের পর মোসাদ্দেকের ‘পাঁচ’

চতুর্থ বাংলাদেশি বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এক ইনিংসে পাঁচ শিকার করলেন ডানহাতি এই স্পিনার।

ডেস্ক রিপোর্ট

৩১ জুলাই ২০২২, বিকাল ৬:২৩ সময়

[ Screenshot_20220731-182139_Gallery.jpg ]

প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে পুরো দলই  বাজে বোলিং করেছিলো। যার খেসারতে পুচকে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুশোর বেশি রানের লক্ষ্য পেতে হয়েছিলো। ব্যাটিংয়ে লড়াই করেছে বটে, কিন্তু জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেনি বাংলাদেশ। তাই, দ্বিতীয় ম্যাচটিই সফরকারীদের জন্য সিরিজ বাঁচানোর লড়াই। 

সিরিজে টিকে থাকার লড়াইয়ে বাংলাদেশকে স্বপ্ন দেখাচ্ছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। হারারেতে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও টসে জিতে ব্যাট করার স্বীদ্ধান্ত নেয় জিম্বাবুয়ে। 

তবে কাপ্তানের স্বীদ্ধান্তকে যথার্থ প্রমাণ করতে পারেনি স্বাগতিকরা। বলা যায়, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত একাই তা করতে দেননি। ২৬ বছর বয়সী এই ডানহাতি বোলারের স্পিন বিষে রীতিমতো নীল হয়ে গেছে জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং অর্ডার।

সিরিজ বাঁচানোর লড়াইয়ে বাংলাদেশের বোলিংয়ের শুরুটা হয় স্বপ্নের মতোই। ক্যারিয়ারের প্রথমবার টি- টোয়েন্টি ক্রিকেটে ইনিংসের প্রথম ওভার করতে এসে প্রথম বলেই উইকেট পান মোসাদ্দেক। কাপ্তান নুরুল হাসান সোহানের তালুবন্দি করে ফেরান রেজিস চাকাভাকে। প্রথম ওভারে আরও এক উইকেট শিকার করেন মোসাদ্দেক।ওয়েসলি মাধেভেরেকে থিতু হওয়ার আগেই প্যাভিলিয়নে ফেরান তিনি। 

মোসাদ্দেকের পর বোলিংয়ে এসে মাহাদী হাসানও চাপ সৃষ্টি করেন। সেই চাপ বুঝি সইতে না পেরেই ক্রেইগ আরভিন খেলেন রিভার্স সুইপ। সোজা উইকেটরক্ষক লিটন কুমার দাসের তালুবন্দি হয়ে ফিরেন স্বাগতিক অধিনায়ক। তিনে তিন উইকেটই মোসাদ্দেকের। 

পঞ্চম ওভারে মাত্র ২০ রানে আবারও উইকেট পতন জিম্বাবুয়ের। এবারও শিকার করলেন মোসাদ্দেক। এবার ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে ফিরতি ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন উইলিয়ামস। দুর্দান্ত বল করা মোসাদ্দেকের প্রথম ফাইফারের পূর্ণতা দিয়েছেন  মিল্টন শুম্বা। সপ্তম ওভারে অফ স্টাম্পের বল সুইপ গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন শুম্বা। হাসান মাহমুদের দারুণ ক্যাচে প্যাভিলিয়নে ফিরেন তিনে। 

৪ ওভার করে মাত্র ২০ রান খরভ করে ৫ উইকেট শিকার করলেন মোসাদ্দেক। বাংলাদেশের মাত্র চতুর্থ বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এক ইনিংসে পাঁচ উইকেট শিকার করলেন ২৬ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার। তাঁর আগে ইলিয়াস সানি, সাকিব আল হাসান ও মুস্তাফিজুর রহমান এই কীর্তি গড়েছিলেন।

তাছাড়া, বাংলাদেশের কোনো ডানহাতি স্পিনারের জন্য টি-টোয়েন্টিতে এখন এটিই সেরা বোলিং। এর আগের রেকর্ডটি ছিল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ১০ রানে ৩ উইকেট।