ক্রিকেট > বাংলাদেশের ক্রিকেট

মন খারাপ সুজনের

এশিয়া কাপের ব্যর্থতায় ‘একটুও ভালো লাগছে না’ টিম ডিরেক্টরের।

ডেস্ক রিপোর্ট

৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, দুপুর ১০:৫০ সময়

[ Screenshot_20220903-104611_Gallery.jpg ]

হার, হার আর হার! ২০২২ সালে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে হারের বৃত্তেই  ঘুরপাক খাচ্ছে বাংলাদেশের ক্রিকেট। পরাজয়ের একেকটি গল্প এখন রূপ নিয়েছে ব্যর্থতার মহাকাব্যে। সাফল্য আসছে কালেভদ্রে। সেগুলোও আবার চাপা পড়ে যাচ্ছে ব্যর্থতার-ই ভারে। হতাশা ও দুঃস্বপ্নের মতো সময় কাটছে টাইগারদের। 

এমন অবস্থায়, এশিয়া কাপে ঘুরে দাঁড়ানো প্রত্যয় ব্যক্ত করেছিলো বাংলাদেশ। মরুর বুকে আশার আগে নতুন অধিনায়ক সাকিব আল হাসানও শুনিয়েছিলেন, আশার বাণী। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের কথায় টাইগারদের নিয়ে ফের স্বপ্ন দেখা শুরু করেছিলো সমর্থকরাও। 

নিজেদের কথা রাখতে পারেনি বাংলাদেশ। সীমাহীন ব্যর্থতার চোরাবালি থেকে উঠতেই পারেনি টাইগাররা। এশিয়া কাপে টানা দুই ম্যাচেই জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়েও হেরে বসেছে দলটি। ফলে, সাকিব আল হাসানের দল সবার আগেই আসর থেকে ছিটকে পড়েছে।

গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই ভীষণ হতাশ ক্রিকেটাররা। মুখ ভার সবার। সম্ভাবনা জাগিয়েও দুটি ম‍্যাচেই হার মানতে কষ্ট হচ্ছে তাদের। অন্তত একটি জয় প্রাপ‍্য বলেই মনে করছেন তারা। সেটি হয়নি। তাই ব‍্যর্থতা মেনে নিয়েই ফিরে যাচ্ছেন দেশে।

ক্রিকেটারদের মতো হতাশা জাতীয় দলে টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনও। কিছুতেই বাংলাদেশের এমন হার মেনে নিতে পারছেন না তিনি। গতকাল (শুক্রবার) এশিয়া কাপ কাভার করতে আসা বাংলাদেশি সাংবাদিকদের নিজের কষ্টের কথা জানান সুজন।

“আমার একটুও ভালো লাগছে না। খুব স্ট্রেস গিয়েছে কয়েকটা দিন। এখনই চলে যেতে পারলে ভালো হতো। এদের (পরিবার) নিয়ে একটু ঘুরে আসি। আগামীকাল যাব।”

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে বেশিরভাগ সময় ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে ছিলো টাইগারদের। তারপরও সাকিব আল হাসানরা শেষ ওভারে ম্যাচ হেরে বসেছে ২ উইকেটে। খালেদ মাহমুদ সুজন ব্যাখ্যা দিয়েছেন সেই হারেরও। 

”গতকাল ব্যাটিংটা ভালো হয়েছে। সেটা নিয়ে সবাই খুশি ছিলাম। কিন্তু এত ওয়াইড-নো দিলে কি জেতা যায়? আমরা এই জায়গাতেই পিছিয়ে গেছি। খুব কষ্টকর ছিল মেনে নেওয়া।”

এশিয়া কাপের দুটো ম্যাচেই জিততে জিততেই হেরেছে বাংলাদেশ। খালেদ মাহমুদ সুজনের আক্ষেপ সেখানেও৷

 “দুই দলের সঙ্গেই জেতা উচিত ছিল। আমরা জিততে শিখতে পারছি না।”